1. [email protected] : admin :
  2. [email protected] : News Editor : News Editor
কক্সবাজার জেলা পরিষদ নির্বাচনে বিদ্রোহী মার্শালের জয় - DeshBarta
রবিবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০২২, ০৩:২৫ অপরাহ্ন
শিরোনামঃ
এস আলম গ্রুপের বিরুদ্ধে পরিকল্পিত চক্রান্ত খতিয়ে দেখতে সরকার ও দুদকের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি মাওলানা ফখরুল ইসলাম ছাহেবের মৃত্যুতে হাফিজ মাছুম আহমদ দুধরচকীর শোক প্রকাশ রাশিয়ার নিষিদ্ধ সংগঠনের তালিকায় যুক্ত হলো মেটা অনন্যাকে নিয়ে মুখ খুললেন বাবা চাঙ্কি পান্ডে বিশ্বের সবচেয়ে সরু বহুতল৷ যার উচ্চতা ১৪২৮ ফুট ডিসেম্বর থেকে ফেসবুক প্রোফাইলে দেখা যাবে না ইউজারদের এই তিনটি তথ্য প্রশিক্ষিত চিলের সাহায্যে শত্রুদেশের ড্রোন দমনের পরিকল্পনা ভারতের জেগে উঠতে পারে সাইবেরিয়ার ভয়ঙ্কর ‘জম্বি ভাইরাস’ আর্জেন্টিনা হেরে যাওয়া মানেই সব না: নায়িকা নতূন ফ্রান্সে রেকর্ড উষ্ণতম বছর ২০২২

কক্সবাজার জেলা পরিষদ নির্বাচনে বিদ্রোহী মার্শালের জয়

  • সময় বুধবার, ১৯ অক্টোবর, ২০২২
  • ২৮ পঠিত

জেপুলিয়ান দত্ত জেপু,চকরিয়াঃ

সারাদেশের ন্যায় কক্সবাজারেও জেলা পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। জেলার ঈদগাঁও সহ ৯ টি উপজেলার ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও মেম্বার ভোটাররা তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করেন।

গত ১৭ অক্টোবর (সোমবার) সারা দেশে জেলা পরিষদ নির্বাচন ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে সম্পন্ন হয়। নির্বাচন কমিশন ঘোষিত তফসিল মতে কক্সবাজার জেলা পরিষদ নির্বাচনে সরকার মনোনিত প্রার্থী সাবেক এমপি ও সদ্য সাবেক জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান খান বাহাদুর মোস্তাক আহমদ চৌধুরীকে ব্যাপক ভোটের ব্যবধানে পরাজিত করে কক্সবাজার জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন বিদ্রোহী প্রার্থী শাহীনুল হক মার্শাল। তিনি ১৮৩ ভোটের ব্যবধানে জয় লাভ করেছেন। আনারস প্রতিক নিয়ে তার প্রাপ্ত ভোটের সংখ্যা ৫৭৮ এবং তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী সাবেক এমপি ও জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মোস্তাক আহমদ চৌধুরী মোটর সাইকেল প্রতীকে পেয়েছেন ৩৯৫।

অপর দুই প্রার্থীর মধ্যে জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য ও কক্সবাজার পৌরসভার সাবেক চেয়ারম্যান নুরুল আবছার (তালগাছ) পেয়েছেন ১ ভোট এবং কথিত মঙ্গল পার্টির ভেয়ারম্যান জগদীশ বড়ুয়া (প্রজাপতি) পেয়েছেন ৯ ভোট।
প্রতিটি উপজেলায় সকাল ৯টা থেকে ভোট গ্রহন শুরু হয়ে দুপুর ২টার দিকে ভোট গ্রহন শেষে বিকেলে ফলাফল ঘোষনা করেন কক্সবাজার জেলা পরিষদ নির্বাচনের রির্টানিং কর্মকর্তা ও কক্সবাজারের জেলা প্রশাসক মো. মামুনুর রশীদ।

জেলার ৯ উপজেলায় মোট ৯৯৪ জন ভোটারের মধ্যে ৯৮৮ জন ভোট প্রদান করেন। এরমধ্যে চেয়ারম্যান পদের ৫ টি ভোট বাতিল বলে গন্য করা হয়।

রির্টানিং কর্মকর্তার কার্যালয়ের তথ্য মতে, সাধারণ সদস্য পদে ১ নম্বর ওয়ার্ড থেকে (টেকনাফ) জাফর আহমদ, ২ নম্বর ওয়ার্ড থেকে (উখিয়া) হুমায়ুন কবির চৌধুরী, ৩ নম্বর ওয়ার্ড থেকে (কক্সবাজার সদর) মাহমুদুল করিম মাদু, ৪ নম্বর ওয়ার্ড থেকে (রামু) ফরিদুল আলম, ৫ নম্বর ওয়ার্ড থেকে (চকরিয়া) মোঃ আবু তৈয়ুব, ৬ নম্বর ওয়ার্ড থেকে (পেকুয়া) মোহাম্মদ শওকত হোসেন, ৭ নম্বর ওয়ার্ড থেকে (মহেশখালী) শহীদুল ইসলাম মুন্না, ৮ নম্বর ওয়ার্ড থেকে (কুতুবদিয়া) নুরুল ইসলাম বেসরকারী ভাবে জয়ী হয়েছেন। এর আগে ৯ নম্বর ওয়ার্ড থেকে (ঈদগাঁও) বিনা প্রতিদ্বন্ধীতায় নির্বাচিত হয়েছেন আরিফুল ইসলাম।

সংরক্ষিত নারী সদস্য পদে ১ নম্বর ওয়ার্ড থেকে (টেকনাফ, উখিয়া, রামু) আশরাফ জাহান কাজল, ২ নম্বর ওয়ার্ড থেকে (কক্সবাজার, ঈদগাঁও, মহেশখালী) হুমায়রা বেগম, ৩ নম্বর ওয়ার্ড থেকে (চকরিয়া, পেকুয়া ও কুতুবদিয়া) তানিয়া আফরিন বেসরকাররি ফলাফলে এগিয়ে রয়েছেন।

প্রসঙ্গত: জেলা পরিষদের নির্বাচনকে সামনে রেখে ১৪ অক্টোবর কক্সবাজার আসেন বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য জাহাঙ্গীর কবির নানক। তিনি ছাত্রলীগের এক সমাবেশে যোগ দেয়ার পাশাপাশি রাতে চেয়ারম্যান, মেয়র, কাউন্সিলর, ইউপি সদস্য, রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ সহ সংশ্লিষ্টদের সাথে রুদ্ধদার বৈঠক করেন। রাত প্রায় ২ টা পর্যন্ত চলমান বৈঠকে আওয়ামীলীগের প্রার্থী মোস্তাক আহমদ চৌধুরীকে বিজয় করতে নানা নির্দেশনা দেন।

ওই বৈঠকে নানক বলেছেন, দলীয় প্রার্থীকে ভোট না দিলে খবর আছে। এটি আমার কথা নয়, এটি জননেত্রী ও প্রধানমন্ত্রীর কথা। এই জেলা পরিষদ নির্বাচন সংসদ সদস্য পদের মনোনয়ন সহ স্থানীয় নির্বাচনের মনোনয়ন নির্ভর করে। কোন আসনে আওয়ামীলীগের প্রার্থী ভোট কম পেলে ওই সংসদ সদস্য নিয়ে চিন্তা করা হবে এবং কেউ তাদের পক্ষে গেলে তাদের বিরুদ্ধেও সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেয়া হবে হুমকী দিয়েছিলেন।

খবরটি শেয়ার করুন..

এ জাতীয় আরো খবর..
কপিরাইট © ২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | দৈনিক দেশ বার্তা
Theme Customized By TeqmoBD