1. bappy.ador@yahoo.com : admin :
  2. salehbinmonir@gmail.com : News Editor : News Editor
আমার স্বামী এখন আর কাজ করতে পারেনা: শোভা রাণী দে - DeshBarta
শনিবার, ১৬ জানুয়ারী ২০২১, ০২:১২ পূর্বাহ্ন
শিরোনামঃ
পটিয়ার ছনহরা ইউনিয়ন দেশরত্ন পরিষদ কর্তৃক দেশরত্ন শেখ হাসিনার সরকারের ১যুগ পূর্তিতে আলোচনা সভা চন্দনাইশে মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করলেন এমপি নজরুল   একতা বন্ধুর মাহফিল কমিটির উদ্যোগে বার্ষিক মাহফিলের প্রস্তুতি সভা সম্পন্ন শীতার্তদের পাশে সূর্যালো পরিবার আগামীর নগর পিতার নিকট প্রত্যাশা – ডাঃ জামাল উদ্দিন মাদক সন্ত্রাস ও জুয়াড়ী মুক্ত নগরী গড়‌তে চাই- রেজাউল করিম চৌধুরী উত্তর ফটিকছড়ির হেয়াকো বাজার ব্যবস্থাপনা কমিটির গঠিত। সাজেকে পিকআপ উল্টে আহত ৫ সুবিধা বঞ্চিতদের শীত বস্ত্র বিতরণ করল ঘাসের ডগায় শিশির সাহিত্য পরিষদ দীঘিনালায় সড়ক দূর্ঘটনায় নিহত-১ আহত-৫

আমার স্বামী এখন আর কাজ করতে পারেনা: শোভা রাণী দে

  • সময় বুধবার, ১৩ জানুয়ারী, ২০২১
  • ৬৫ পঠিত

আমার স্বামী এখন আর কাজ করতে পারেনা: শোভা রাণী দে

মোঃ ইদ্রিছ আলীঃ

অনিল দে পেশায় একজন দিনমজুর। খাগড়াছড়ির দীঘিনালা উপজেলার ২ নং বোয়ালখালী ইউনিয়নের পশ্চিম কাঁঠালতলী গ্রামের পুরানো জরাজীর্ণ একটি বাড়িতে বসবাস করেন তিনি৷ একসময় দিনমজুরি করে সুখে-শান্তিতে দিনযাপন করলেও বয়সের ভারে এখন আর কাজে যেতে পারেননা।

বর্তমানে পরিবারের ৫ সদস্য নিয়ে অভাব-অনটনে পার করছেন প্রতিটি মূহুর্ত।

বছর দুয়েক পূর্বে অনিল দে’র ছেলে সুজন দে দুরারোগ্য রোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরন করে৷ এসময় সে স্ত্রী ও দুই জমজ কন্যা রেখে যায়৷ সন্তানের অকাল মৃত্যুতে ভেঙে পরেন অনিল দে। ধীরে ধীরে অসুস্থতা তাকে গ্রাস করতে শুরু করে। তারপরও সংসারের হাল ছারেননি তিনি৷ নিজে অসুস্থ হয়েও ছুটে চলেন কাজের সন্ধানে।
সারাদিনের কঠোর পরিশ্রমের বিনিময়ে মেটান সাংসারিক চাহিদা।

করোনা ভাইরাস সংক্রমণ পরিস্থিতিতে তার আয়-রোজগার পুরোপুরি বন্ধ ছিলো। এ সময় নিজের চিকিৎসার ঔষধও ঠিকভাবে কিনতে পারেননি। সাংসারিক চাহিদা তো দূরের কথা।

দুচোখের পানি আঁচল দিয়ে মুছতে মুছতে এসব কথা জানান অনিল দে’র স্ত্রী শোভা রাণী দে। এসময় তিনি আরোও বলেন, বর্তমানে আমার জমজ দুই নাতনী দ্বিতীয় শ্রেণিতে পড়ে। আমার স্বামী এখন আর কাজ করতে পারেননা। তাই আমরা দূর্বিষহ জীবনযাপন করছি। আমাদের ঘরের টিনের চাল ফুটো হয়ে গেছে। শীত ও বর্ষায় খুবই কষ্ট হয়। যেখনে পরিবারের সদস্যদের দু’বেলা দুমুঠো ভাল খাবারও জুটছেনা। সেখানে ঘরটি মেরামত করবো কিভাবে?

আমি সরকার বাহাদুরের নিকট আরজ করছি। আমাদের একটি ঘরের ব্যবস্থা করে দেওয়া হোক।

খবরটি শেয়ার করুন..

এ জাতীয় আরো খবর..
কপিরাইট © ২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | দৈনিক দেশ বার্তা
Theme Customized By TeqmoBD