1. [email protected] : admin :
  2. [email protected] : News Editor : News Editor
ময়মনসিংহের চরনিলক্ষীয়ায় একরাতে ৫ ঘরে চুরি ; ভুক্তভোগীগণ আইনের আশ্রয় নিতে উদ্ধৃত। - DeshBarta
রবিবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০২২, ০২:০৬ অপরাহ্ন

ময়মনসিংহের চরনিলক্ষীয়ায় একরাতে ৫ ঘরে চুরি ; ভুক্তভোগীগণ আইনের আশ্রয় নিতে উদ্ধৃত।

  • সময় রবিবার, ১৬ জানুয়ারী, ২০২২
  • ৮২ পঠিত

গোলাম কিবরিয়া পলাশ, ময়মনসিংহ।

“একদিকে করোনা ও ওমিক্রনের থাবা ; অন্যদিকে ঘরে চোরের থাবা”। কোন দিকে যাবো আমরা। কি করবো? এই বলে দিশেহারা ময়মনসিংহ সদর উপজেলার চরনিলক্ষীয়া ইউনিয়নবাসী।

জানা গেছে, গতকাল ১৫ জানুয়ারী ২০২২ রোজ শনিবার দিবাগত রাত হতে আজ ১৬ জানুয়ারী ২০২২ তারিখ রবিবার ভোর পর্যন্ত ময়মনসিংহ সদর উপজেলা অধীনস্থ চরনিলক্ষীয়া ইউনিয়নের চরনিলক্ষীয়া গ্রামে প্রায় ৫ টি ঘরের পিড়া (মাটির পিড়া) খুঁড়ে ১০/১২ টি দামী স্মার্ট ফোন এবং নগদ প্রায় ২ লক্ষ টাকা চুরির ঘটনা ঘটে।

কিন্তু এখন পর্যন্ত কোনো চোরকে শনাক্ত করা সম্ভব হয়নি বলে জানান চোরের দ্বারা ক্ষতির সম্মুখীন হওয়া চরনিলক্ষীয়া গ্রাম এর ভুক্তভোগীগণ। চরনিলক্ষীয়া ইউনিয়ন এর ৩ নং এবং ৪ নং ওয়ার্ড এর দিঘলা পাড়া, বেপারি পাড়া, টুম পাড়া এবং নয়াপাড়ায় এই ঘটনা ঘটে।

এদিকে চরনিলক্ষীয়া গ্রাম এর একজন বৃদ্ধা বলেন, দীর্ঘ ১০ বছর যাবৎ আমাদের চোখে এমন কোনো অপ্রীতিকর ঘটনা কখনো ঘটেনি যেখানে একসাথে এতোগুলো ঘরে চুরি।

ইতিমধ্যে ক্ষতির সম্মুখীন হওয়া পরিবার গুলো আইনের আশ্রয় নিতে উদ্ধৃত হয়েছে। এবং খুব শীঘ্রই যাতে চোরদের শনাক্ত করে কঠিন শাস্তির আওতায় আনা হয় তার জোর দাবি জানাচ্ছে চরনিলক্ষীয়া গ্রামবাসী।

এরই মাঝে ০৩ নং ওয়ার্ডের বেপারি পাড়ার মজিবর রহমান এর ঘর থেকে ২টি মোবাইল ফোনসহ প্রায় ২/৩ হাজার টাকা এবং একই ওয়ার্ডের ভাটিপাড়া গ্রামের শহীদ মিয়ার ঘর সহ চরনিলক্ষীয়া ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ডের দিঘলা পাড়া গ্রামের রেজিয়া আক্তারের ঘরে সিধ খুদে ১টি স্মার্ট ফোন ও নগদ ১০.০০০/- (দশ হাজার টাকা)। একই ওয়ার্ডের নয়া পাড়া গ্রামের সেলিম মিয়ার ঘর হতে ২টি স্মার্ট ফোন।

একই গ্রামের টুমপাড়ার রাশেদুল ইসলাম এর ঘর হতে স্মার্ট ফোনসহ নগদ টাকা। একই গ্রামের হারুন অর রশীদ এর ঘর হতে ১টি স্মার্ট ফোন ও ১টি বাটন ফোনসহ নগদ ১৩ হাজার টাকা। ছাড়াও আরও বেশ কয়েকজনের ঘরে চুরি হওয়ার ঘটনা ঘটে।

এমনকি এর আগেও পাশের এলাকা থেকে আরও অনেককিছু এভাবে চুরি গিয়েছে বলে লোক মুখে শোনা যায়।

এ ঘটনায় চরনিলক্ষীয়া ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য জহিরুল ইসলাম বলেন, আমি এ বিষয়ে কিছু জানি না। আমার কাছে এখন পর্যন্ত কেও কিছু বলেনি। ৪নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য হানিফ মিয়া একই কথা বলেন। চরনিলক্ষীয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ফারুকুল ইসলাম রতন বলেন, বিষয়টি দুঃখজনক।

আমার ইউনিয়নের ঘটনা সত্যিই শোনে খারাপ লাগলো। তবে তিনি বলেন ভুক্তভোগীগণ থানায় জিটির পরামর্শ দেন। তিনি বিষয়টি নিয়ে স্থানীয় ইউপি সদস্য ও গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গদের নিয়ে বসে আলোচনা করে সমাধানের আশ্বাস প্রদান করেন।

এ ঘটনায় কোতোয়ালী মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোঃ শাহ্ কামাল আকন্দ পিপিএম বার বলেন, এ ঘটনা শোনেছি অনুসন্ধান চলছে।

খবরটি শেয়ার করুন..

এ জাতীয় আরো খবর..
কপিরাইট © ২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | দৈনিক দেশ বার্তা
Theme Customized By TeqmoBD