1. bappy.ador@yahoo.com : admin :
  2. salehbinmonir@gmail.com : News Editor : News Editor
রাজধানীর মিরপুরে দেড় হাজার তিতাস গ্রাহকের গ্যাস বিলের ১০ কোটি টাকা আত্মসাত করায় মূলহোতা ফারুককে চট্টগ্রাম থেকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব - DeshBarta
বুধবার, ২৩ জুন ২০২১, ০৪:১৭ পূর্বাহ্ন
শিরোনামঃ
গাইবান্ধার পলাশবাড়ী‌তে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের ৭২তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পাল‌ন ২৩ জুন বুধবার থেকে পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত ওষুধের দোকান ব্যতীত সকল ব্যবসা প্রতিষ্ঠান রাত ৮টার পর বন্ধ থাকবে এসডিজি অর্জনে তিন দেশের অন্যতম বাংলাদেশ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। করোনা ঃ চট্টগ্রাম নগরীতে কড়াকড়ি, লকডাউনে ফটিকছড়ি রফিক চৌধুরীর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন উপলক্ষে বিমান বন্দরে নগর জাসাস এর উষ্ণ সম্বর্ধনা আন্দোলন সংগ্রামের দল আওয়ামী লীগ সুন্দর বাংলাদেশ গঠনে জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে এগিয়ে যাচ্ছে -তসলিম উদ্দিন রানা দুমকির ৩ ইউপিতে নির্বাচন অনুষ্ঠিত, নৌকার প্রার্থীদের জয় শিক্ষা কর্মকর্তার বিরুদ্ধে পিডিইপি-৪ প্রকল্পের দেড় লক্ষ টাকা আত্মসাতের গোমর ফাঁস। কামরুজ্জামান রাব্বির ‘ভালোবাসার ভেদপরিচয়’ বদলী হওয়ার ৬ দিনেও দায়িত্ব হস্থান্তর করেননি শিক্ষা অফিসার আব্দুস ছালাম।

রাজধানীর মিরপুরে দেড় হাজার তিতাস গ্রাহকের গ্যাস বিলের ১০ কোটি টাকা আত্মসাত করায় মূলহোতা ফারুককে চট্টগ্রাম থেকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব

  • সময় সোমবার, ৭ জুন, ২০২১
  • ৪৪ পঠিত

মোঃ মোশারফ হোসেন সরকার রিপোর্ট —

এজেন্ট ব্যাংকিংয়ের নামে গ্রাহকদের কাছ থেকে বিদ্যুৎ, পানি, গ্যাস বিলের ১০ কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়েছে প্রতারক চক্র। রাজধানীতে তিনটি আলাদা অফিস ভাড়া নিয়ে দুই বছর ধরে প্রায় দেড় হাজার গ্রাহকের টাকা হাতিয়ে নেয় চক্রটি। গা ঢাকা দেওয়ার চার মাস পর চট্টগ্রাম থেকে গ্রেপ্তার হয় প্রতারক চক্রের মূলহোতা ওমর ফারুক।
দুই বছরের পানি গ্যাস বিদ্যুতের সব টাকা পরিশোধ করেছেন মিরপুরের ফারুক মোল্লা। সব নথিও রয়েছে তার কাছে। কিন্তু দুই বছর পর জানতে পারেন তাদের বিল কখনোই জমা হয়নি। ছয় মাস আগে এলাকার গ্যাস সংযোজন বিচ্ছিন্ন করে দিলে জানতে পারে সবই প্রতারণার শিকার।

মিরপুরের ৬০ ফুটের প্রায় দেড় হাজার গ্রাহকের কাছ থেকে ১০ কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়েছে চক্রটি।
ভুক্তভোগী ফারুক মোল্লা বলছিলেন, দুই বছরের শুধুই তারই ৯০ হাজার টাকা গ্যাস বিল নিয়ে গেছে প্রতারকরা৷ এই ঘটনায় মামলা করা হলে চার মাস পর চট্টগ্রামের সীতাকুন্ড থেকে গ্রেপ্তার করা হয় মূলহোতা ওমর ফারুককে।
গ্রেপ্তারের পর তাকে নিয়ে আসা হয় রাজধানীর কারওয়ান বাজারের র‌্যাব মিডিয়া সেন্টারে। সোমবার (৭ জুন) বিকালে এক সংবাদ সম্মেলনে র‌্যাব জানিয়েছে, ২০০৯ সালে ফারুক এসএসসি পাশ করে এজেন্ট ব্যাংকিংকের কাজ শুরু করে রাজধানীর মালিবাগে। এরপর সেখান থেকে মিরপুরে গিয়ে শুরু, ৫ টি ব্যাংক একাউন্ট খুলে শুরু করেন এজেন্ট ব্যাংকিং কার্যক্রম। সেখানেই হাতিয়ে নেন গ্রাহকের টাকা। এই টাকা সংগ্রহের ছিল ফারুক ছাড়াও আরও ৭-৮ জন।
র‌্যাব বলছে, এজেন্ট ব্যাংকিং ছাড়াও মোবাইলে নব ক্যাশ নামে সেবা চালু করে গ্রাহকের কাছ থেকে হাতিয়ে নিয়েছে কয়েক কোটি টাকা। এর সঙ্গে তিতাস বা ব্যাংকের কর্মকর্তাদের জড়িতদের প্রমাণ পেয়েছে র‌্যাব।
র‌্যাবের দাবি, মানুষকে আকৃষ্ট করতে অটুট বন্ধন নামে খুলেন এমএলএম ব্যবসা। গ্রাহক টানতে মাঠে নামিয়েছেন সুন্দরী তরুণ তরুণীদের। র‌্যাব-৪ এর অধিনায়ক মোজাম্মেল হক জানান, প্রতারণার পাশাপাশি তার বিরুদ্ধে অর্থ পাচার আইনেও মামলা দায়ের করা হবে।

খবরটি শেয়ার করুন..

এ জাতীয় আরো খবর..
কপিরাইট © ২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | দৈনিক দেশ বার্তা
Theme Customized By TeqmoBD