1. [email protected] : admin :
  2. [email protected] : News Editor : News Editor
চন্দনাইশে সাতবাড়িয়া নাজিরহাট উচ্চ বিদ্যালয়ে হিজাব নিষিদ্ধের অভিযোগ। - DeshBarta
বৃহস্পতিবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২২, ০৬:৩৯ অপরাহ্ন
শিরোনামঃ
নূরানী পাড়া সমাজ কল্যাণ পরিষদের দ্বিবার্ষিক কার্যকরী পরিষদ গঠিত পটিয়ায় পাউবো’র ১১শ ৫৮ কোটি টাকার প্রকল্প উদ্ভোধন করলেন পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী চকবাজারে দিনে দুপুরে তালা কেটে সাংবাদিকের বাসায় দুধর্ষ চুরি। প্রধানমন্ত্রীর চট্টগ্রামের জনসভাকে জনসমুদ্রে পরিণত করা হবে – মুহাম্মদ বদিউল আলম ইতিহাসবেত্তা সোহেল ফখরুদ-দীনের বাসভূমি পুরস্কার লাভ এস. আলম গ্রুপ দেশের উন্নয়নে, মানুষের কল্যানে নিয়োজিত। লোহাগাড়া প্রবাসী সমিতি,সৌদি আরব’র ৪র্থ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন চন্দনাইশে ডিজিটাল মেলা উদ্বোধন করলেন নজরুল ইসলাম চৌধুরী এমপি “সিজল”র শান্তিরহাট শাখার শুভ উদ্ভোধন “মুক্ত পাঠাগার” এর চট্টগ্রাম জেলা শাখার উদ্যোগে ১ম লেখক আড্ডা

চন্দনাইশে সাতবাড়িয়া নাজিরহাট উচ্চ বিদ্যালয়ে হিজাব নিষিদ্ধের অভিযোগ।

  • সময় মঙ্গলবার, ১ মার্চ, ২০২২
  • ৭২ পঠিত

ইসমাইল ইমন চট্টগ্রাম মহানগর প্রতিনিধি

চট্টগ্রামের চন্দনাইশ উপজেলার সাতবাড়িয়া নাজিরহাট বহুমুখি উচ্চ বিদ্যালয়ে দশম শ্রেণির কয়েকজন ছাত্রী বোরকা ও নেকাব পড়ে ক্লাশে আশায় অশ্লীল মন্তব্য করেছেন বলে অভিযোগ উঠেছে ঐ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে।

গত ২৭ ফেব্রুয়ারি রবিবার দশম শ্রেণির ইংরেজি প্রথম পত্র ক্লাসে এ ঘটনা ঘটলে ২৮ ফেব্রুয়ারি বিষয়টি গড়ায় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার অফিসে। এদিন বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির ছাত্রী জান্নাতুল মাওয়া, রিপা আকতার, কলি আকতার,জান্নাতুল নাঈম ও এ্যাভি আকতার বাদী হয়ে অভিযোগ দায়ের করেন।বিষয়টি মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা রতন কুমার সাহাকে তদন্তের জন্য দেয়া হয়।

অভিযোগ সূত্রে জানাযায়, ঐ দিন বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রতন কুমার বড়ুয়া ইংরেজি প্রথম পত্র ক্লাসে কয়েকজন ছাত্রীকে বোরকা ও নেকাব পড়া অবস্থায় দেখলে কেন পড়েছে বলে চিৎকার করে অশ্লীল গালি-গালাজ ও বাজে মন্তব্য করে।ভবিষ্যতে পড়ে আসলে স্কুল থেকে ঘাড় ধাক্কা দিয়ে বেড় করে দিবে বলে হুমকি প্রদান করে। এসময় ভুক্তভোগী ছাত্রীদের কান্নায় ক্লাসে উপস্থিত সবাই কান্নায় ভেঙে পড়ে।অভিযোগে ইতিপূর্বে অনেক ছাত্রীদের এ ধরনের হেনস্তা করার কথাও উল্লেখ আছে।
এব্যাপারে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রতন কুমার বড়ুয়া’র সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান “আমি ক্লাসে গিয়ে দেখি ১৫/২০ জন ছাত্রী বিভিন্ন রঙের বোরকা পড়ে আসে,তাদের বলি ক্লাসে বোরকা যেন স্কুল ড্রেসের সাথে মিলিয়ে পড়ে”। এ ব্যাপারে উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা রতন
কুমার সাহা জানান ” বিষয়টি সঠিকভাবে তদন্ত করে রিপোর্ট প্রদান করবো দ্রুত সময়ে।

খবরটি শেয়ার করুন..

এ জাতীয় আরো খবর..
কপিরাইট © ২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | দৈনিক দেশ বার্তা
Theme Customized By TeqmoBD