1. [email protected] : admin :
  2. [email protected] : News Editor : News Editor
সাবেক স্ত্রীর সঙ্গে মারমুখী আচরণ ব্যাংক কর্মকর্তার - DeshBarta
শনিবার, ০৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ১১:১৬ পূর্বাহ্ন

সাবেক স্ত্রীর সঙ্গে মারমুখী আচরণ ব্যাংক কর্মকর্তার

  • সময় শুক্রবার, ২৩ ডিসেম্বর, ২০২২
  • ৮২ পঠিত

মোহাম্মদ জুবাইর।

ব্যাংক ম্যানেজারের সাথে স্বাক্ষাত করতে এসে ব্যাংক কর্মকর্তা মোঃ রাশেদ কর্তৃক মারমুখী আচরণের শিকার হয়েছেন নিপা আক্তার (২২) নামের এক মহিলা। এমন অভিযোগ উঠেছে চট্টগ্রামে। জানা যায়, সম্পর্কে তারা স্বামী-স্ত্রী হয়।

মঙ্গলবার সকাল ১১ টার দিকে চট্টগ্রাম নগরীর কোতোয়ালী থানাধীন ১৫১ আসাদগঞ্জ ওমর আলী হাইটস ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ লিমিটেড, আসাদগঞ্জ উপ শাখার ভিতরে এ ঘটনা ঘটে। একই দিনে এই অভিযোগ উল্লেখ করে কোতোয়ালী থানায় সাধারণ ডায়েরী করেন ভুক্তভোগী ওই নারী। যার জি.ডি নং-১৬০৩।

সাধারণ ডায়রীতে উল্লেখ করা হয়, বিবাদী সম্পর্কে আমার স্বামী হয়। বিবাদী ইতিপূর্বে ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ লিমিটেড শরীয়তপুর সদর থানা এলাকায় চাকুরী করার সুবাধে তার সাথে আমার পরিচয় হয়। এক পর্যায়ে আমাদের প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। পরবর্তীতে বিগত ০৯ জুলাই ২০২১ তারিখে তার সাথে আমার বিয়ে হয়।

বর্তমানে চট্টগ্রাম নগরীর কোতোয়ালী থানাধীন ১৫১ আসাদগঞ্জ ওমর আলী হাইটস ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ লিমিটেড, আসাদগঞ্জ উপ শাখার ম্যানেজারের সাথে দেখা করতে আসলে মারমুখী আচরণ করেন মোঃ রাশেদ।

আমাদের সংসারে ১ মাস ১৮ দিন বয়সী ছেলে সন্তান রয়েছে। একপর্যায়ে আমি পাঁচ মাসের অন্তঃসত্বা থাকাকালীন অবস্থায় বিবাদী বিগত জুলাই মাসে শরীয়তপুর হতে বদলি হয়ে মাদারীপুর জেলায় আসেন। বিবাদীর সাথে বিবাহের পর থেকে আমাকে বিভিন্ন তারিখ ও সময় যৌতুকের জন্য মারধর সহ শারীরিক ও মানসিকভাবে নির্যাতন করত। একপর্যায়ে আমি বাধ্য হয়ে রাশেদের বিরুদ্ধে বিজ্ঞ চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আমলী আদালত পালং, শরীয়তপুর সিআর মামলা নং- ৪২৫/২০২২ (পালং), ধারা যৌতুক নিরোধ আইন ২০১৮ সনের ৩ মোতাবেক একটি মামলা দায়ের করি। বিবাদী শরীয়তপুর থেকে চট্টগ্রাম চলে আসার পর আমি তার বর্তমান কর্মক্ষেত্রের ঠিকানায় এসে আসাদগঞ্জ ওমর আলী হাইটস ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ লিমিটেড, আসাদগঞ্জ উপ শাখার ম্যানেজারের সাথে উক্ত বিষয় নিয়া কথাবার্তা বলি এবং তিনি আমাকে পরবর্তীতে দেখা করার জন্য অনুরোধ করেন। সেই মোতাবেক আমি ২০ ডিসেম্বর সকাল ১০ টার সময় চট্টগ্রাম নগরীর কোতোয়ালী থানাধীন ১৫১ আসাদগঞ্জ ওমর আলী হাইটস ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ লিমিটেড, আসাদগঞ্জ উপ শাখার ম্যানেজারের সাথে দেখা করতে আসলে বিবাদী আমাকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে আর আমার সাথে মার মুখী আচরণ করে। একপর্যায়ে বিবাদী আমাকে জানায় যে, তার বিরুদ্ধে দায়ের করা মামলাটি প্রত্যাহার করে নিতে। মামলা প্রত্যাহার করবো না মর্মে অপারগতা প্রকাশ করলে সে আমাকে মারধর করা সহ আমার নবজাতক শিশুকে প্রাণে মেরে ফেলবে, আমার ক্ষতিসাধন করবে মর্মে ভয়-ভীতি ও হুমকি প্রদান করেন। বিবাদী হুমকি নিয়ে আরো বলেন যে, তোর নামে যেগুলা মিথ্যা মামলা দায়ের করেছি সেগুলো দিয়ে কিছু হয়নি। আরো মিথ্যা মামলা দিয়ে তোকে শরীয়তপুর হতে বারবার চট্টগ্রাম এনে হয়রানি করব ।

এ প্রসঙ্গে রাশেদ বলেন, এ বিষয়ে আমি কথা বলতে উৎসুক না। এটা আইন আদালত কোর্টের ব্যাপার। বিষয়টি বিচারাধীন এবং আমি আমার কর্মস্থলে থেকে কথা বলতে রাজি না। আমার বিরুদ্ধে যতো অভিযোগ করেছেন সমস্ত কিছু বানোয়াট, মিথ্যা ও জালিয়াতি। কারণ উল্টো আমি নিজেই ভুক্তভোগী ও ক্ষতিগ্রস্ত। স্ত্রী কর্তৃক শুরু থেকেই নানা ক্ষয়ক্ষতির শিকার হয়েছি। শারীরিক ও মানসিকভাবে আমি এখন সুস্থ নয়। তাকে ডিভোর্স দেওয়া সত্ত্বেও সে বারবার কর্মস্থলে এসে বিভিন্ন মাধ্যমে হেনস্থা করছেন। তার থেকে রেহায় পেতে অলরেডি আমি তার বিরুদ্ধে আদালতে দুইটি মামলা করেছি।

ভুক্তভোগী বলেন, আমার সাথে যা ঘটেছে তা সিসি ক্যামেরায় সুনির্দিষ্ট রেকর্ড রয়েছে। কিন্তু আমি খবর পেয়েছি যে, সাধারণ ডায়েরীর পর পর-ই তারা সিসি ক্যামেরার ফুটেজ সরিয়ে নেয়। এতে আমি শঙ্কিত।

খবরটি শেয়ার করুন..

এ জাতীয় আরো খবর..
কপিরাইট © ২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | দৈনিক দেশ বার্তা
Theme Customized By TeqmoBD