1. bappy.ador@yahoo.com : admin :
  2. salehbinmonir@gmail.com : News Editor : News Editor
স্বাধীন বাংলাদেশের জাতির জনককে প্রত্যাবর্তন ১০ জানুয়ারি, ১৯৭২ (রেসকোর্স ময়দান)- নেছার আহমেদ খান - DeshBarta
শনিবার, ১৬ জানুয়ারী ২০২১, ০৩:২৪ পূর্বাহ্ন
শিরোনামঃ
তৌহিদুল আলম’ক বিএনপি’র পুর্নরায় মেয়র প্রার্থীর দাবিতে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মিছিল কক্সবাজারের রামু খুনিয়াপালং থেকে ১৯,৭০০ ইয়াবাসহ রোহিঙ্গা মাদক কারবারী আটক।। ময়মনসিংহে প্রতিবন্ধী শিশুর লাশ বাড়ির পাশের জঙ্গল থেকে উদ্ধার। বাঁশখালী উপকূলীয় পাবলিক লাইব্রেরিতে সালফি পাবলিকেশন্সের বই উপহার গলাচিপায় অসুস্থ প্রতিবন্ধী নবম শ্রেণির ছাত্র মিলন বাঁচতে চায়, এগিয়ে আসুন। সৌদি বাদশাহ সালমানের উপহার চট্টগ্রামের ক্রীড়াবিদদের সামনে তুলে দিলেন সাবেক চসিক মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন। পটিয়ার ছনহরা ইউনিয়ন দেশরত্ন পরিষদ কর্তৃক দেশরত্ন শেখ হাসিনার সরকারের ১যুগ পূর্তিতে আলোচনা সভা চন্দনাইশে মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করলেন এমপি নজরুল   একতা বন্ধুর মাহফিল কমিটির উদ্যোগে বার্ষিক মাহফিলের প্রস্তুতি সভা সম্পন্ন শীতার্তদের পাশে সূর্যালো পরিবার

স্বাধীন বাংলাদেশের জাতির জনককে প্রত্যাবর্তন ১০ জানুয়ারি, ১৯৭২ (রেসকোর্স ময়দান)- নেছার আহমেদ খান

  • সময় শনিবার, ৯ জানুয়ারী, ২০২১
  • ৬০ পঠিত

উপসম্পাদকীয়ঃ

আমি প্রথমে স্মরণ করি আমার বাংলাদেশের ছাত্র, শ্রমিক, কৃষক, বুদ্ধিজীবী, সেপাই, পুলিশ, জনগণকে। হিন্দু, মুসলমানকে হত্যা করা হয়েছে আমি তাদের আত্মার মঙ্গল কামনা করে আমি আপনাদের কাছে দু এক কথা বলতে চাই । আমার বাংলাদেশ আজ স্বাধীন হয়েছে, আমার জীবনে সাধ আজ পূর্ণ হয়েছে, আমার আমার বাংলার মানুষ আজ মুক্ত হয়েছে । আমি আজ বক্তব্য করতে পারবোনা। বাংলার ছেলেরা, বাংলার মেয়েরা, বাংলার কৃষক, বাংলার শ্রমিক, বাংলার বুদ্ধিজীবী যেভাবে সংগ্রাম করেছে। আমি কারাগারে বন্দি ছিলাম, ফাঁসির কন্ঠে যাবার জন্য প্রস্তুত ছিলাম। কিন্তু আমি জানতাম আমার বাঙ্গালীকে কেউ দাবায়া রাখতে পারবেনা । আমার বাংলার মানুষকে। আমি আমার সেই যে ভাইয়েরা আত্মহুতি দিয়েছে শহীদ হয়েছে তাদের আমি শ্রদ্ধা নিবেদন করি, তাদের আত্মার মাগফেরাত কামনা করি। আজ প্রায় ৩০ লক্ষ লোককে মেরে ফেলে দেওয়া হয়েছে বাংলায়। দ্বিতীয় মহাযুদ্ধেও এবং প্রথম মহাযুদ্ধেও এত লোক এত সাধারন নাগরিক মৃত্যুবরণ করেন নাই। শহীদ হয় নাই, যা আমার এই সাত কোটির বাংলাদেশের হয়েছে । আমি জানতাম না আপনাদের কাছে আমি ফিরে আসবো ।আমি খালি একটা কথা বলেছিলাম, তোমরা যদি আমাকে মেরে ফেলে দাও আমার আপত্তি নাই ,মৃত্যুর পরে আমার লাশটা আমার বাঙালির কাছে দিয়ে দিয়ো এই একটা অনুরোধ তোমাদের কাছে ।
আমি মোবারকবাদ জানান ভারতবর্ষের প্রধানমন্ত্রী শ্রীমতি ইন্দিরা গান্ধীকে। আমি মোবারকবাদ জানাই ভারতবর্ষেরজনসাধারণকে। আমি মোবারকবাদ জানাই ভারতবর্ষের সামরিক বাহিনীকে । আমি মোবারকবাদ জানাই রাশিয়ার জনসাধারণকে। আমি মোবারকবাদ জানাই ব্রিটিশ, জার্মানি, ফ্রান্স সব জায়গায় যেসব জনসাধারণ আছে । তাদের আমি মোবারকবাদ জানাই যারা আমাকে সমর্থন করেছে। আমি মোবারকবাদ জানাই আমেরিকান জনসাধারণকে। আমি মোবারকবাদ জানাই বিশ্ব দুনিয়া মজলুম জনসাধারণকে যারা আমার এই মুক্ত সংগ্রামকে সাহায্য করেছে । আমার বলতে হয় এক কোটি লোক এই বাংলাদেশের থেকে ঘরবাড়ি ছেড়ে ভারতবর্ষে আশ্রয় নিয়েছিল। ভারতের জনসাধারণ। মিসেস ইন্দ্রাগান্ধি তাদের খাবার দিয়েছেন , আসার দিয়েছেন। তাদের আমি মোবারকবাদ না দিয়ে পারি না । যারা অন্যের সাহায্য করেছেন তাদের আমার মোবারক দিতে হয় । তবে মনে রাখা উচিত বাংলাদেশ স্বাধীন সার্বভৌম রাষ্ট্র । বাংলাদেশ স্বাধীন থাকবে।বাংলাদেশকে কেউ দমতে পারবে না । বাংলার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করে লাভ নেই । আমি বলেছিলাম যাবার আগে, ও বাঙালি এবার তোমাদের সংগ্রাম স্বাধীনতার সংগ্রাম, এবারের তোমাদের সংগ্রাম মুক্তির সংগ্রাম, আমি বলেছিলাম, ঘরে ঘরে দুর্গ গড়ে তোল। তোমরা ঘরে ঘরে দুর্গ গড়ে তুলে সংগ্রাম করেছ। আমি আমার সহকারীদের মোবারকবাদ জানাই।
আমার বহু ভাই, আমার বহু কর্মী, আমার বউ মা বোন, আমার বহু ভাই আজ দুনিয়ায় নেই । তাদের আমি দেখবো না । আমি আজ বাংলার মানুষকে দেখলাম, বাংলার মাটিকে দেখলাম, বাংলার আকাশকে দেখলাম, বাংলার আবহাওয়া অনুভব করলাম। বাংলাকে আমি সালাম জানাই । আমার সোনার বাংলা তোমায় আমি বড় ভালোবাসি। বোধহয় তার জন্য আমাকে ডেকে নিয়ে এসেছে। আমি আশা করি, দুনিয়ার সমস্ত রাষ্ট্রের কাছে আমার আবেদন যে, আমার রাস্তা নাই, আমার ঘাট নাই, আমার জনগণের খাবার নাই, আমার মানুষের গৃহহারা সর্বহারা, আমার মানুষ পথের ভিখারী।
তোমরা আমার মানুষকে সাহায্য করো। মানবতার খাতিরে তোমাদের কাছে আমি সাহায্য চাই। দুনিয়ার সমস্ত রাষ্ট্রের কাছে আমি সাহায্য চাই। আমার বাংলাদেশকে তোমরা রিকগনাইজ করো। জাতীয় সংঘের ত্রাণ দাও। দিতে হবে, উপায় নাই দিতে হবে। আমি, আমরা হার মানবো না, আমরা হারমানতে জানিনা । কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ বলেছিলেন, “সাত কোটি বাঙালিরে হে বঙ্গ জননী, রেখেছ বাঙালি করে মানুষ করোনি । কবিগুরু কথা মিথ্যা প্রমান হয়ে গেছে।আমার বাঙালি আজ মানুষ । আমার বাঙালি দেখিয়ে দিয়েছে দুনিয়ার ইতিহাস দুনিয়ার ইতিহাসে, দুনিয়ার ইতিহাসে স্বাধীনতার সংগ্রাম এত লোক আত্মহতি, এত লোক জান দেয় নাই। তাই আমি বলি, আমার দাবিয়ে রাখতে পারবে না । আজ থেকে আমার অনুরোধ, আজ থেকে আমার আদেশ, আজ থেকে আমার হুকুম ভাই হিসাবে । নেতা হিসেবে নয়, প্রেসিডেন্ট হিসাবে নয়। আমি তোমাদের ভাই, তোমরা আমার ভাই। এই স্বাধীনতা আমার ব্যর্থ হয়ে যাবে যদি আমার বাংলার মানুষ পেট ভরে ভাত না খায় । এই স্বাধীনতা আমার পূর্ণ হবে না যদি বাংলার মা বোনেরা কাপড় না পায় । এই স্বাধীনতা আমার পূর্ণ হবে না যদি দেশের মা বোনেরা ইজ্জত আর কাপড় না পায় । এই স্বাধীনতা আমার পূর্ণ হবেনা যদি দেশের মানুষ যারা আমার যুবক শ্রেণীর কাছে তারা চাকরি না পায় বা চান্স না পায়। মুক্তিবাহিনী, ছাত্র সমাজ, কর্মী বাহিনী তোমাদের মোবারকবাদ জানাই। তোমরা গরিলা হয়েছে,তোমরা রক্ত দিয়েছে রক্ত । রক্ত বৃথা যাবেনা । রক্ত বৃথা যায় নাই। একটা কথা আজ থেকে, আজ থেকে বাংলায় যেন আর
চুরি ডাকাতি না হয়,বাংলায় যেন আর লুটতারাজ না হয়। বাংলায় যারা অন্য লোক আছে, অন্য দেশের লোক, পশ্চিমা পাকিস্তানিরা বাংলায় কথা বলে না আজ বলছি তোমরা বাঙালি হয়ে যাও। আর আমি আমার ভাইদের বলছি তাদের উপরে হাত তোলো না । আমরা মানুষ, মানুষ ভালোবাসি। তবে যারা দালালী করেছে, যারা আমার লোকদের ঘরে ঢুকে হত্যা করেছে তাদের বিচার হবে এবং শাস্তি হবে । তাদেরকে বাংলার স্বাধীন সরকারের হাতে ছেড়ে দেন একজন কেউও ক্ষমা করা হবে না।তবে আমি চাই স্বাধীন দেশ, স্বাধীন নাগরিক দের মত স্বাধীন আদালতে বিচার হয়ে এদের শাস্তি হবে। আপনাদের আমি দেখাই দিবার চাই দুনিয়ার কাছে শান্তিপূর্ণ বাঙালি রক্ত দিতে জানে । শান্তিপূর্ণ বাঙালি শান্তি বজায় রাখতেও জানে। আমায় আপনারা পেয়েছেন, আমি আসছি । জানতাম না আমার ফাঁসি রকম হয়ে গেছে। আমার সেলের পাশে আমার জন্য কবর করা হয়েছিল । আমি প্রস্তুত হয়েছিলাম ।বলেছিলাম, আমি বাঙালি, আমি মানুষ, আমি মুসলমান একবার মরে দুইবার মরে না । আমি বলেছিলাম, আমার মৃত্যু আসে থাকে যদি আমি হাসতে হাসতে যাব। আমার বাঙালি জাতকে অপমান করে যাব না, (চলবে)

সমাজকর্মী ও লেখকঃ নেছার আহমেদ খান

খবরটি শেয়ার করুন..

এ জাতীয় আরো খবর..
কপিরাইট © ২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | দৈনিক দেশ বার্তা
Theme Customized By TeqmoBD