Breaking News
Home / আন্তর্জাতিক / আজ ন্যালসন মেন্ডেলার শুভ জন্মদিন

আজ ন্যালসন মেন্ডেলার শুভ জন্মদিন

আজ ন্যালসন মেন্ডেলার শুভ জন্মদিন

টি রানা, বিশেষ প্রতিনিধিঃ   
১৯১৮ সালের ১৮ জুলাই আফ্রিকায় জন্মগ্রহণ করেন।আফ্রিকা বর্ণবৈষম্য প্রথা মুক্তি আন্দোলনের নেতা,২৭ বছর কারাবাস জীবন , বর্ণবাদ বিরোধী প্রথম কিংবদন্তীর রাষ্ট্রনায়ক ,স্বাধীনতা এবং বিশ্ব শান্তির দুত,মানুষের জন্য কাজ করে যাওয়া একটি নাম,রাজনীতির আইকন,বিশ্বের ক্ষমতাধর রাষ্ট্রপতি প্রয়াত ড.নেলসন ম্যান্ডেলার ১০২ তম জন্মদিন আজ।নেলসন ম্যান্ডেলা ছিলেন রাজাদের রাজা,বিশ্বের সবচেয়ে জনপ্রিয়,শাসকদের শাসক, রাষ্ট্রনায়কদের মধ্যে সেরা।যার তুলনা নাই বললে চলে।যিনি শুধু দক্ষিণ আফ্রিকায় বর্ণবাদের অবসান ঘটিয়ে বহু বর্ণ ভিত্তিক গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার সংগ্রামে নেতৃত্ব দিয়েছিলেন তাই না বিশ্বে বর্ণবাদী প্রথা প্রতিষ্ঠা করেছিলেন যা আজ সবাই ভোগ করতেছে। সেজন্য তাকে সবাই আজীবন শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করে।আকর্ষণীয় ব্যক্তিত্ব, প্রখর রসবোধ,তিক্ততা ভুলে বৈরিতা নয় সবার সাথে বন্ধুত্বের হাত বাড়িয়ে দেয়ার মত উদারতা এবং তাঁর বর্ণাঢ্য ও নাটকীয়তা ছিল তার আসিল বৈশিষ্ট। সব কিছু নিয়ে তার জীবন কাহিনী ছিলেন এক জীবন্ত কিংবদন্তী। বর্ণবাদের অবসানের পর ১৯৯৪ সালের ১০ই মে নতুন দক্ষিণ আফ্রিকার প্রথম কৃষ্ণাঙ্গ প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ নেন নেলসন ম্যান্ডেলা। এর মাত্র এক দশক আগেও সংখ্যালঘু শ্বেতাঙ্গ শাসিত দক্ষিণ আফ্রিকায় এই রাজনৈতিক পটপরিবর্তন ছিল এক অকল্পনীয় ঘটনা। এই পরিবর্তনের পেছনে সবচেয়ে বড় ভূমিকা রেখেছিলেন নেলসন ম্যান্ডেলা। শুধু দক্ষিণ আফ্রিকায় নয়, বিশ্বের বিভিন্ন দেশে শান্তি প্রতিষ্ঠায়ও তিনি ভূমিকা রাখেন।
যা আজো মানুষ স্মরণ করে রাখবে প্রিয় ন্যালসন ম্যান্ডেলাকে।সবার আস্থাভাজন ও মেধা সম্পন্ন এক রাষ্ট্রনায়ক।
একাধারে ২৭ বছর কারাগারে থাকার পরও তার দৃড়তা মনোবল তাকে বিশ্বের সফল নেতা হিসেবে প্রতিষ্ঠা লাভ করেন।তিনি মানুষের জন্য কাজ করতে কোন দ্বিধাবোধ করেনি।আজীবন মানুষের মধ্যে জন্য কাজ করে যান।

রাষ্ট্র জীবনের পরের জীবন বেশিরভাগ সময় তিনি দারিদ্র দূরীকরণ ও এইডস নিরাময়ের লক্ষ্যে প্রচারণায় নিজেকে নিয়োজিত রেখেছিলেন ও প্রচুর কাজ করে যায়।

নেলসন ম্যান্ডেলাকে একবার জিজ্ঞেস করা হয়েছিল, তাকে কিভাবে মনে রাখলে খুশী হবেন তিনি? তাঁর উত্তর ছিল, “আমি চাই আমার সম্পর্কে এরকম কথাই বলা হোক, এখানে মানুষ শায়িত আছেন, যিনি পৃথিবীতে তার কর্তব্য সম্পাদন করেছেন। আমি চাই এটুকুই বলা হোক আমার সম্পর্কে।”

আজকের দিনে তার মত আদর্শিক, ত্যাগী,মেধাবী ও সফল রাষ্ট্রনায়ক পাওয়া দুষ্কর। ক্ষমতা কি জিনিস তিনি তা ব্যবহার করতেন না।যারা তাকে নিষ্ঠুর কারাগারে রেখে ছিলেন তাদেরকে তিনি ক্ষমা করে দেন।ক্ষমতা কি জিনিস তিনি তা ব্যবহার করতেন না।মানুষের মত সাধারণ জীবন যাপন করতে পছন্দ করতেন। সাদা আর কালো মানুষের যে বৈষম্যমূলক আচরণ দেখা যেত তা তিনি দূরীকরণের মাধ্যমে বুঝিয়ে দিয়েছেন সবাই এক ও অভিন্ন।সবার উপর মানুষ সত্য তাহার উপরে নাই একথাটি তিনি প্রচলিত করেন।কারো সাথে দ্ধন্ধে লিপ্ত ছিলেন না মেধা দিয়ে সব কিছু জয় করেছেন।যুদ্ধ ময় শান্তি ছিল তার আসল কথা। প্রতিটি মানুষ এক অভিন্ন।একসাথে বসবাস করে যাওয়া হল আসল কাজ। প্রত্যেকের স্বাধীনতা প্রতি সম্মান জানানো উচিৎ। আমরা একে অপরের পরিপুরক।সবাই এক সাথে থাকব এটাই তার আসল কথা।

Check Also

সৌদি আরবে অস্থানরত সকল বাংলাদেশি রাজনৈতিক,অরাজনৈতিক, সামাজিক সংগঠন ও সাংবাদিক হিসেবে নিজেকে পরিচয় দিচ্ছেন তাদের উদ্যেশ্যে বাংলাদেশ দূতাবাস’র জরুরি বিজ্ঞপ্তি

সৌদি আরবে অস্থানরত সকল বাংলাদেশি রাজনৈতিক,অরাজনৈতিক, সামাজিক সংগঠন ও সাংবাদিক হিসেবে নিজেকে পরিচয় দিচ্ছেন তাদের …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *