Breaking News
Home / লাইফ স্টাইল / তারুণ্যের আইকন: একজন সাহেদ সারোয়ার শামীম

তারুণ্যের আইকন: একজন সাহেদ সারোয়ার শামীম

তারুণ্যের আইকন: একজন সাহেদ সারোয়ার শামীম
কাজী ইফতেখারুল আলম তারেক

সাহেদ সারোয়ার শামীম। সন্দ্বীপ উপজেলা আওয়ামী লীগ নেতা,আবাহনী ক্রীড়া চক্রের সভাপতি। এ প্রজন্মের একজন ক্যারিশমেটিক নেতা। জন্মতিথিতে তাঁকে জানাই অযুত অভিনন্দন। এ লেখাটি শুধুই জন্মদিনের শুভেচ্ছা বার্তা একই সঙ্গে আগামী দিনের প্রতি কিছু বার্তা। আপনাকে নিয়ে সহস্র সুন্দর শুভ কামনার অভিযাত্রা দেখলাম। এতে প্রমাণ হলো, গণমানুষের ভালোবাসা কখনও চেপে রাখা যায় না। সেটা যেকোনোভাবেই উদ্ভাসিত হবে আপন শক্তিতে। যাঁরা যেভাবে ভালোবাসা জানিয়েছেন, তাতে আপনি আনন্দাশ্রুতে সিক্ত হয়েছেন। এত সব ভালোবাসার পর আমার এসব কথা আপনার ভালো নাও লাগতে পারে। তবুও দু’চারটে কথা না বললেই নয়। আপনি নিজে একজন তরুণ। সেই সঙ্গে তারুণ্যের পূজারী। যে তরুণদের শ্রদ্ধা করতে জানে, সম্মান করতে জানে, সে সকলের কাছে পূজনীয় হবে এটা খুবই স্বাভাবিক। এতকিছুর পরেও শামীম মামা আলাদাভাবে মূল্যায়নের দাবি রাখেন।

একজন তুখোড় বক্তা, ক্রীড়া সংগঠক, রাজনৈতিক বিশ্লেষক হিসেবে আপনি এ প্রজন্মের কাছে অনুকরণীয় ব্যক্তিত্বে পরিণত হয়েছেন। আজ আপনাকে মূল্যায়ন করব ভিন্ন মাত্রায়। আমাদের জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম তারুণদের জন্যই লিখেছেন- “আমার বলিতে দ্বিধা নাই যে, আমি আজ তাহাদেরই দলে যাঁহারা কর্মী নন-ধ্যানী। যাঁহারা মানবজাতির কল্যাণ সাধন করেন সেবা দিয়া, কর্ম দিয়া, তাঁহারা মহৎ, কিন্তু সেই মহৎ হইবার প্রেরণা যাহারা জোগান, তাঁহারা মহৎ যদি না-ই হন অন্তত ক্ষুদ্র নন। ইহারা থাকেন শক্তির পেছনে, রুধির-ধারার মতো গোপন, ফুলের মাঝে মাটির মমতা-রসের মতো অলক্ষ্যে।”

এই কথাগুলো যারাই অনুধাবন করতে পারবে, তারাই শামীম মামাকে খুঁজে পাবেন। তিনি এমন তারুণ্যের উচ্ছ্বাসে নিজেকে সঁপে দিয়ে অনেকের কাছে অনুকরণীয় হয়ে উঠেছেন নিজেরই অজান্তে। নিকট ভবিষ্যতে সন্দ্বীপে তিনি নেতৃত্ব দেবেন- এটা দিব্য দৃষ্টিতে দেখতে পাচ্ছি। এই ভেবে ভালো লাগছে যে, একজন সুন্দর মনের তরুণ তাঁর আবেগ-উচ্ছ্বাস দিয়েই তাঁর এলাকার জন্য অন্তপ্রাণ হয়ে কাজ করবেন।

এবার আপনার বরাবর কিছু কথা আছে- আপনার জন্মভিটে (সারিকাইত) এখনও মাদকের করাল গ্রাস থেকে রেহাই পায়নি। যদিও মাদকের কথা বললে আপনার নিকটের নেতাদের মাথা খারাপ হয়, তবুও আমি এই নির্মম সত্য উচ্চারণ করতে দ্বিধাবোধ করি না। নিকট অতীতে দেখেছি, একজন জনপ্রতিনিধি মাইটভাঙ্গাসহ দক্ষিণ সন্দ্বীপকে জিম্মি করে মাদক, সন্ত্রাস, ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করেছিল। সেসব দিন এখন অতীত হলেও মানুষ ভুলে যায়নি, যেমন ভুলেনি জেনারেল আইয়ুব খান, জেনারেল জিয়া, খালেদা-নিজামি জামায়াত জোটের শাসনামলের দুঃশাসনের কথা।

অন্যায়-অত্যাচারের চারণভূমিতে পরিণত হয়েছিল দক্ষিণ সন্দ্বীপ, যার ফলে দুই ইউনিয়নের অধিবাসীদের উৎকণ্ঠা-আতংক আর দুঃখের সীমা ছিল না। শিক্ষা,সাহিত্য,ক্রীড়া,সংস্কৃতির মেলবন্ধনে একটি আধুনিক সমাজ গড়ে তুলুন। যেখানে আজকের তরুণরা আবার স্বপ্ন দেখতে পারবে আপনার ছায়াতলে এসে। দলবাজি করে যারা জনতার স্রোতকে অবরুদ্ধ করে রাখতে চায়, তাদের বিষ দাঁত ভেঙে দিতে হবে। এ সমাজ সেই একজনের অপেক্ষায় আছে। সম্ভাব্যদের তুলনায় আপনি যেহেতু অনেক দিক থেকে যোগ্যতায় এগিয়ে আছেন, তাই আপনার কাছে জনগণের প্রত্যাশাও বেশি থাকবে। জন্মদিনের এই সুবর্ণ লগ্নে আপনাকে অভিনন্দিত করি। জনগণের ভালোবাসা নিয়ে দীর্ঘদিন এভাবে বেঁচে থাকুন। এরচেয়ে বেশি চাওয়ার নেই। বাঁচলে এভাবেই আদরে বাঁচুন।
লেখক-গণমাধ্যমকর্মী

Check Also

বাবা, ভালোবাসি তোমায়

বাবা, ভালোবাসি তোমায় কাজী ইফতেখারুল আলম তারেক : বাবা সন্তানের মাথার ওপর বটবৃক্ষের ছায়ার মতো, …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *