Breaking News
Home / শিক্ষা / নীলিমা শামীমের জীবন ও সাহিত্যকথন -এম. এইচ সোহেল

নীলিমা শামীমের জীবন ও সাহিত্যকথন -এম. এইচ সোহেল

নীলিমা শামীমের জীবন ও সাহিত্যকথন-
এম. এইচ সোহেল

কবি নীলিমা শামীমের কবিতা লেখা সে ছোটকাল থেকে,তিনি কবিতা কে ভালোবাসেন। কবিতা নিয়ে তিনি স্বপ্ন দেখেন,কবিতা লেখার মধ্যে দিয়ে বেঁচে থাকতে চান। তার জীবনে সাহিত্যচর্চা কে সবচেয়ে বেশি আপন করে নিয়েছেন। নির্জন বিকেল কবিতায় তিনি বলেছেন, ‘নির্জন বিকেল অজানার আবেশে
বিকালের ধারে অনমনে একলা বসে।
বিলীন কামবনের স্নিগ্ধ ছায়ায়
আকাশের সাদা মেঘের ভেলায়”।
উপমা কবিতায় বলেছেন,”কাজল পরানো ঔ চোখের হাসি
তাইতো নীলিমা তোমায় ভালোবাসি
আমার মনের রাজ্যে তুসিযে রানী
আমি ছাড়া নেই কেহ তা আমি জানি”। নীলিমা শামীমের কবিতায় ফুটে উঠেছেজ প্রেম,বিরহ,সমাজচিন্তা,নারী,প্রকৃতি,শিশু-বিষয়ক ও মানবিকতা। নীলিমা শামীম শুধু কবিতা লিখেন না। তিনি আরো লিখেন উপন্যাস ও প্রবন্ধ। নীলিমা শামীমের প্রকাশিত গ্রন্থ মধ্যে রয়েছে,
প্রনয়ের শেষ বিকেল,
পরন্ত বিকেলের ভালোবাসা,
ভালোবাসায় হাত বাড়িয়ে,
আগুনে লেখা বসন্ত কাবিন,
তুমি হীনা আমি,
ঝুপুরঝাপুর ছড়ার নুপুর,
পঞ্চমাঞ্জলির দ্বীপশিখা,
প্রেমালাপ
একক কাব্যগ্রন্থ, প্রতিভাবান কবি নীলিমা শামীম জন্মগ্রহণ করেন ২১ নভেম্বর বার আউলিয়ার পূর্ণভূমি, পাহাড়-সাগরের সৌন্দর্যের নীলাভূমি চট্টগ্রামে। সাহিত্যের পূর্ণভূমি চট্টগ্রাম শহরে সুশীল সমাজের মধ্যে নীলিমা শামীমের নাম শুনেনি খুব কম মানুষ আছেন। নীলিমা শামীমের কবিতা প্রকাশ হচ্ছে চট্টগ্রামের স্হানীয় পত্রিকা, জাতীয় দৈনিক ও দেশের বিভিন্ন জেলা থেকে প্রকাশিত সাময়িকীতে। নীলিমা শামীম যেমন একজন প্রতিভাবান লেখক হিসেবে পরিচিত। আবার তিনি একজন আর্দশবান নারী হিসাবে সর্বজনীয় স্বকৃীত। নীলিমা শামীম সরল ও উদার প্রকৃতি মানুষ হিসেবে সকলের কাছে শ্রদ্ধারপাত্র, তার সবচেয়ে বড় গুনাবলি তিনি সকল কে অনেক সম্মান দিয়ে কথা বলেন এবং নিরহংকারী মানুষ। নীলিমা শামীম একজন বই প্রেমিক মানুষ, তিনি পড়তে ভালোবাসেন,দিনের বেশিরভাগ সময় তিনি বই পড়া নিয়ে থাকেন। তিনি ভ্রমণ প্রিয় সময় পেলে বেড়িয়ে পড়েন দেশ-বিদেশে। ভালোবাসেন মুক্তমনের সকল মানুষকে। নীলিমা শামীম সাহিত্যচর্চা ছাড়াও সমাজসেবায় নিজেকে সংপৃক্ত রেখেছেন।

Check Also

কবিতাঃ লক ডাউনে, কলমে এম এ ছালেহ্

লক ডাউনে —এম এ ছালেহ্ লক ডাউনে কেউ নিলনাতো খবর কেমনে যাচ্ছে তার, কেমন আছে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *