1. [email protected] : admin :
  2. [email protected] : News Editor : News Editor
পটিয়ায় প্রবাসী  রেমিট্যান্স যোদ্ধা কে বাড়ি থেকে উচ্ছেদের চেষ্টা, উত্তেজনা - DeshBarta
শুক্রবার, ০৯ ডিসেম্বর ২০২২, ১২:১৭ অপরাহ্ন
শিরোনামঃ
দক্ষিণ জেলা জাপা উদ্যােগে সংবিধান সংরক্ষণ দিবস পালন ফাঁকা মাঠে গোল দিতে দেব না, খেলতে যখন নেমেছেন দুই দলই খেলবে-নৌ মন্ত্রী কৃষ্ণা বিশ্বাস ও জ‍্যোতি রাণী পালকে বেআইনিভাবে চাকরিচ্যুত করায় উদ্বেগ জানান AWRCF এর মহাসচিব মুহাম্মদ আলী ইতিহাস৭১ ম্যাগাজিনের মোড়ক উম্মোচন করলেন সিটি মেয়র এম রেজাউল করিম চৌধুরী ইতিহাস৭১ ম্যাগাজিনের মোড়ক উম্মোচন করলেন সিটি মেয়র এম রেজাউল করিম চৌধুরী দিরাইয়ে আলহাজ্ব মাসুক মিয়া কল্যাণ ট্রাস্টের উদ্যোগে শীতবস্ত্র বিতরণ বিভিন্ন দেশের কূটনৈতিকদের আচরণে উদ্বিগ্ন মানবাধিকার কর্মীগণ ভৈরবে লিও ডে অনুষ্টিত চন্দনাইশে জহিরুল ইসলাম বাচার পরিবারের পাশে দাঁড়ালেন উপজেলা চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আবদুল জব্বার চৌধুরী আল্লামা আমিনুর রহমানের জানাজা সম্পন্ন

পটিয়ায় প্রবাসী  রেমিট্যান্স যোদ্ধা কে বাড়ি থেকে উচ্ছেদের চেষ্টা, উত্তেজনা

  • সময় শুক্রবার, ১৯ আগস্ট, ২০২২
  • ৬৮ পঠিত

পটিয়া (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধিঃ-পটিয়া উপজেলার কেলিশহর ইউনিয়নের পূর্ব রতনপুর এলাকার রেমিট্যান্স যোদ্ধা মো. আনোয়ার হোসেনকে বাড়ি থেকে উচ্ছেদ করার পায়তারা করছে তার ভাইয়েরা। রেমিট্যান্স যোদ্ধার আপন ৪ ভাই নানাভাবে ষড়যন্ত্র করার চেষ্টা করা হচ্ছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। পিতার মৃত্যুর পর ২০০২ সালে ওই প্রবাসী রতনপুর মৌজায় ১৮ শতক জায়গা খরিদ করেন। এর মধ্যে জেঠাত ভাই আবদুল খালেক থেকে ১০ শতক ও বড় জেঠাত আবদুল ছত্তার নামের আরেক ওয়ারিশ থেকে ৮ শতক জায়গা খরিদ করে। খরিদকৃত ওই জায়গায় প্রবাসীর অর্থে একটি পাকা ঘর নির্মাণ করেন। কিন্তু পরিবারের সকল সদস্যদের নিয়ে তিনি দুবাই শহরে থাকার কারণে প্রবাসীর মেঝ ভাই মো. হাসেমকে দেখাশুনা দায়িত্ব দেন। রেমিট্যান্স যোদ্ধা সম্প্রতি দেশে ফিরলে তার আপন ভাই জাবের হোসেন প্রবাসীর নির্মিত বাড়িটি দখল করতে পায়তারা শুরু করেন। প্রবাসীর বাড়ি দখলকে কেন্দ্র করে বর্তমানে উত্তেজনা বিরাজ করছে। ফলে যে কোন মুহুর্তে

উভয়ের মধ্যে সংঘর্ষের আশংকা রয়েছে। গত ১৫ আগস্ট প্রবাসীর বড় ভাই মো.নাছেরের পুত্র মো. রনি, মো. রবি, জাবের ও শওকতের বিরুদ্ধে পটিয়া থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।
জানা গেছে, উপজেলার কেলিশহর ইউনিয়নের পূর্ব রতন এলাকার মরহুম আবদুল মোনাফের দুই সংসারে ৮ পুত্র ও ৪ কন্যা সন্তান রয়েছে। তাদের মধ্যে ১৯৯১ সাল থেকে আনোয়ার হোসেন দুবাই শহরে থেকে জীবনযাপন করছেন। ১৯৯৯ সালের ৭
অক্টোবর পিতা আবদুল মোনাফ ইন্তেকাল করার পর পরিবারের হাল ধরেন প্রবাসী আনোয়ার হোসেন। ভাইদের মানুষ করতে তিনি বিভিন্নভাবে কাজ করেন। কিন্তু বর্তমানে ভাই জাবের হোসেন, এনাম, নাছের ও শওকত রেমিট্যান্স যোদ্ধাকে
উচ্ছেদ করতে ষড়যন্ত্র শুরু করেন। সম্প্রতি প্রবাসীর পরিবারকে উচ্ছেদ করতে১৪৫ ধারায় ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে ভাই জাবের হোসেন বাদী হয়ে একটি মামলা করেন। আইনশৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রন রাখতে পটিয়া থানার ওসি ও দখল প্রতিবেদন দেওয়ার জন্য সহকারী কমিশনারকে (ভুমি) নির্র্দেশ দেন। প্রবাসীর অভিযোগ,পটিয়া ভুমি অফিসের সার্ভেয়ারকে ম্যানেজ প্রতিবেদন তাদের পক্ষে নেওয়ার জন্য চেষ্টা করছে। রেমিট্যান্স যোদ্ধা মো. আনোয়ার হোসেন জানিয়েছেন, তিনি দীর্ঘ ৩১ বছর ধরে দুবাই শহরে বসবাস করে আসচ্ছেন। পরবর্তীতে তিনি স্ত্রী, পুত্রকে দুবাই শহরে নিয়ে যান। ছেলে মো. ফরহাদ হোসেন দুবাই শহরের একটি ইউনিভার্সিতে আইটি ইঞ্জিনিয়ারিং এ লেখাপড়া করতেছে। কিন্তু ভাই মো. জাবের হোসেন ১২ জুলাই মিথ্যা একটি ঘটনা সাজিয়ে ১৪৫ ধারায় আদালতে মামলা দায়ের করেন। ওই মামলায় আমার ছেলেকেও জড়ানো হয়। ঘটনার যে তারিখ ও সময় দেখানো হয়েছে ওই সময়ে আমার ছেলে দুবাই শহরে ছিল। আমি আগে থেকে আমার নির্মিত ঘরে ছিলাম এবং গত ১৪ জুলাই আমার ছেলে দেশে ফিরলে সেও ঘরে আসেন। কিন্তু হয়লানিমূলক একটি ঘটনা সাজিয়ে আমি ও আমার পরিবারের উচ্ছেদের চেষ্টা করছে। এমনকি আমাকে প্রাণ
নাশের হুমকিও দেওয়া হয়। আমি প্রশাসনের সহযোগিতা কামনা করছি।

খবরটি শেয়ার করুন..

এ জাতীয় আরো খবর..
কপিরাইট © ২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | দৈনিক দেশ বার্তা
Theme Customized By TeqmoBD