1. bappy.ador@yahoo.com : admin :
  2. salehbinmonir@gmail.com : News Editor : News Editor
করোনা ইস্যুতে বাংলাদেশ সরকারের সমর্থন চেয়ে চিঠি লিখেছেন এস্তোনিয়ার প্রধানমন্ত্রী কাজা কালাস। - DeshBarta
সোমবার, ১৯ এপ্রিল ২০২১, ০৬:৫৩ পূর্বাহ্ন
শিরোনামঃ
বেগম খালেদা জিয়ার রোগমুক্তি কামনায় চট্টগ্রাম পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট (চপই) ছাত্রদলের দোয়া মাহফিল” দুমকিতে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স কর্তৃপক্ষের অবহেলায় রোগীর মৃত্যুর অভিযোগ করোনার দুর্দিনে ক্ষুধার্ত মানুষের জন্য মাসব্যাপী বাংলাদেশ ওয়েলফেয়ার সোসাইটি ইফতার আয়োজন যুব রেড ক্রিসেন্ট চট্টগ্রামকে রেড ক্রিসেন্ট সিটি ইউনিটের অক্সিজেন সিলিন্ডার প্রদান ২২ এপ্রিল থেকে মার্কেট ও দোকানপাট খুলে দেওয়ার দাবি দোকান মালিক সমিতির কবিতাঃ “মাহে রমজান ” মোঃ জসীম উদ্দিন চৌধুরী গ্রেফতার হেফাজত নেতা মাওলানা মামুনুল হক বাঁশখালীর কয়লাবিদ্যুৎ প্রকল্পের হত্যা কান্ডের সাথে এস আলম গ্রুপ দায়ী নয়, মাফিয়া সিণ্ডিকেট-ই দায়ী। শ্রমিকের পারিশ্রমিক (মজুরি) তার ঘাম শুকানোর পূর্বে দিয়ে দাও”— মহানবী হযরত মুহাম্মাদ (সাঃ) চিত্র নায়ক ওয়াসিম আর নেই।

করোনা ইস্যুতে বাংলাদেশ সরকারের সমর্থন চেয়ে চিঠি লিখেছেন এস্তোনিয়ার প্রধানমন্ত্রী কাজা কালাস।

  • সময় বৃহস্পতিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী, ২০২১
  • ৭৫ পঠিত

করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) ইস্যুতে বাংলাদেশের সমর্থন চেয়েছে উত্তর ইউরোপের দেশ এস্তোনিয়া। বৈশ্বিক এই সংক্রমণ থেকে সুরক্ষা পেতে বিশ্বের একেকটি দেশ একেক রকম ভ্যাকসিন ব্যবহার করছে। কিন্তু এস্তোনিয়া চায় স্বীকৃত একটি আন্তর্জাতিক সনদের মাধ্যমে এসব ভ্যাকসিনের ব্যবহার নিশ্চিত হোক। বাংলাদেশ এই ইস্যুতে ইউরোপের এই দেশকে সমর্থন দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

কূটনৈতিক সূত্রে জানা গেছে, করোনা ইস্যুতে সবগুলো দেশের আন্তর্জাতিক স্বীকৃত একটি সনদের ব্যবহার প্রসঙ্গে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সমর্থন চেয়ে চিঠি লিখেছেন এস্তোনিয়ার প্রধানমন্ত্রী কাজা কালাস।
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে লেখা কূটনৈতিক চিঠিতে এস্তোনিয়ার প্রধানমন্ত্রী কাজা কালাস বলেন, করোনা থেকে সুরক্ষা পেতে একেক দেশ একেক রকম ভ্যাকসিন ব্যবহার করছে। যে দেশ যে ভ্যাকসিন ব্যবহার করছে, করোনা সনদে ওই ভ্যাকসিনের বাইরে অন্য ভ্যাকসিনগুলোর স্বীকৃতি দেওয়া হচ্ছে না। এতে করে অনেকে ভ্যাকসিন নেওয়া সত্ত্বেও অন্য দেশ ভ্রমণে গেলে এবং ভ্রমণে যাওয়া দেশে ওই ভ্যাকসিনের ব্যবহার না থাকলে অনেক ক্ষেত্রেই ভ্রমণকারীকে ১৪ দিনের বাধ্যতামূলক কোয়ারেনটাইনে থাকতে হচ্ছে। এতে করে অনেক সময় ও অর্থের খরচ হচ্ছে। পাশাপাশি গুরুত্বপূর্ণ আন্তর্জাতিক অনেক কাজে বেশি সময় ব্যয় হচ্ছে।
চিঠিতে আরও বলা হয়, আমরা সবাই যদি বৈশ্বিকভাবে একটি করোনা সনদের ব্যবহার করি, যেখানে সবগুলো ভ্যাকসিনের বিষয়ে তথ্য থাকে এবং যেখানে যে ধরনের ভ্যাকসিনের ব্যবহার হচ্ছে তা উল্লেখ থাকে, তাহলে উদ্ভূত পরিস্থিতি মোকাবিলা করা সহজ হবে।

কূটনৈতিক সূত্রগুলো বলছে, এস্তোনিয়ার এই উদ্যোগকে স্বাগত জানাতে চায় বাংলাদেশ। এই ইস্যুতে দেশটিকে বাংলাদেশের সমর্থন জানিয়ে শিগগিরই চিঠি দেওয়া হবে।

খবরটি শেয়ার করুন..

এ জাতীয় আরো খবর..
কপিরাইট © ২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | দৈনিক দেশ বার্তা
Theme Customized By TeqmoBD