1. [email protected] : admin :
  2. [email protected] : News Editor : News Editor
ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের সংস্কারের দাবিতে (এফবিজেও)'র মানববন্ধন - DeshBarta
রবিবার, ২৭ নভেম্বর ২০২২, ০৯:২৩ অপরাহ্ন
শিরোনামঃ
পটিয়া ৯৪ এর ফ্যামিলি মিলন মেলা ও মেজবান উপলক্ষে প্রস্তুতি সভা অনুষ্ঠিত খালিয়াজুরীতে ৯ই ডিসেম্বর বার্ষিক ঈসালে সাওয়াব মাহফিল শিশু আয়াত হত‍্যাকারীর দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান – বঞ্চিত নারী ও শিশু অধিকার ফাউন্ডেশন দুমকি উপজেলা ছাত্রদলের বিক্ষোভ মিছিল। গামছা পলাশ ও দিপা’র নতুন গান ‘চক্ষু দুটি কাজলকালো’ চট্টগ্রাম সিটি একাডেমি স্কুলের ক্লাস পার্টি ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান সম্পন্ন  ‘বঙ্গবন্ধু ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনা তৃণমূলে প্রতিষ্ঠায় নির্মূল কমিটির অবদান অনস্বীকার্য’ বাঁশখালী সম্মেলনে ড.সেকান্দর চৌধুরী দাকোপ রিপোর্টার্স ক্লাবের উপ নির্বাচনে কোষাধ্যক্ষ পদে অরুপ সরকার নির্বাচিত। মানবিক দৃষ্টিভঙ্গি ফাউন্ডেশনের উদ্যেগে মসজিদে বয়স্কদের কোরআন শিক্ষা কোর্সের উদ্ভোধন মরহুম নুরুল ইসলাম ডিসি ফুটবল একাদশ ৩-১ গোলে জয়ী

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের সংস্কারের দাবিতে (এফবিজেও)’র মানববন্ধন

  • সময় বুধবার, ১৭ নভেম্বর, ২০২১
  • ১৩২ পঠিত

স্টাফ রিপোর্টারঃ

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন সংশোধনের দাবিতে এফবিজেওর মানববন্ধন
ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন সংশোধন ও গণমাধ্যমে প্রকাশিত সংবাদসংক্রান্ত মামলার বিচারিক ক্ষমতা কেবল প্রেস কাউন্সিলকে দেওয়ার দাবি জানিয়েছে ফেডারেশন অব বাংলাদেশ জার্নালিস্ট অর্গানাইজেশন (এফবিজেও)। সংগঠনটির দাবি, দেশের বিভিন্ন খাতের উন্নয়নের মতো সাংবাদিকদের উন্নয়নেও পৃথক বাজেট দিতে হবে। আজ বুধবার সকালে রাজধানীর জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে আয়োজিত এক মানববন্ধনে এ দাবি জানানো হয়।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, যেকোনো গণমাধ্যমের ওয়েবসাইটে কোনো প্রতিবেদন বা সংবাদ প্রকাশের পর কেউ ক্ষুব্ধ হলে মামলা করার আগে সম্পাদক বরাবর প্রতিবাদপত্র দিতে হবে। সম্পাদক সেটি আমলে নিয়ে তা নিষ্পত্তির ব্যবস্থা করবেন। তাতেও সংক্ষুব্ধ ব্যক্তি সন্তুষ্ট না হলে তিনি আদালতে মামলা করতে পারবেন। মামলা হওয়ার পর সংশ্লিষ্ট প্রতিবেদক ও সম্পাদক বরাবর সমন জারি করবেন আদালত। প্রতিবেদক ও সম্পাদক আদালতে হাজির হলে তাঁদের জামিন দিতে হবে। অর্থাৎ এটিকে জামিনযোগ্য মামলা হিসেবে আইনে অন্তর্ভুক্ত করতে হবে।

 

সংগঠনটির সদস্যরা মানববন্ধন থেকে নয়টি দাবি তুলে ধরেন। দাবিগুলোর মধ্য আছে সংবিধান মোতাবেক ৪র্থ স্তম্ভ হিসেবে স্বীকৃত সংবাদমাধ্যমকর্মীদের রাষ্ট্রের ১ম, ২য় ও ৩য় স্তরের সঙ্গে (১ম জাতীয় সংসদ, ২য় প্রশাসন বিভাগ, ৩য় বিচার বিভাগ) তুলনামূলক মূল্যায়ন ও সুযোগ–সুবিধা দিতে হবে। সাংবাদিক ও সাংবাদিকদের সংগঠনগুলোকে তথ্য মন্ত্রণালয়ের অধীন প্রেস কাউন্সিলের মাধ্যমে নিবন্ধন করা, রাষ্ট্রীয়ভাবে ৩ মে বিশ্ব মুক্ত গণমাধ্যম দিবস পালন, সাংবাদিকদের অধিকার রক্ষায় প্রেস কাউন্সিলকে শক্তিশালী করার জন্য যুগোপযোগী আইন প্রণয়ন করতে হবে। এ ছাড়া স্নাতক ছাড়া সাংবাদিক কল্যাণ ট্রাস্টের সদস্য না করার আইনটি বাতিলেরও দাবি জানানো হয়েছে।

মানববন্ধনে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জাতীয় সাংবাদিক সংস্থা ও ফেডারেশনের স্থায়ী পরিষদের চেয়ারম্যান লায়ন মোঃ নুর ইসলাম আরও উপস্থিত ছিলেন এফবিজেও’র চেয়ারম্যান নাইমুল ইসলাম আহ্বায়ক এস এম মোরশেদ, সদস্যসচিব হানিফ আলী প্রমুখ।

খবরটি শেয়ার করুন..

এ জাতীয় আরো খবর..
কপিরাইট © ২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | দৈনিক দেশ বার্তা
Theme Customized By TeqmoBD