1. [email protected] : admin :
  2. [email protected] : News Editor : News Editor
মায়ের খুনি ছেলে মঈনুদ্দিন অস্ত্রসহ র‍্যাবের হাতে আটক - DeshBarta
বৃহস্পতিবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২২, ০৭:৫০ অপরাহ্ন
শিরোনামঃ
নূরানী পাড়া সমাজ কল্যাণ পরিষদের দ্বিবার্ষিক কার্যকরী পরিষদ গঠিত পটিয়ায় পাউবো’র ১১শ ৫৮ কোটি টাকার প্রকল্প উদ্ভোধন করলেন পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী চকবাজারে দিনে দুপুরে তালা কেটে সাংবাদিকের বাসায় দুধর্ষ চুরি। প্রধানমন্ত্রীর চট্টগ্রামের জনসভাকে জনসমুদ্রে পরিণত করা হবে – মুহাম্মদ বদিউল আলম ইতিহাসবেত্তা সোহেল ফখরুদ-দীনের বাসভূমি পুরস্কার লাভ এস. আলম গ্রুপ দেশের উন্নয়নে, মানুষের কল্যানে নিয়োজিত। লোহাগাড়া প্রবাসী সমিতি,সৌদি আরব’র ৪র্থ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন চন্দনাইশে ডিজিটাল মেলা উদ্বোধন করলেন নজরুল ইসলাম চৌধুরী এমপি “সিজল”র শান্তিরহাট শাখার শুভ উদ্ভোধন “মুক্ত পাঠাগার” এর চট্টগ্রাম জেলা শাখার উদ্যোগে ১ম লেখক আড্ডা

মায়ের খুনি ছেলে মঈনুদ্দিন অস্ত্রসহ র‍্যাবের হাতে আটক

  • সময় বৃহস্পতিবার, ১৮ আগস্ট, ২০২২
  • ৫২ পঠিত

ইসমাইল চৌধুরী

চট্টগ্রামের পটিয়ায় বহুল আলোচিত মায়ের খুনি পলাতক ছেলে মঈনুদ্দিনকে পিস্তলসহ আটক করেছে র‍্যাব-৭। গত বুধবার (১৭ আগস্ট) বিকেল সাড়ে ৫ টায় নগরীর কর্ণফুলী ব্রিজ এলাকা থেকে তাঁকে আটক করা হয়। বৃহস্পতিবার র‍্যাব-৭ চট্টগ্রামের চাঁদগাও কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান র‍্যাব-৭ এর সিনিয়র সহকারী পরিচালক নুরুল আবছার।

এর আগে মঙ্গলবার দুপুরে চট্টগ্রামের পটিয়ার সাবেক মেয়র শামসুল আলম মাস্টারের স্ত্রী ভূমি সংক্রান্ত বিরোধের জেরে নিজ সন্তানের গুলিতে নিহত হন।

র‍্যাব সূত্র জানায়, হত্যাকান্ডের ঘটনায় মামলার একমাত্র আসামি মাঈনুদ্দিন কেরানীরহাট থেকে ঢাকা যাওয়ার উদ্দেশ্যে একটি পরিবহনযোগে রওনা হন। এরূপ তথ্যের ভিত্তিতে গত ১৭ আগস্ট বিকেল সাড়ে ৫ টায় র‍্যাব-৭, চট্টগ্রামের একটি দূধর্ষ আভিযানিক দল পথিমধ্যে চাট্টগ্রাম জেলার নতুন ব্রীজ এলাকা হতে আসামি মাঈনুদ্দিন মোঃ মাঈনু (২৯)কে আটক করে। পরবর্তীতে তাঁর স্বীকারোক্তি অনুযায়ী সাতকানিয়া থেকে হত্যাকান্ডে ব্যাবহৃত অস্ত্রটি উদ্ধার করা হয়। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আসামী মাঈনুদ্দিন স্বীকার করেন, উদ্ধারকৃত অস্ত্রটি দিয়ে তিনি তাঁর মাকে গুলি করে নির্মমভাবে হত্যা করেছেন।

পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, গত মঙ্গলবার দুপুরে জাতীয় পার্টির সদ্যপ্রয়াত ভাইস চেয়ারম্যান ও পটিয়া পৌরসভার সাবেক মেয়র শামসুল আলম মাস্টারের স্ত্রী জেসমিন আকতারকে সম্পত্তি সংক্রান্ত বিরোধের জেরে তার ছেলে মাইনুল ইসলাম(২৯) পিস্তল দিয়ে গুলি করে গুরুতর আহত করে পালিয়ে যায়। ঘটনাস্থলেই ভিকটিম লুটিয়ে পড়লে তার মেয়ে প্রতিবেশীদের সহায়তায় গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে মৃত ঘোষণা করেন। পরবর্তীতে উক্ত হত্যাকান্ডের ঘটনায় নিহতের মেয়ে বাদী হয়ে চট্টগ্রাম জেলার পটিয়া থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। উক্ত ঘটনাটি গণমাধ্যম ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়।

ঘটনার প্রেক্ষিতে জানা যায়, নিহত ভিকটিম জেসমিন পটিয়া পৌরসভার সাবেক মেলার শামসুল আলম মাস্টারের স্ত্রী। গত ১৩ জুলাই ২০২২ইং তারিখে শামসুল আলম মাস্টার বার্ধক্যজনিত কারণে মৃত্যু বরণ করেন। তার দুই ছেলে এবং এক মেয়ে। মৃত্যুকালে তিনি বিপুল পরিমাণ সম্পত্তি রেখে যান। শামসুল আলমের ছোট ছেলে এবং মেনো অস্ট্রেলিয়া প্রবাসী। গত ঈদ উল ফিতর এর সময় তারা দেশে আসেন। শামসুল আলম এর মৃত্যুর পর তার দুই ছেলে ও মেয়ে সম্পত্তি নিয়ে বিরোধে জড়িয়ে পড়েন। শামসুল আলমের বড় ছেলে মাঈনুলের উশৃংখল জীবনযাপনের জন্য পরিবারের সঙ্গে তার দূরত্ব ছিল। নিহত জেসমিনের অস্ট্রেলিয়ায় বসবাসরত তার মেয়ের কাছে যাওয়ার কথা ছিল। মাঈনুল অভিযোগ করে আসছিল, মা তার দুই ছেলেকে বঞ্চিত করে মেয়েকে সব সম্পত্তি দেওয়ার চেষ্টা করছেন। এ নিয়ে তাদের মধ্যে পারিবারিক ভাবে একাধিক বার বৈঠকও হন। সম্পত্তি নিয়ে মা ও ছেলের মধ্যে প্রায়ই ঝগড়া হত। মাইনুলের সন্দেহ ছিলো মা সব সম্পত্তি বিক্রি করে বিদেশে পাড়ি দিতে চাচ্ছেন। এই প্রেক্ষিতে গত ১৬ আগস্ট ২০২২ইং তারিখে ঝগড়ার একপর্যায়ে মাইনুল তার মা জেসমিন আকতারকে গুলি করে হত্যা করেন।

খবরটি শেয়ার করুন..

এ জাতীয় আরো খবর..
কপিরাইট © ২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | দৈনিক দেশ বার্তা
Theme Customized By TeqmoBD