1. [email protected] : admin :
  2. [email protected] : News Editor : News Editor
চকরিয়ায় পিকআপ চাপায় নিহত ৬ সহোদরের পরিবারকে আর্থিক অনুদান প্রদান অনুষ্ঠানে ধর্মপ্রতিমন্ত্রী মোঃ ফরিদুল হক খান - DeshBarta
সোমবার, ২৮ নভেম্বর ২০২২, ১২:৪৯ পূর্বাহ্ন
শিরোনামঃ
পটিয়া ৯৪ এর ফ্যামিলি মিলন মেলা ও মেজবান উপলক্ষে প্রস্তুতি সভা অনুষ্ঠিত খালিয়াজুরীতে ৯ই ডিসেম্বর বার্ষিক ঈসালে সাওয়াব মাহফিল শিশু আয়াত হত‍্যাকারীর দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান – বঞ্চিত নারী ও শিশু অধিকার ফাউন্ডেশন দুমকি উপজেলা ছাত্রদলের বিক্ষোভ মিছিল। গামছা পলাশ ও দিপা’র নতুন গান ‘চক্ষু দুটি কাজলকালো’ চট্টগ্রাম সিটি একাডেমি স্কুলের ক্লাস পার্টি ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান সম্পন্ন  ‘বঙ্গবন্ধু ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনা তৃণমূলে প্রতিষ্ঠায় নির্মূল কমিটির অবদান অনস্বীকার্য’ বাঁশখালী সম্মেলনে ড.সেকান্দর চৌধুরী দাকোপ রিপোর্টার্স ক্লাবের উপ নির্বাচনে কোষাধ্যক্ষ পদে অরুপ সরকার নির্বাচিত। মানবিক দৃষ্টিভঙ্গি ফাউন্ডেশনের উদ্যেগে মসজিদে বয়স্কদের কোরআন শিক্ষা কোর্সের উদ্ভোধন মরহুম নুরুল ইসলাম ডিসি ফুটবল একাদশ ৩-১ গোলে জয়ী

চকরিয়ায় পিকআপ চাপায় নিহত ৬ সহোদরের পরিবারকে আর্থিক অনুদান প্রদান অনুষ্ঠানে ধর্মপ্রতিমন্ত্রী মোঃ ফরিদুল হক খান

  • সময় বুধবার, ২ মার্চ, ২০২২
  • ৬৫ পঠিত

জেপুলিয়ান দত্ত জেপু,চকরিয়াঃ

কক্সবাজারের চকরিয়ায় গত ৮ফেরুয়ারী ডুলাহাজারা ইউনিয়নে সড়ক র্দূঘটনায় নিহত একই পরিবারের নিহত ৬ সহোদর ও আহত পরিবারের মাঝে আর্থিক অনুদান প্রদান অনুষ্ঠান সফলভাবে সম্পন্ন হয়েছে।
মঙ্গলবার (১ মার্চ) সকাল ১১টা থেকে দুপুর দেড়টা পর্যন্ত ডুলাহাজারা ১নং ওয়ার্ডের সোয়াজানিয়া-হাসিনাপাড়াস্হ নিহতদের বাড়ীর সামনে রেলওয়ে সড়কে অনুষ্ঠানটি অনুষ্ঠিত হয়।
ওই আর্থিক অনুদান প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের ধর্ম মন্ত্রণালয়ের,ধর্ম বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী মোঃ ফরিদুল হক খান এমপি।
ধর্মপ্রতিমন্ত্রী অনুষ্ঠানে যোগদানের পূর্বে নিহত ৬ সহোদর পরিবারের বাড়ীতে যান।ওখানে তিনি ৪৫ মিনিট ধরে,নিহতদের বৃদ্ধা মা মৃণালিনী সহ নিহতদের স্ত্রীদের সঙ্গে কথা বলেন।এসময় নিহতদের আত্মার সদগতি কামনা করেন।পরে সকলের জন্য ধর্ম মন্ত্রণালয় পক্ষে হিন্দু,বৌদ্ধ,খ্রিষ্টান কল্যাণ ট্রাষ্টের বরাদ্দ থেকে নগদ চার লক্ষ টাকা অনুদান প্রদান করেছেন।এছাড়াও মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর পক্ষ থেকে বড় ধরণের আরেকটি আর্থিক অনুদান শীঘ্রই দেওয়া হবে বলে আশ্বাস দিয়েছেন।পরে স্বামী ও সড়ক র্দূঘটনায় নিহত ৬ ভাই সহ মৃত্যূের সাথে পাঞ্জায় লড়া মেয়ে এবং কয়েক বছর পূর্বে মারা যাওয়া তাদের আরেক ছেলেসহ জীবিত কনিষ্ঠ ছেলে মিলে পরিবারের বিধবা নিহতদের সন্তানদের ভবিষৎতের দায়ভার বর্তমান সরকার নিবেন বলে প্রতিশ্রুতি দেন। নিঃস্ব,অনাথ পরিবার-পরিজনের পাশে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আছেন,থাকবেন। যে কারণে আজকে প্রধানমন্ত্রীর কঠোর নিদের্শে আমি এসেছি বলে শোকাহত বৃদ্ধা “মা”মৃণালিনীকে শান্ত্বনা দেওয়ার চেষ্টা করেন।পরে মঞ্চে আসেন ধর্মপ্রতিমন্ত্রী।
মঞ্চে এসে উক্ত অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি উপস্হিত জনতার উদ্দেশ্য বলেন,আমার জীবনে বেদনা-দায়ক দুইটি ট্রাজেডি সারাজীবন হৃদয়কে নাড়া দেয়,দিব। একটি হল ১৯৭৫ সালের ১৫ আগষ্ট স্বাধীনতার মহান নায়ক,স্বাধীনতার স্বপ্নদ্রষ্টা,হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙ্গালী,জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপরিবারকে স্বার্থান্বেষী মহল নির্মমভাবে হত্যা করেছে।যদিও আমাদের আপনাদের মাটিও মানুষের প্রিয় নেত্রী,মানবতার মা জননেত্রী শেখ হাসিনা ও শেখ রেহেনা দেশের বাহির থাকায় প্রাণে বেঁচে ছিলেন।না হয় তলাবিহীন ঝুঁড়ির এই বাংলাদেশ।আজ বিশ্বের দরবারে মাথা উচুঁ করে দাড়াঁনো শতভাগ অনিশ্চিত ছিল।ঠিক তেমনিভাবে জীবনের শেষ বয়সে এসে ঘাতক গাড়ী চাপায় পুরো পরিবারের উপার্জককে চিরতরে শেষ করে দিয়েছেন।এখন তাদের ঘরে বৃদ্ধা নিহতদের মা,বিধবা ৭জন স্ত্রী ও ৯জন কঁচি সন্তান ছাড়া আর কেউ রইল না।এই ট্রাজেডির ভূক্তভোগি শুধু আমি নয়,শয়ন প্রধানমন্ত্রীও।তিনি বুঝেন!পরিবার-পরিজনের সকলকে হারিয়ে,একাকীত্ব বসবাস কত যে বেদনাদায়ক।তাই প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে আজ আমি এখানে এসেছি।তাই আপনারদের কাছে আমার একান্ত অনুরোধ।আপনারা অসহায় অনাথ,নিঃস্ব সুরেশ চন্দ্র সুশীলের পরিবারকে,নিজেদের পরিবারের মত খেয়াল রাখবেন।এছাড়াও জেলা ও প্রশাশনকে নির্দেশ দেন,সরকারীভাবে আসা সকল অনুদান বরাদ্দ থেকে যেন পরিবারটি বাদ না পড়ে খেয়াল রাখতে।
উক্ত অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে চকরিয়া-পেকুয়া আসনের এমপি আলহাজ্ব জাফর আলম বলেন,র্দূঘটনার পর থেকে আমি নিহত পরিবারটির দেখভাল করে আসছি।আমি আজকের এই মঞ্চে ওয়াদা দিচ্ছি,র্দূঘটনায় বেঁচে যাওয়া নিহত পরিবারের কনিষ্ঠ ছেলে প্লাবনের চাকরির ব্যবস্হা আমি করব।আমি যতদিন বেঁচে আছি,ততদিন নিহত পরিবারটি ভরণপোষণের দেখভাল আমি ব্যক্তিগত পক্ষে যথাস্বাধ্য করে যাব।নিহত পরিবারের জন্য ৮টি ঘর বসতঘর,মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর উপহার হিসেবে খতিয়ানি জায়গায় করা হবে।আগত ধর্মপ্রতিমন্ত্রী মাধ্যমে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে নিহত পরিবারের ভবিষৎ চিন্তার বিষয়টি জানান দেওয়ার অনুরোধ করেন।
উক্ত অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন,খুলনা-৫ আসনের পাঁচবারের নির্বাচিতরা এমপি নারায়ন চন্দ্র চন্দ,দিনাজপুর-১আসনের এমপি মনোরঞ্জন শীল গোপাল,বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক এড.সিরাজুল মোস্তফা,জেলা প্রশাসক মোঃ মামুনুর রশীদের পক্ষে এডিসি শিক্ষা,সাবেক সচিব ও ট্রাষ্টি,হিন্দু ধর্মীয় কল্যাণ ট্রাস্টের প্রতিনিধি অশোক মাধব রায়,হিন্দু ধর্মীয় কল্যাণ ট্রাস্টের ভাইস চেয়ারম্যান সুব্রত পাল(সিআইপি) ও জেলা অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোঃ রফিকুল ইসলাম ও উদ্বোধনী বক্তব্য রাখেন,অত্র ইউনিয়নের চেয়ারম্যান হাসানুল ইসলাম আদর।
অনুষ্ঠানটি চকরিয়া নির্বাহী অফিসার জেপি দেওয়ানের সভাপতিত্বে,সহকারী কমিশনার(ভূমি) রাহাত উত জামানের সঞ্চালনায়,পবিত্র কুরআন তেলাওয়াত ও গীতাপাঠের মাধ্যমে শুরু হয়েছে।
অনুষ্ঠানে উপস্হিত ছিলেন,বিভিন্ন ইউনিয়নের চেয়ারম্যান,প্যানেল চেয়ারম্যান শওকত আলী,আ’লীগের সভাপতি ডাঃ আজিজুল মন্নান,৩নং ওয়ার্ড আ’লীগের সভাপতি আবুল কাশেম,১নং ওয়ার্ড আ’লীগনেতা ফোরকান,ইউনিয়ন যুবলীগের আহবায়ক তৌহিদসহ দলীয় নেতাকর্মীরা#

খবরটি শেয়ার করুন..

এ জাতীয় আরো খবর..
কপিরাইট © ২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | দৈনিক দেশ বার্তা
Theme Customized By TeqmoBD