Breaking News
Home / বিনোদন / নাচবেন অপু, দর্শক হিসাবে থাকবেন শাকিব

নাচবেন অপু, দর্শক হিসাবে থাকবেন শাকিব

নাচবেন অপু, দর্শক শাকিব।

একসঙ্গে নেচেছেন, গেয়েছেন গান, জুটি বেঁধেছেন প্রায় ৭০টি চলচ্চিত্রে। এ তো গেল পর্দার হিসাব। সিনেমার মতোই প্রেম করেছেন ব্যক্তিজীবনে। রয়েছে পুত্রসন্তান। হয়েছে বিচ্ছেদও। পরে আর একসঙ্গে কাজ তো হয়ইনি, বরং অর্ধসমাপ্ত চলচ্চিত্রগুলোতেও তাঁরা কাজ করতে নারাজ। বলছি ‘কোটি টাকার কাবিন’খ্যাত জুটি শাকিব খান ও অপু বিশ্বাসের কথা।এবার একই অনুষ্ঠানে যাচ্ছেন তাঁরা। সেখানে নাচবেন অপু বিশ্বাস আর দর্শকসারিতে বসে দেখবেন শাকিব খান। এবারের জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার অনুষ্ঠানে এমনটাই দেখবেন তাঁদের ভক্তরা।আগামী ৮ ডিসেম্বর বঙ্গবন্ধু সম্মেলন কেন্দ্রে আয়োজিত হবে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার ২০১৭ ও ২০১৮ প্রদান অনুষ্ঠান। সেই অনুষ্ঠানে নাচবেন জনপ্রিয় নায়িকা অপু বিশ্বাস। ওই দিন শ্রেষ্ঠ অভিনেতা হিসেবে পুরস্কার নেবেন শাকিব খান। ২০১৭ সালের শ্রেষ্ঠ অভিনেতার পুরস্কার পাচ্ছেন তিনি। হাসিবুর রেজা কল্লোল পরিচালিত ‘সত্তা’ ছবিতে অভিনয়ের জন্য পাচ্ছেন এ সম্মানজনক পুরস্কার।জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার অনুষ্ঠানের কোরিওগ্রাফি করছেন ইভান শাহরিয়ার সোহাগ। গতকাল মঙ্গলবার (৩ ডিসেম্বর) তিনি বলেন, ‘আগামীকাল (আজ) থেকে আমরা অনুষ্ঠানের মহড়া শুরু করব। নিকেতনে অবস্থিত আমার একাডেমিতে মহড়া হবে। অনুষ্ঠানে নাচবেন অপু বিশ্বাস। বাংলা চলচ্চিত্রের জনপ্রিয় গানের সঙ্গে একক নাচে অংশ নেবেন অপু।’অপু বিশ্বাস ছাড়াও অনুষ্ঠানে একক নাচ পরিবেশন করবেন নুসরাত ফারিয়া, ইয়ামিন হক ববি ও নিপুণ। জুটি বেঁধে নাচবেন জায়েদ খান-মাহি, তমা মির্জা-ইমন। চলচ্চিত্রের সাড়াজাগানো গানের সঙ্গে তাঁরা নাচ পরিবেশন করবেন।অভিনয়ের স্বীকৃতিস্বরূপ এবার শাকিব খান ছাড়াও জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পাচ্ছেন আরিফিন শুভ, ফেরদৌস আহমেদ ও সাইমন সাদিক।গত ৭ নভেম্বর বৃহস্পতিবার তথ্য মন্ত্রণালয় থেকে ২০১৭ ও ২০১৮ সালের জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার বিজয়ীদের নাম ঘোষণা করে গেজেট প্রকাশ করা হয়।ঘোষণা অনুযায়ী, ২০১৭ সালের সেরা চলচ্চিত্র নির্বাচিত হয়েছে ‘ঢাকা অ্যাটাক’। এই ছবির নায়ক আরিফিন শুভর অভিনয়কে স্বীকৃতি দিয়েছে জুরি বোর্ড। এর ফলে প্রথমবারের মতো জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার জিতলেন শুভ।শুভর সঙ্গে যৌথভাবে ২০১৭ সালের সেরা অভিনেতার পুরস্কার জিতেছেন শাকিব খান। হাসিবুর রেজা কল্লোল পরিচালিত ‘সত্তা’ ছবিতে অভিনয় করে পঞ্চমবারের মতো এই পুরস্কার পাচ্ছেন তিনি। ‘হালদা’র জন্য শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রীর পুরস্কার পাচ্ছেন নুসরাত ইমরোজ তিশা।অন্যদিকে, ২০১৮ সালে ‘পুত্র’ সিনেমার জন্য সেরা অভিনেতার পুরস্কার জিতেছেন নায়ক ফেরদৌস। এই নিয়ে পাঁচবার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার ঘরে তুললেন ‘হঠাৎ বৃষ্টি’খ্যাত এই অভিনেতা।ফেরদৌসের পাশাপাশি যৌথভাবে সেরা অভিনেতা হয়েছেন চিত্রনায়ক সাইমন সাদিক। মোস্তাফিজুর রহমান মানিক পরিচালিত ‘জান্নাত’ ছবিতে অভিনয় নৈপুণ্য দেখিয়ে জুরি বোর্ডের সদস্যদের মন জয় করেছেন তিনি। সেইসঙ্গে ক্যারিয়ারে প্রথমবারের মতো এই পুরস্কার পেলেন সাইমন। ‘দেবী’র জন্য শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রীর পুরস্কার পাচ্ছেন জয়া আহসান।

২০১৭ সালে মুক্তি পাওয়া বদরুল আনাম সৌদের ‘গহীন বালুচর’ ছবিতে অনবদ্য অভিনয় করা শাহাদাৎ হোসেনকেই বেছে নিয়েছেন জুরি বোর্ডের সদস্যরা। পার্শ্বচরিত্রে শ্রেষ্ঠ অভিনেতা হিসেবে প্রথমবারের মতো জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারের স্বীকৃতি পেলেন তিনি।

অন্যদিকে, ২০১৮ সালে মুক্তি পাওয়া মোস্তাফিজুর রহমান মানিকের ‘জান্নাত’ ছবিতে অনবদ্য অভিনয় দিয়ে জুরি বোর্ডের মন জয় করেছেন চলচ্চিত্রের শক্তিমান অভিনেতা আলীরাজ। পেলেন শ্রেষ্ঠ পার্শ্ব অভিনেতার পুরস্কার। এর মাধ্যমে দ্বিতীয়বারের মতো জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার ঘরে তুললেন এই অভিনেতা।

২০১৭ সালের শ্রেষ্ঠ পার্শ্ব অভিনেত্রীর পুরস্কার জিতেছেন চলচ্চিত্রের নন্দিত অভিনেত্রী সুবর্ণা মুস্তাফা। বদরুল আনাম সৌদ পরিচালিত ‘গহীন বালুচর’ ছবিতে অভিনয়ের জন্য পুরস্কার পাচ্ছেন তিনি। তাঁর সঙ্গে যৌথভাবে পুরস্কার পাচ্ছেন অভিনেত্রী রুনা খান; ‘হালদা’ ছবিতে অভিনয়ের জন্য এ পুরস্কার পেলেন তিনি।

২০১৮ সালের জন্য মিনহাজ অভি পরিচালিত ‘মেঘকন্যা’ ছবিতে অভিনয় করে শ্রেষ্ঠ পার্শ্ব অভিনেত্রীর পুরস্কার পাচ্ছেন অভিনেত্রী সুচরিতা।

২০১৭ সালের জন্য আজীবন সম্মাননা দেওয়া হচ্ছে বর্ষীয়ান অভিনেতা এটিএম শামসুজ্জামান ও সালমা বেগম সুজাতাকে। ২০১৮ সালের জন্য যৌথভাবে আজীবন সম্মাননা দেওয়া হচ্ছে বর্ষীয়ান অভিনেতা প্রবীর মিত্র ও আলমগীরকে।

প্রসঙ্গত, এর আগে ২০১৭ ও ২০১৮ সালের জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার দিতে জুরি বোর্ড গঠন করে সরকার। গঠিত বোর্ড সংশ্লিষ্ট নীতিমালা অনুযায়ী মুক্তিপ্রাপ্ত চলচ্চিত্রগুলো মূল্যায়ন করে পুরস্কারপ্রাপ্তদের নাম সুপারিশ করেছে। তারই ভিত্তিতে প্রদান করা হয়েছে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার।

১৩ সদস্যবিশিষ্ট জুরি বোর্ডে তথ্য মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিবকে (প্রশাসন ও চলচ্চিত্র) সভাপতি করা হয়েছে। বাংলাদেশ চলচ্চিত্র সেন্সর বোর্ডের ভাইস চেয়ারম্যান সদস্য সচিব হিসেবে এবং বাংলাদেশ চলচ্চিত্র উন্নয়ন করপোরেশনের ব্যবস্থাপনা পরিচালক, তথ্য মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব (চলচ্চিত্র) ও বাংলাদেশ ফিল্ম আর্কাইভের মহাপরিচালক সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।

২০১৭ সালের জুরি বোর্ডের অন্য সদস্যরা হলেন—ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিপার্টমেন্ট অব টেলিভিশন ফিল্ম অ্যান্ড ফটোগ্রাফির চেয়ারম্যান অধ্যাপক শফিউল আলম ভূঁইয়া, একুশে টেলিভিশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মনজুরুল আহসান বুলবুল, চলচ্চিত্র অভিনেত্রী কোহিনূর আক্তার সুচন্দা, চলচ্চিত্র অভিনেতা ও প্রযোজক এম এ আলমগীর, বাংলাদেশ চলচ্চিত্র সমিতির সভাপতি মুশফিকুর রহমান গুলজার, চিত্রগ্রাহক পংকজ পালিত ও সংগীত পরিচালক সুজেয় শ্যাম।

২০১৮ সালের জুরি বোর্ডের সদস্যরা হলেন—ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিপার্টমেন্ট অব টেলিভিশন ফিল্ম অ্যান্ড ফটোগ্রাফির চেয়ারম্যান অধ্যাপক শফিউল আলম ভূঁইয়া, চলচ্চিত্র অভিনেতা ড. এনামুল হক, সংগীতশিল্পী ফকির আলমগীর, দৈনিক ভোরের কাগজের সম্পাদক শ্যামল দত্ত, গীতিকার ও সংগীত পরিচালক হাসান মতিউর রহমান, অভিনেত্রী রওশন আরা রোজিনা, বাংলাদেশ চলচ্চিত্র সমিতির

Check Also

বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সভাপতি হলেন মিশা সওদাগর মৌসুমী পরাজিত।

বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সভাপতি হলেন মিশা সওদাগর মৌসুমী পরাজিত। ———————————– ডেক্স রিপোর্ট —- বাংলাদেশ …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *