1. [email protected] : admin :
  2. [email protected] : News Editor : News Editor
বিদ্যুৎ বিভ্রাট নিয়ে ফেসবুকে সমালোচনা করায় প্রবাসীর স্ত্রী গ্রেফতার - DeshBarta
বুধবার, ৩০ নভেম্বর ২০২২, ১০:৩৩ পূর্বাহ্ন
শিরোনামঃ
বাকলিয়ায় ২২ নং বিট পুলিশ ওপেন হাউজ ডে অনুষ্ঠিত রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় বীর মুক্তিযোদ্ধা খায়রুল বশর’র দাফন সম্পন্ন পটিয়ায় কৃষি উৎপাদন বাড়াতে এবার কৃষকদের পাশে দাঁড়ালেন ড.জুলকারনাইন চৌধুরী জীবন অসীক দত্তকে চট্টগ্রাম জেলা আইনজীবী সমিতির চত্বরে বিশাল সংবর্ধনা। পটুয়াখালীর ওজোপাডিকোর দুর্নীতি বহুতলা ভবনে ১১ কেভি বিদ্যুতের অবৈধ সংযোগ। একাধিক ডাকাতি মামলার আসামী চোলাই মদসহ গ্রেফতার ফুটবল খেলার উন্মাদনায় ব্যস্ত যখন সবাই,সে সুযোগ কে কাজে লাগিয়ে গরু লুট পটিয়া ৯৪ এর ফ্যামিলি মিলন মেলা ও মেজবান উপলক্ষে প্রস্তুতি সভা অনুষ্ঠিত খালিয়াজুরীতে ৯ই ডিসেম্বর বার্ষিক ঈসালে সাওয়াব মাহফিল শিশু আয়াত হত‍্যাকারীর দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান – বঞ্চিত নারী ও শিশু অধিকার ফাউন্ডেশন

বিদ্যুৎ বিভ্রাট নিয়ে ফেসবুকে সমালোচনা করায় প্রবাসীর স্ত্রী গ্রেফতার

  • সময় বুধবার, ৫ অক্টোবর, ২০২২
  • ২১ পঠিত

নিজস্ব প্রতিনিধি

সারা দেশে ভয়াবহ বিদ্যুৎ বিভ্রাট নিয়ে ফেসবুকে লেখার কারণে রাজবাড়ী ব্লাড ডোনার্স ক্লাবের প্রতিষ্ঠাতা, সোনিয়া আক্তার স্মৃতি নামের একজন সমাজকর্মীকে মঙ্গলবার (৪ঠা অক্টোবর) গভীর রাতে অবুঝ দুই সন্তানের সামনে থেকে তুলে নিয়ে গেছে পুলিশ।

জানা গছে, সোনিয়া আক্তার স্মৃতি গত ১৩ বছরে ২৭ হাজারের অধিক মুমূর্ষু রোগীকে বিনামূল্যে রক্ত সংগ্রহ করে দিয়েছেন। বর্তমানে তিনি প্রতিদিন গড়ে প্রায় ১৫ ব্যাগ রক্ত সংগ্রহ করে বিভিন্ন মুমূর্ষু রোগীকে সরবরাহ করছেন। সামাজিক কাজে অবদানের জন্য তিনি পেয়েছেন ‘সাহিত্যের খেয়াঘাট পুরস্কার’, ‘প্রিয়বাসিনী বাংলাদেশ অ্যাওয়ার্ড’সহ অনেক সম্মাননা।

সেই সমাজকর্মীকে ধরতে মঙ্গলবার গভীর রাতে তার বাসায় অভিযান চালায় রাজবাড়ী থানা পুলিশ। বিদ্যুৎ বিভ্রাট নিয়ে ফেসবুকে লেখার কারণে শামসুল আরেফিন চৌধুরী নামে স্থানীয় এক আওয়ামী নেতার অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে এমন অপকর্ম চালায় আওয়ামী পুলিশ।

সোনিয়া আক্তার স্মৃতির স্বামী প্রবাসে থাকেন। তার দুটি শিশু সন্তান রয়েছে, যারা মায়ের এই হঠাৎ গ্রেফতারের ঘটনায় হতবাক হয়ে পড়েছে।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া এক ভিডিওতে দেখা যায়, সোনিয়া আক্তার স্মৃতিকে গ্রেফতার করতে গেলে পুলিশের সঙ্গে তার কিছুক্ষণ কথোপকথন হয়।

এ সময় সোনিয়া আক্তার স্মৃতি পুলিশকে উদ্দেশ্যে করে বলেন, “আপনারা আমাকে ধরতে এসেছেন এই তো? রাতেরবেলা, আমার ছোট ছোট দুইটা বাচ্চা আছে। আমি রেডি হয়ে বের হচ্ছি।”

তিনি বলেন, “ফেসবুকে স্ট্যাটাস দেয়াকে কেন্দ্রে করে তারা আমাকে ধরতে আসছে। তো, ধরতে আসবে ভাই দিনের বেলায় আসবেন। রাতে কেন? দিনের বেলায় কি আমি পালাইয়া যাইতাম?”

জবাবে পুলিশের এক সদস্য বলেন, “আইনগত এমন কোনো দিক নির্দেশনা নাই যে কারো বাড়ি দিনে যেতে হবে …”

জবাবে সোনিয়া আক্তার স্মৃতি বলেন, “আমি কি সন্ত্রাসী?”

পুলিশ বিরক্তি প্রকাশ করে বলেন, “এতো কিছু দরকার নাই।”

এ সময় সোনিয়া আক্তার স্মৃতি বলেন, “একটা মাত্র আমাকে নেয়ার জন্য আপনারা ৪-৫ শ (অস্পষ্ট) আসছেন, এই তো? আপনারা যেহেতু আসছেন, আমি স্বেচ্ছায় বের হচ্ছি। আমার বাচ্চা-কাচ্চারা প্রচণ্ড ভয় পাচ্ছে। আপনারা যা করছেন তা রীতিমতো শিশু নির্যাতন। আমি বের হচ্ছি। আমাকে একটু সময় দিতে হবে! আমি রেডি হচ্ছি। আমি আমার হাজবেন্ডের সঙ্গে কথা বলে বের হচ্ছি।”

এরপর সোনিয়া আক্তার স্মৃতি ফেসবুকে জনগণের উদ্দেশ্যে বলেন, “আপনারা দেখলেন আমাকে পুলিশ নিতে আসছে। আমি বের হয়ে যাচ্ছি। সবাই ভাল থাকবেন, সুস্থ থাকবেন। আমি ঠিক আছি।”

খবরটি শেয়ার করুন..

এ জাতীয় আরো খবর..
কপিরাইট © ২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | দৈনিক দেশ বার্তা
Theme Customized By TeqmoBD