1. [email protected] : admin :
  2. [email protected] : News Editor : News Editor
ফেসবুকের বিরুদ্ধে রোহিঙ্গা শরণার্থীরা ১৩ লাখ কোটি টাকার মামলা - DeshBarta
বুধবার, ০৭ ডিসেম্বর ২০২২, ০৫:৪৪ পূর্বাহ্ন
শিরোনামঃ
প্রিন্সিপাল আমিনুর রহমানের ইন্তেকাল বাচার পরিবারের পাশে আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দ, ৫ লাখ টাকার অনুদান দিলেন ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন কৃষকের ঘরে ঘরে এখন ধান কেটে ঘরে তোলার আনন্দ বোয়ালখালীতে প্রবাসীর স্ত্রীর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার হিফজুল কোরআন প্রতিযোগিতায় প্রথম স্থানে অধিকারী হলেন মোঃ তুহিন ইসলাম এস আলম গ্রুপের বিরুদ্ধে পরিকল্পিত চক্রান্ত খতিয়ে দেখতে সরকার ও দুদকের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি মাওলানা ফখরুল ইসলাম ছাহেবের মৃত্যুতে হাফিজ মাছুম আহমদ দুধরচকীর শোক প্রকাশ রাশিয়ার নিষিদ্ধ সংগঠনের তালিকায় যুক্ত হলো মেটা অনন্যাকে নিয়ে মুখ খুললেন বাবা চাঙ্কি পান্ডে বিশ্বের সবচেয়ে সরু বহুতল৷ যার উচ্চতা ১৪২৮ ফুট

ফেসবুকের বিরুদ্ধে রোহিঙ্গা শরণার্থীরা ১৩ লাখ কোটি টাকার মামলা

  • সময় মঙ্গলবার, ৭ ডিসেম্বর, ২০২১
  • ৯৩ পঠিত

ইঞ্জিনিয়ার হাফিজুর রহমান খান, স্টাফ রিপোর্টারঃ রোহিঙ্গা শরণার্থীরা সোমবার যুক্তরাষ্ট্রের আদালতে ফেসবুকের বিরুদ্ধে ১৫০ বিলিয়ন ডলার বা ১৩ লাখ কোটি টাকার মামলা করেছে৷ রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে ঘৃণা ছড়ানো বার্তা মুছে ফেলতে ফেসবুক উদ্যোগ নেয়নি বলে অভিযোগ আনা হয়েছে৷

এডেলসন পিসি ও ফিল্ডস পিএলএলসি নামের দুটি আইনি সংস্থা মামলাটি দায়ের করে৷ এতে অভিযোগ করা হয়, ফেসবুক ঘৃণা মেশানো বার্তা না সরানোয় রোহিঙ্গারা মিয়ানমারে সহিংসতার শিকার হয়েছেন৷

২০১৭ সালের আগস্টে সামরিক অভিযানের পর সাত লাখ ৩০ হাজারের বেশি রোহিঙ্গা মিয়ানমার থেকে পালিয়ে বাংলাদেশে চলে যায়৷ বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সংস্থা সাধারণ মানুষকে হত্যা ও গ্রাম পুড়িয়ে দেয়ার তথ্য নথিবদ্ধ করেছে৷

মিয়ানমার কর্তৃপক্ষের দাবি, তারা বিদ্রোহীদের মোকাবিলা করেছে৷ নৃশংসতা চালানোর অভিযোগও অস্বীকার করেছে তারা৷ ভুয়া তথ্য ও খবর দ্রুত খুঁজে পাবার উপায় জানিয়েছে যুক্তরাজ্যের ফ্যাক্ট-চেকিং ওয়েবসাইট ‘ফুল ফ্যাক্ট’৷ ফেসবুকে কিছু শেয়ারের আগে নিজেকে তিনটি প্রশ্ন করার পরামর্শ দিয়েছে তারা৷ ২০১৮ সালে জাতিসংঘের মানবাধিকার বিষয়ক তদন্তকারীরা বলেছিলেন, ‘হেট স্পিচ’ ছড়িয়ে সহিংসতা সৃষ্টিতে ফেসবুকের ব্যবহার মূল ভূমিকা পালন করেছে৷ একই বছর বার্তা সংস্থা রয়টার্সের তদন্তে রোহিঙ্গাসহ অন্য মুসলিমদের আক্রমণ করে ফেসবুকে পোস্ট করা এক হাজারের বেশি পোস্ট, মন্তব্য ও ছবির কথা উঠে এসেছিল৷ ক্যালিফোর্নিয়ার আদালতে করা মামলায় রয়টার্সের এই তদন্ত উল্লেখ করা হয়েছে৷

মামলার বিষয়ে ফেসবুক এখনো কোনো প্রতিক্রিয়া জানায়নি৷

তবে ফেসবুক বলেছে, সেকশন ২৩০ নামে যুক্তরাষ্ট্রের ইন্টারনেট আইন অনুযায়ী, ব্যবহারকারীদের পোস্ট করা কন্টেন্টের জন্য ফেসবুক দায়ী নয়৷ এই আইনের অস্তিত্ব থাকায় রোহিঙ্গা শরণার্থীদের করা মামলায় প্রয়োজনে মিয়ানমারের আইন প্রয়োগ করার কথা বলা হয়েছে৷ অন্য কোনো দেশে সংঘটিত অপরাধের বিচারে যুক্তরাষ্ট্রের আদালত বিদেশি আইন প্রয়োগ করতে পারে৷ তবে দুজন আইন বিশেষজ্ঞ রয়টার্সকে বলেছেন, সামাজিক মাধ্যমের বিরুদ্ধে করা কোনো মামলায় এখন পর্যন্ত বিদেশি আইন প্রয়োগ করা হয়েছে বলে তারা জানেন না৷

যুক্তরাজ্যের ফেসবুক কার্যালয়ে চিঠি:

আইনি প্রতিষ্ঠান ম্যাককিউ জুরি অ্যাণ্ড পার্টনার্সের পাঠানো ঐ চিঠিতে বলা হয়েছে, মিয়ানমারের শাসকগোষ্ঠী ও বেসামরিক সন্ত্রাসীদের চালানো গণহত্যা অভিযানের অংশ হিসেবে তাদের মক্কেল ও পরিবারের সদস্যরা ‘মারাত্মক সহিংসতা, হত্যা এবং/বা অন্যান্য মানবাধিকার লঙ্ঘনের শিকার’ হয়েছেন৷

যুক্তরাজ্যের রোহিঙ্গা ও বাংলাদেশের শরণার্থী শিবিরে বসবাসরত শরণার্থীদের প্রতিনিধি হয়ে নতুন বছরে যুক্তরাজ্যের হাইকোর্টে অভিযোগ দায়েরের আশা করছেন আইনজীবীরা৷ (রয়টার্স, গার্ডিয়ান)

ম্যাককিউ ছাড়াও আরেক আইনি প্রতিষ্ঠান মিশকন ডে রেয়াও যুক্তরাজ্যে মামলা করতে কাজ করছে৷ এই মামলায় এখন পর্যন্ত ২০ জন দাবিদার আছেন৷ কোম্পানি দুটি বাংলাদেশের শরণার্থী শিবিরে বাস করা রোহিঙ্গাদের মধ্য থেকে আরও দাবিদার নিয়োগের আশা করছে৷

খবরটি শেয়ার করুন..

এ জাতীয় আরো খবর..
কপিরাইট © ২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | দৈনিক দেশ বার্তা
Theme Customized By TeqmoBD