1. [email protected] : admin :
  2. [email protected] : News Editor : News Editor
কক্সবাজার দক্ষিণ বন বিভাগের সাড়াশি অভিযান: চোরাই কাঠ ও ডাম্পার জব্দ। - DeshBarta
বুধবার, ৩০ নভেম্বর ২০২২, ০৮:০২ অপরাহ্ন
শিরোনামঃ
চন্দনাইশে ডিজিটাল মেলা উদ্বোধন করলেন নজরুল ইসলাম চৌধুরী এমপি “সিজল”র শান্তিরহাট শাখার শুভ উদ্ভোধন “মুক্ত পাঠাগার” এর চট্টগ্রাম জেলা শাখার উদ্যোগে ১ম লেখক আড্ডা বাকলিয়ায় ২২ নং বিট পুলিশ ওপেন হাউজ ডে অনুষ্ঠিত রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় বীর মুক্তিযোদ্ধা খায়রুল বশর’র দাফন সম্পন্ন পটিয়ায় কৃষি উৎপাদন বাড়াতে এবার কৃষকদের পাশে দাঁড়ালেন ড.জুলকারনাইন চৌধুরী জীবন অসীক দত্তকে চট্টগ্রাম জেলা আইনজীবী সমিতির চত্বরে বিশাল সংবর্ধনা। পটুয়াখালীর ওজোপাডিকোর দুর্নীতি বহুতলা ভবনে ১১ কেভি বিদ্যুতের অবৈধ সংযোগ। একাধিক ডাকাতি মামলার আসামী চোলাই মদসহ গ্রেফতার ফুটবল খেলার উন্মাদনায় ব্যস্ত যখন সবাই,সে সুযোগ কে কাজে লাগিয়ে গরু লুট

কক্সবাজার দক্ষিণ বন বিভাগের সাড়াশি অভিযান: চোরাই কাঠ ও ডাম্পার জব্দ।

  • সময় মঙ্গলবার, ১৪ ডিসেম্বর, ২০২১
  • ৭৫ পঠিত

ইঞ্জিনিয়ার হাফিজুর রহমান খান, স্টাফ রিপোর্টারঃ কক্সবাজার সদর উপজেলার ঝিলংজা ইউনিয়ন এর দক্ষিণ হাজী পাড়ায় অভিযান চালিয়ে ১৩ই ডিসেম্বর ভোর তিনটায় সরকারী চোরাই গাছ,গাছ বহনকারী একটি ডাম্পার ও দুজন গাছ চোরকে ধৃত করেছে বন বিভাগ।তবে মূল হোতা জাকারিয়া অধরাই রয়ে গেলো।

কক্সবাজার দক্ষিণ বন বিভাগীয় কর্মকর্তা জনাব সরওয়ার আলম এর নির্দেশনায়,বিশেষ টহল বাহিনীর ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জনাব সমীর রঞ্জন সাহার নেতৃত্বে, ঝিলংজা বিট কর্মকর্তা জনাব আসলাম হোসেন এর সার্বিক তত্ত্বাবধানে সঙ্গীয় সিপিজি সদস্য সহ যৌথ টহল এর মাধ্যমে এ অভিযান পরিচালনা করা হয়।

অভিযানে সরকারী বনায়নে রোপনকৃত ৬০ ফুট আকাশমনি গাছ, চোরাইকাজে ব্যবহৃত একটি ডাম্পার ও দুজন গাছ চোরকে ধৃত করা হয়।

ধৃত দুজন হলেন মোঃ ইউসূফ (২৫) পিতা আবুল কালাম, মোঃ ইকবাল(২০) পিতা বাদশা মিয়া উভয় স্বাং দক্ষিণ হাজী পাড়া ০২ নং ওয়ার্ড, ঝিলংজা,কক্সবাজার সদর। আটক কৃতদের বিরুদ্ধে আইনি প্রক্রিয়া শেষ করে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে এবং আটককৃত ডাম্পারটি বিভাগীয় বন কর্মকর্তার হেফাজতে রাখা হয়েছে।

তবে চোর সিন্ডিকেটের মুল নায়ক দক্ষিণ হাজী পাড়ার মৃত আব্দুল জলিল এর পুত্র মোহাম্মদ জাকারিয়া পলাতক রয়েছে। পলাতক জাকারিয়াকে ধরতে অভিযান অব্যহত রয়েছে বলে জানান বন বিভাগের কর্মকর্তাগণ।

অনুসন্ধানে জানা যায় মোহাম্মদ জাকারিয়া দীর্ঘদিন ধরে বন বিভাগের অধীনস্হ সামাজিক বনায়নের বন থেকে গাছ চুরি করে আসছিলো। এই জাকারিয়াকে ঝিলংজার প্রতিটি বাগান হতে গাছ চুরিতে কেউ বাধা দিলে তাকে বিভিন্ন হুমকি ধমকি দিয়ে সরিয়ে দিতো। তার অধীনে রয়েছে বিশাল একটি চোর সিন্ডিকেট।বিভিন্ন টোকাই ও পাতিমাস্তান দিয়ে বন বিভাগের বাগান থেকে গাছ চুরি করে কোটি টাকার মালিক হয়ে গেছে এই জাকারিয়া।সরকার দলীয় কিছু লোক তার প্রধান মদদ দাতা। ইতিপূর্বে বন বিভাগের কিছু কর্মকর্তাকে হুমকি ধমকি দেওয়ার ও অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে। তার হুমকিতে অনেক কর্মকর্তা সাহস করতো না অভিযান চালাতে। গতকালের অভিযানে সামাজিক বনায়নের বিভিন্ন উপকার ভোগীরা ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন।

এ ব্যাপারে বিভাগীয় বন কর্মকর্তা (কক্সবাজার দক্ষিন) জনাব সরওয়ার আলমের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, দীর্ঘদিন ধরে সামাজিক বনায়নের সৃজিত বাগান হতে গাছ চুরি হচ্ছিলো, সিপিজি সদস্যদের হুমকি ধমকির অভিযোগ ও পেয়েছি দক্ষিণ হাজী পাড়ার মোহাম্মদ জাকারিয়ার বিরুদ্ধে, গতাকল গোপন সংবাদের মাধ্যমে খবর পেয়ে যৌথ টহল পরিচালনা করে দুজনকে আটক করি। মূল হোতা জাকারিয়া পালিয়ে গেলেও তাকে ধরতে পুলিশ ও গোয়েন্দাদের সহযোগিত ছেয়েছি,আমরা ও অভিযান অব্যহত রেখেছি। আটককৃত দুজন চোরকে আইনি প্রক্রিয়া শেষ করে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।এ ধরনের অভিযান অব্যহত থাকবে এবং অভিযানে সামাজিক বনায়নের উপকার ভোগীদের সার্বিক সহযোগিত কামনা করেছেন তিনি।

খবরটি শেয়ার করুন..

এ জাতীয় আরো খবর..
কপিরাইট © ২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | দৈনিক দেশ বার্তা
Theme Customized By TeqmoBD