1. bappy.ador@yahoo.com : admin :
  2. salehbinmonir@gmail.com : News Editor : News Editor
নেত্রকোণা জেলায় যুবলীগের সভাপতি হিসাবে দেখতে চায় অরুনকে - DeshBarta
মঙ্গলবার, ২৭ জুলাই ২০২১, ০৫:২৯ পূর্বাহ্ন
শিরোনামঃ
“সেইভ দ্যা হাঙ্গার পিপল” সংগঠন এর অভুক্তদের মাঝে খাবার বিতরণ সমাজসেবক আবদুল মাবুদ দোভাষের মৃত্যুতে শোক প্রকাশ সাংবাদিক মাতা ছৈয়দা রোকসানা কাউসারের নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত ছাত্রীকে বিয়ে করে গোপন রাখায় ৩ সন্তানের জনক শিক্ষক কে গণধোলাই কুয়াকাটায় হোটেলে মাদকসহ আটক দুমকির আওয়ামীলীগ নেতাকে বহিষ্কার দুমকিতে করোনায় ক্ষতিগ্রস্ত ক্ষুদ্র উদ্যোক্তাদের মধ্যে বিআরডিবির ঋণ বিতরণের উদ্বোধন ভাষা সৈনিক ও চমেক সাবেক উপ-পরিচালক ডা. শামসুদ্দিন চৌধুরী আর নেই ডাঃ এ,জে,এম শামসুদ্দিন চৌধুরীর দাফনে গাউসিয়া কমিটি স্বেচ্ছাসেবক টিম কোরআন ও হাদিসের আলোকে ইসলামী দাওয়াত এর গুরুত্ব! হাফিজ মাছুম আহমদ দুধরচকী। সহকারী কমিশনার (ভূমি) পদে যোগদান করলেন কক্সবাজারের কৃতি সন্তান মো.মিজানুর রহমান

নেত্রকোণা জেলায় যুবলীগের সভাপতি হিসাবে দেখতে চায় অরুনকে

  • সময় বৃহস্পতিবার, ১৫ জুলাই, ২০২১
  • ৩৯৬ পঠিত

মোঃ ইদু খান স্টাফ রিপোর্টারঃ

নেত্রকোণা জেলার কেন্দুয়া উপজেলার দলপা ইউনিয়নের দৈলা গ্রামের এক সম্ভ্রান্ত ও আওয়ামী পরিবারের সন্তান এ.কে.এম আজহারুল ইসলাম (অরুন)।

তার পিতার নাম বীর মুক্তিযোদ্ধা জনাব নজরুল ইসলাম।তিনি দীর্ঘ দিন যাবত সোনালী ব্যাংকের ম্যানেজার পদে কর্মরত ছিলেন, বর্তমানে তিনি অবসর প্রাপ্ত।

এ.কে.এম আজহারুল ইসলাম অরুন নেত্রকোণা জেলা ছাত্রলীগের সাবেক ত্যাগী ছাত্রনেতা ছিলেন,বর্তমানে তিনি জেলা আওয়ামী যুবলীগের সভাপতি পদপ্রার্থী। অরুনের শৈশব থেকে বেড়ে ওঠেন নেত্রকোনা সদর উপজেলার পৌরসভা এলাকায়।

নেত্রকোণা জেলার প্রতিটি উপজেলার রাজনৈতিক অঙ্গনের সু-পরিচিতমুখ এবং আর্দশ,নমনীয়,বিনয়ী অবস্থান অনুযায়ীর ব্যক্তিত্ব জনাব এ.কে.এম আজহারুল ইসলাম(অরুন)।

তিনি পারিবারিকভাবে এক জ্ঞান ও বহুগুনের স্বয়ং সম্পন্ন ব্যক্তিত্বের অধিকারী মহামানুষ বলে তরুণ বয়সেই জেলার অবহেলিত মানুষের সঙ্গে বন্ধু সূলভ আচারণে নিরলস মানসিকতার স্বচ্ছমুখ হিসেবে দিনদিন মানুষের মুখোমুখি হয়ে এগিয়ে চলছে। এমনকি জেলা শহরেই জন্মসূত্রে হিসেবে গড়ে উঠায় তাঁর রাজনৈতিক জীবনের পথচলা।

তিনি নেত্রকোণা আঞ্জুমান আর্দশ উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ১৯৯৫ সালে “বিজ্ঞান শাখায়” এস.এস.সি ও নেত্রকোণা সরকারী কলেজ থেকে ১৯৯৭ সালে এইচ.এস.সি” বিজ্ঞান শাখায়”পাস করেন,তারপর উচ্চশিক্ষা লাভের জন্য শিক্ষানগরী খ্যাত ময়মনসিংহ সরকারী আনন্দ মোহন কলেজ থেকে অনার্স ও মাস্টার্স ডিগ্রী অর্জন করেন তিনি।

তার পড়াশুনা ও ছাত্ররাজনীতি পটভূমি, ৯৬ সালের অসহযোগ আন্দোলনের অসমাপ্ত নেতৃত্ব,২০০১ সালের পর স্ব-রাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী বাবর এঁর মামলার নির্যাতন,১/১১এর দেশরত্ন শেখ হাসিনার মুক্তি আন্দোলনের অসমাপ্ত নেতৃত্বে, ২০০৬ সালের তত্বাবধায়ক সরকারের আন্দোলনসহ বিশেষ অবদান রেখে তিনি আজও রাজপথে রয়েছেন।

শিক্ষাজীবনে নেত্রকোণা জেলা আওয়ামী লীগ শাখার সফল সাধারণ সম্পাদক,মাননীয় সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী,বীর মুক্তিযোদ্ধা জনাব আশরাফ আলী খান (খসরু) এমপি মহোদয় ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বাবু প্রশান্ত রায়ের হাত ধরেই তার রাজনীতিতে হাতেখড়ি।

শিক্ষা,শান্তি, প্রগতি এই স্লোগানের পতাকাবাহি প্রধান সংগঠন বাংলাদেশ ছাত্রলীগ শাখায় জেলা শহরের রাজপথ থেকে শুরু হয় তার ছাত্ররাজনীতির পথচলা। অল্পদিনেই দূর্বার গতিতে জনপ্রিয়ভাবে গড়ে উঠে জনাব এ.কে.এম আজহারুল ইসলাম (অরুন)। তার রাজনৈতিক পরিচয় ও একজন সমাজ সেবক এবং তরুণদের হৃদয়ের স্পন্দনের মুখপাত্র হয়ে রয়েছেন তিনি।

এরই পাশাপাশি ময়মনসিংহ ও সেন্ট্রাল রাজনীতিতে নিজের প্রচেষ্ঠায় এগিয়ে চলে এ.কে.এম আজহারুল ইসলাম অরুন।

তারপর বাবার রাজনীতি ও আদর্শকে অনুশীলন করে,যুবসমাজের তারুণ্য উদীয়মান হিসেবে সদর উপজেলায় পৌর সভায় বীর মুক্তিযোদ্ধা সন্তান কমান্ডার কমিটির সভাপতি নির্বাচিত হয়। তখন থেকে তার মনের মধ্যে রাজনীতির প্রসার বেড়ে উঠে আরো।।

বিভিন্ন উপজেলা ও জেলার জনগণের মাঝেও বিভিন্ন মিছিল জনসভায় শক্তিমান সু-বক্তা,স্বচ্ছমুখ হয়ে জাগ্রত হয়ে উঠেন তিনি। তাছাড়াও একজন জেলার স্বনামধন্য প্রথম শ্রেণী ঠিকাদার হয়ে দেশও প্রতিটি উপজেলায় ভালো মানের ব্যবসায়ী হিসেবে পরিচিত তিনি। এরপরই বাংলাদেশ ট্রাক ও কাভার্ড ভ্যান মালিক সমিতির নেত্রকোণা জেলা শাখার সভাপতি দায়িত্বে গ্রহণ করার পথেও মালিক সমিতির শ্রমিক ভাই-বোনদের মাঝে আরো ব্যাপকভাবে সুনাম বয়ে অানেন জেলা আওয়ামী যুবলীগের সভাপতি পদপ্রার্থী এ.কে.এম আজহারুল ইসলাম অরুন। ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক বিশাল সহযোগিতায় এবং অংশগ্রহণ করার মধো দিয়েই নেত্রকোণা জেলা উশু এসোসিয়েশন কমিটির সম্মানিত সদস্যপদ লাভ করে,
যুবসমাজ,শিক্ষার্থীদের আত্মরক্ষার
সহায়তায় করে যাচ্ছেন বলে জেলায় সুনাম রয়েছে। এরই ধারাবাহিতায় মধ্য দিয়ে জনতার মাঝে ভেসে উঠে অরুন নামের হাস্যউজ্জ্বল ও নিরলস মনের কান্ডারি। সর্বস্তরের আপামর অবহেলিত জনগণের, ইউনিয়ন,উপজেলা ও জেলার নেতাকর্মীদের নিয়ে নিজ উদ্যোগে বাংলাদেশ আরেকটি বিপ্লবী বিচরণ করেন নৌকার টিম প্রতিষ্ঠাতা করে নেত্রকোণা শহরে। যা সারাবাংলায় পেপার,চ্যানেল টিভির পর্দায় ও সংবাদে আবারো ভেসে উঠে জেলার আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দের একান্ত সহায়তায় এ.কে.এম আজহারুল ইসলাম (অরুন) এর নিজ হাতে গড়া নৌকার টিম নামের বিশাল একটি সংগঠন। তিনি বিভিন্ন সামাজিক উন্নয়নের সংগঠন ও রাজনৈতিক অঙ্গনের অর্জন ছাড়াও চলমান সময়ে দারিদ্র্য শিক্ষার্থীদের মাঝে অতুলনীয় অবদান অব্যাহত রেখে যাচ্ছেন তার নিজ প্রয়াসে।।

নেত্রকোণা সদর উপজেলা পৌর সভায় মুক্তিযোদ্ধার সন্তান কমান্ডার সংগঠনের নির্বাচিত সভাপতি, নেত্রকোণা রেডক্রিসেন্ট এসোসিয়েশনের আজীবন সদস্য,নেত্রকোণা রাইফেলস ক্লাবের
আজীবন সদস্য,জেলা ক্রীড়া সংস্থার যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক, কেন্দ্রীয় জামে মসজিদের সদস্য,বাংলাদেশ ফুটবল উন্নয়ন সমিতির জেলা শাখার সভাপতি ও ক্রীড়া সংস্থার যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক, কমিউনিটি পুলিশ পৌর শাখার সদস্য সচিব,সংস্কৃতিকে লালন না করলেও এক অন্ধভক্ত শ্রোতা হিসেবে জেলা শিল্পকলা একাডেমীর আজীবন সদস্য নির্বাচিত হয় এ.কে.এম আজহারুল ইসলাম (অরুন)।

রাজনীতি জীবনে ও সামাজিক বিভিন্ন উন্নয়ন সংগঠনের সাথে সু-দক্ষ একজন সৎ মানুষ হিসেবে বিবেচিত রয়েছেন জনগণের মুখে। তারই পাশাপাশি বিভিন্ন পেশায় মেধায় আলোয় আলোকিত সামাজিক উন্নয়ন বিচরণ ও পরির্বতনের সাথে আওয়ামী লীগের রাজনৈতিক অঙ্গনে উপজেলা ও ইউনিয়ন জুড়ে যার রয়েছে সুদীর্ঘ পথচলা। জনকল্যাণের জন্য ও অবহেলিত মানুষের মুক্তির স্লোগানে বলেন, আমি নেত্রকোণা সন্তান হয়ে দায়িত্বে কর্তব্যের জন্য শাসক থাকতে চাই না,আমি অবহেলিত
ছাত্রলীগ,যুবলীগ,আওয়ামী লীগের এবং সর্বস্তরের মানুষের মুক্তির কল্যাণে সেবক হয়ে থাকতে চাই,ইনশাআল্লাহ। দেশ ও নেত্রকোণাবাসীর নিকট দোয়া প্রার্থী।

ছাত্রলীগ, যুবলীগ, আওয়ামীলীগ, প্রায় অনেকেরই ফেসবুক প্রোফাইল থেকে একি আওয়াজ, এ.কে.এম আজহারুল ইসলাম (অরুনকে) নেত্রকোণা জেলার যুবলীগের সভাপতি হিসাবে দেখতে চাই।

লেখকঃ আমিরুল ইসলাম

খবরটি শেয়ার করুন..

এ জাতীয় আরো খবর..
কপিরাইট © ২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | দৈনিক দেশ বার্তা
Theme Customized By TeqmoBD