Breaking News
Home / চট্টগ্রাম / নগরীর অক্সিজেন এলাকার ৫ ফার্মেসীতে অনুমোদনহীন ও ভেজাল ঔষধের ছড়াছড়ি;  ভ্রাম্যমাণ আদলতের ৯০ হাজার টাকা জরিমানা

নগরীর অক্সিজেন এলাকার ৫ ফার্মেসীতে অনুমোদনহীন ও ভেজাল ঔষধের ছড়াছড়ি;  ভ্রাম্যমাণ আদলতের ৯০ হাজার টাকা জরিমানা

নগরীর অক্সিজেন এলাকার ৫ ফার্মেসীতে অনুমোদনহীন ও ভেজাল ঔষধের ছড়াছড়ি;  ভ্রাম্যমাণ আদলতের ৯০ হাজার টাকা জরিমানা

কমল চক্রবর্তী-  করোনা পরিস্থিতিকে পুঁজি করে নগরীর বিভিন্ন ফার্মেসীগুলোতে চলছে মেয়াদ উত্তীর্ণ ঔষধসহ যৌন উত্তেজক ঔষধের রমরমা ব্যবসা। রয়েছে বেশি দামে ঔষধ বিক্রির অভিযোগ। অক্সিজেন এলাকার কয়েকটি ফার্মেসী মডেল ফার্মেসীর অনুমোদন নিয়ে অনেকটাই ধরা ছোঁয়ার বাইরে থেকে চালিয়ে যাচ্ছে অনুমোদনহীন ও ভেজাল ঔষধসহ যৌন উত্তেজক ঔষধের ব্যবসা। এসব অনিয়মের বিরুদ্ধে জেলা প্রশাসনের ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান পরিচালিত হয়। আজকের অভিযানে ৫ ফার্মেসীকে ৯০ হাজার টাকা জরিমানা করে ভ্রাম্যমাণ আদালত।এসময় বিপুল পরিমানে অনুমোদনহীন হ্যান্ড স্যানিটাইজার, হেক্সাসল জব্দ করা হয়।
আজ রবিবার ০৫ জুলাই সকাল ১১ টা থেকে ৩:৩০ মিনিট পর্যন্ত নগরীর অক্সিজেন এলাকায় নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ আলী হাসানের নেতৃত্বে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান পরিচালনা করা হয়। এসময় অভিযানে উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রাম ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তরের ঔষধ তত্ত্বাবধায়ক মোঃ কামরুল হাসান।
জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ আলী হাসান জানান, আজকে অক্সিজেন এলাকার ৫ টি ফার্মেসীতে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করা হয়। এসব ফার্মেসীতে গিয়ে দেখা গেছে, অনেকে মডেল ফার্মেসীর অনুমোদন নিলেও মানা হয়নি লাইসেন্সের শর্ত। ৫ টি ফার্মেসীতে অনুমোদনহীন হ্যান্ড স্যানিটাইজার বিক্রি, আনরেজিস্টার্ড ঔষধ, ভারতীয় অনুমোদনহীন ভ্যাকসিন,সরকারি ঔষধ, ভায়াগ্রা, অনুমোদনহীন বিভিন্ন ভোগ্যপণ্য, অনুমোদনহীন ভারতীয় কসমেটিকসও পাওয়া যায়৷ যা লাইসেন্স এর ১৪ টি শর্তের সাথে অসামঞ্জস্যপূর্ণ।
তিনি জানান ,ঔষধ প্রশাসন কর্তৃক ইস্যুকৃত লাইসেন্স এর শর্ত অমান্য করে ব্যবসা পরিচালনার অভিযোগের প্রমান পাওয়া যায়। কোন ফার্মেসী ঔষধ প্রশাসন কর্তৃক ইস্যুকৃত লাইসেন্স এর শর্ত অমান্য করে ব্যবসা করতে পারবে না। তাই এসব অপরাধ আমলে নিয়ে ঔষধ আইন ১৯৪০ অনুযায়ী কিউর এন্ড কিউর ফার্মেসীকে ৩০,০০০ টাকা, বিসমিল্লাহ ফার্মেসীকে ২০,০০০ টাকা, হাফসা হানিফ মেডিকেলকে ১৫,০০০ টাকা,আল মাশাফি ফার্মেসীকে ১৫,০০০ টাকা, ইকবাল ফার্মেসীকে ৫,০০০ টাকা জরিমানা করা হয় এবং ৫ টি ফার্মেসীকে ভবিষ্যতের জন্য সতর্ক করা হয়। এছাড়াও স্বাস্থ্যবিধি না মেনে ব্যবসা করায় ৩ টি খুচরা প্রতিষ্ঠানকে ৫,০০০ টাকা জরিমানা করা হয়।
তিনি আরও জানান,অন্যদিকে একই এলাকায় একেএস ফার্মেসীতে গিয়ে দেখা গেছে তারা ঔষধ প্রশাসন কর্তৃক ইস্যুকৃত লাইসেন্সের শর্ত মেনে ব্যবসা পরিচালনা করছে। কোন প্রকারের অনিয়ম পরিলক্ষিত হয়নি।মোট কথা একটি পরিছন্ন ফার্মেসী। তাই তাদের ধন্যবাদ দেয়া হয় এবং এটা বজায় রাখার পরামর্শ দেয়া হয়।
অভিযানে থাকা চট্টগ্রাম ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তরের ঔষধ তত্ত্বাবধায়ক মোঃ কামরুল হাসান বলেন, জেলা প্রশাসনের পরিচালিত আজকের যৌথ অভিযানে গিয়ে দেখা যায় বেশ কয়েকটি ফার্মেসী ঔষধ প্রশাসন কর্তৃক ইস্যুকৃত লাইসেন্স এর শর্ত অমান্য করে ব্যবসা পরিচালনা করছে। সেই সাথে বিক্রি করছে অনুমোদনহীন হ্যান্ড স্যানিটাইজার ,আনরেজিস্টার্ড ঔষধ, ভারতীয় অনুমোদনহীন ভ্যাকসিন,সরকারি ঔষধ, ভায়াগ্রা, অনুমোদনহীন বিভিন্ন ভোগ্যপণ্য, অনুমোদনহীন ভারতীয় কসমেটিকস। প্রকৃতপক্ষে এসব ঔষধের(ভায়াগ্রা) সরকারের কোন অনুমোদন নেই এসব যৌন শক্তি বর্ধক জাতীয় ওষুধ প্রেস্ক্রিপশন করার কোন নিয়ম নেই।এসব ওষুধ সেবনে জনগনের স্বাস্থ্যের অনেক ক্ষতি করতে পারে। তাছাড়া অনুমোদনহীন ঔষধ বিক্রি সম্পূর্ণ বেআইনি ।
জনস্বার্থে ভ্রাম্যমাণ আদালতের এ অভিযান অব্যাহত থাকবে বলেও জানান নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ আলী হাসান।

Check Also

মেজর সিনহা: চট্টগ্রামের রেঞ্জ ডিআইজি কক্সবাজারে

মেজর সিনহা: চট্টগ্রামের রেঞ্জ ডিআইজি কক্সবাজারে ইঞ্জিনিয়ার হাফিজুর রহমান খান: সেনাবাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মো. …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *