1. bappy.ador@yahoo.com : admin :
  2. salehbinmonir@gmail.com : News Editor : News Editor
চন্দনাইশের খ্যাতিমান লোককবি বিভূতি ভূষন নাথকে নিজের তৈরি মন্দিরে সমাহিত - DeshBarta
মঙ্গলবার, ২৭ জুলাই ২০২১, ০৫:৩৩ পূর্বাহ্ন
শিরোনামঃ
“সেইভ দ্যা হাঙ্গার পিপল” সংগঠন এর অভুক্তদের মাঝে খাবার বিতরণ সমাজসেবক আবদুল মাবুদ দোভাষের মৃত্যুতে শোক প্রকাশ সাংবাদিক মাতা ছৈয়দা রোকসানা কাউসারের নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত ছাত্রীকে বিয়ে করে গোপন রাখায় ৩ সন্তানের জনক শিক্ষক কে গণধোলাই কুয়াকাটায় হোটেলে মাদকসহ আটক দুমকির আওয়ামীলীগ নেতাকে বহিষ্কার দুমকিতে করোনায় ক্ষতিগ্রস্ত ক্ষুদ্র উদ্যোক্তাদের মধ্যে বিআরডিবির ঋণ বিতরণের উদ্বোধন ভাষা সৈনিক ও চমেক সাবেক উপ-পরিচালক ডা. শামসুদ্দিন চৌধুরী আর নেই ডাঃ এ,জে,এম শামসুদ্দিন চৌধুরীর দাফনে গাউসিয়া কমিটি স্বেচ্ছাসেবক টিম কোরআন ও হাদিসের আলোকে ইসলামী দাওয়াত এর গুরুত্ব! হাফিজ মাছুম আহমদ দুধরচকী। সহকারী কমিশনার (ভূমি) পদে যোগদান করলেন কক্সবাজারের কৃতি সন্তান মো.মিজানুর রহমান

চন্দনাইশের খ্যাতিমান লোককবি বিভূতি ভূষন নাথকে নিজের তৈরি মন্দিরে সমাহিত

  • সময় মঙ্গলবার, ২২ জুন, ২০২১
  • ৯৮ পঠিত

জাহাঙ্গীর আলম চৌধুরী চন্দনাইশ প্রতিনিধি:-
চন্দনাইশ পৌরসভার দক্ষিণ গাছবাড়ীয়া নাথ পাড়া এলাকার খ্যাতিমান লোককবি, কবিরাজ ও ব্যবসায়ী কবিয়াল বিভূতি ভূষন নাথ গত ১৮ জুন দুপুরে বার্ধক্য জনিত কারণে নিজ বাড়ীতে পরলোক গমন করেন। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৯৫ বছর। তিনি ২ স্ত্রী, ১ ছেলে, ২ মেয়ে, নাতি-নাতনিসহ অনেক গুনগ্রাহী রেখে যান। গত ১৯ জুন দুপুরে তাকে তার নিজ বাড়ীর নিজের তৈরি মন্দিরে সমাহিত করা হয়।
কবিয়াল বিভুতি ভূষন নাথ ১৯৩৪ সালের ৪ এপ্রিল উপজেলার দক্ষিণ গাছবাড়ীয়া নাথ পাড়ায় জন্ম গ্রহন করেন। তিনি জগনাথ কবিরাজের একমাত্র সন্তান ছিলেন। বিভুতি ভূষন নাথ বাংলাদেশ বেতার ও টেলিভিশনের তালিকাভুক্ত লোকজ শিল্পী হিসেবে তালিকাভুক্ত ছিলেন। তিনি কবি গানের জন্য সরকারি- বেসরকারি ও জাতীয়ভাবে একাধিকবার পুরস্কৃত হয়েছিলেন। ১৯৬৭ সালে লোককবি হিসেবে বাংলাদেশ বেতারে তালিকাভুক্ত হওয়ার পাশাপাশি ৬ দফা আন্দোলন, বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ চলাকালীন রেসকোর্স ময়দানে বিভিন্ন সময়ে কবিগান লিখে ও গেয়ে উৎসাহিত করেছিলেন সাধারণ মানুষকে। তিনি প্রয়াত কবি আহমদ ছফাকে নিয়ে কবিগান লেখার কারণে কবি তাকে নিয়ে “সূর্য্য তিনি সাথী” গ্রন্থে কবিয়াল বিভুতি ভূষন নাথকে নিয়ে কবিতা লিখেছেন। তিনি একজন ধর্মীয় অনুভূতি সম্পন্ন মানুষ হিসেবে তার নিজ বাড়ীতে একটি গীতা প্রশিক্ষণ কেন্দ্র, গীতা আশ্রম, লোকনাথ মন্দির, কৃঞ্চ মন্দির, সাধু সন্ন্যাসী, বৈঞ্চব ও কৃঞ্চ ভক্তবৃন্দের একান্ত মিলন কেন্দ্র হিসেবে শান্তি নিকেতন প্রতিষ্ঠা করেন। পাশাপাশি একটি কবিরাজী ঔষুধালয় প্রতিষ্টা করে নিজেই ঔষধ তৈরি ও রোগীদের চিকিৎসা সেবা দিয়ে গেছেন। তিনি দাদন ব্যবসার সাথে জড়িত ছিলেন। তার আশ্রয়ন কেন্দ্রে প্রতি শুক্রবার ৫ শতাধিক অনাথ শিশুদের গীতা শিক্ষার পাশাপাশি দুপুরে একবেলা খাবার দিতেন। তার লেখা লোক সংগীত রমেশ শীল, কালা মিয়া, শেফালী ঘোষ, শ্যাম সুন্দর বৈঞ্চবসহ অনেকে পরিবেশন করেছেন। তিনি মুক্তিযুদ্ধ চলাকালীন মুক্তিযোদ্ধাদের খাবার, রসত সরবরাহ করার পাশাপাশি কবিরাজী চিকিৎসা দিয়ে গেছেন। ২০১৪ সালের ২’শ জন তীর্থ যাত্রীদের বাংলাদেশের চন্দ্র নাথ মন্দির, সিলেট, ঢাকেশ্বরী মন্দিরসহ বিভিন্ন ধর্মীয় স্থান পরিভ্রমন করার পাশাপাশি ৩ জনকে নিজ খরচে ভারতে চিকিৎসা সেবা দেয়াসহ তীর্থ স্থান পরিভ্রমন করান। তার একমাত্র ছেলে সিএফএল’র ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজার হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। সে তার পিতার আদেশ মতে এসকল কার্যক্রম চালিয়ে যাবেন বলে জানিয়েছেন। আগামী ২৮ জুন তার গ্রামের বাড়ীতে শেষকৃত্যা অনুষ্টানের আয়োজন করা হবে।
আগামী ২৭ জুন স্থানীয় অরুন উদয় সংঘের উদ্যাগে এক স্মরণ সভার আয়োজন করা হবে বলে সংগঠনের পক্ষ থেকে জানিয়েছেন। তার মৃত্যুতে চন্দনাইশ প্রেস ক্লাবের সভাপতি এড.মো. দেলোয়ার হোসেন, সাধারণ সম্পাদক মো. এরশাদ, চন্দনাইশ সংগীত নিকেতনের সভাপতি ডা. অসীম বড়–য়া, সাধারণ সম্পাদক এড.মো. দেলোয়ার হোসেনসহ নেতৃবৃন্দ গভীর শোক প্রকাশ করেছেন। (ছবি আছে)

খবরটি শেয়ার করুন..

এ জাতীয় আরো খবর..
কপিরাইট © ২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | দৈনিক দেশ বার্তা
Theme Customized By TeqmoBD