1. bappy.ador@yahoo.com : admin :
  2. salehbinmonir@gmail.com : News Editor : News Editor
পটুয়াখালীর লাউকাঠীতে মাদ্রাসা ছাত্রকে হাত পা বেঁধে নির্যাতন ও মেরে ফেলার হুমকির অভিযোগ। - DeshBarta
রবিবার, ২৬ জুন ২০২২, ১০:৫২ পূর্বাহ্ন
শিরোনামঃ
পদ্মার উত্তাল ঢেউ কর্ণফুলীর তীর চট্টগ্রামেও হবিগঞ্জ বানিয়াচংয়ে পদ্মাসেতুর উদ্বোধন উপলক্ষে থানা পুলিশের আনন্দ শোভাযাত্রা। পদ্মা সেতুতে প্রথম টোল দিলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। কবিতাঃ পদ্মা সেতু -লায়ন এম এ ছালেহ্ মাইজভান্ডারী গাউসিয়া হক কমিটি সূর্যগিরি আশ্রম শাখার উদ্যোগে বৃক্ষরোপণ ও বস্ত্র বিতরণ শুভ জন্মদিন ফুটবলের জীবন্ত কিংবদন্তি জিদান জীবনানন্দ দাশকে নিয়ে চলচ্চিত্র ‘ঝরা পালক’ মুক্তি পেল পদ্মা সেতু উদ্বোধন উপলক্ষে চন্দনাইশ থানা পুলিশের র‍্যালি পদ্মা সেতু ও জাতীয় অর্থনীতিতে প্রবাসীদের অবদান” শীর্ষক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত। করোনা বৃদ্ধি পাওয়ায় শিক্ষার্থীদের মাঝে পটিয়া শ্রমিকলীগ সভাপতি সামশুল ইসলাম’র মাক্স বিতরন

পটুয়াখালীর লাউকাঠীতে মাদ্রাসা ছাত্রকে হাত পা বেঁধে নির্যাতন ও মেরে ফেলার হুমকির অভিযোগ।

  • সময় সোমবার, ১৮ অক্টোবর, ২০২১
  • ৬৮ পঠিত

এস আল-আমিন খাঁন, বরিশাল ব্যুরো

পটুয়াখালী সদর উপজেলার ১ নং লাউকাঠী ইউনিয়নের শ্রীরামপুর গ্রামে জমি জমার বিরোধের জের ধরে বসত ঘরে হামলা ভাংচুর চালিয়ে সজিব নামের এক মাদ্রাসা পড়ুয়া ছাত্রকে ঘরে থেকে জোর পুর্বক ধরে নিয়ে হাত পা বেঁধে রেখে শারিরীক নির্যাতন করে গলায় বটি ধরে মেরে ফেলার হুমকি সহ এক নারীকে মারধরের অভিযোগ উঠেছে প্রতিপক্ষ রাসেল হাওলাদার (২২), পিতাঃ জাকির হাওলাদার এর বিরুদ্ধে।অভিযোগকারী হলেন, ফিরোজা বেগম (৩৩), স্বামীঃ নাসির হাওলাদার। গত রবিবার (১৭-অক্টোবর-২১ ইং) তারিখ আনুমানিক বিকেল ৫.০০ টার সময় ঘটনাটি ঘটে।

অভিযোগ অনুসন্ধানে সরেজমিনে গিয়ে জানাগেছে, একই বাড়ির বাসিন্দা প্রতিপক্ষ জাকির হাওলাদার ও নাসির হাওলাদার এর সঙ্গে জমিজমা নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলছে ।গত বরিবার তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে প্রতিপক্ষ জাকির হাওলাদার (৪৬), রাসেল হাওলাদার (২২), রোজিনা (২৫), শাহিদা বেগম (৪০) একত্রিত হয়ে বসতঘর ভাংচুর করে। এছাড়াও অভিযোগকারী ফিরোজা বেগম প্রতিবেদককে আরও বলেন, তার বড় ছেলে রাজিব (২০), কে প্রতিপক্ষ রাসেল হাওলাদার পথরোধ করে মারধর করে। এসময় ছেলেকে রক্ষা করতে গেলে তাকেও মারধর করে এবং কাপড় চোপড় টেনে হিঁচড়ে লজ্জাশ্লীতাহানি ঘটায়।ঘটনার সময় উপস্থিত স্থানীয় লোকজন তাকে রক্ষা করে এবং বাজারে নিয়ে স্থানীয় চিকিৎসক দিয়ে চিকিৎসা প্রদান করা হয়। এসময় মারধরকারী রাসেল ও প্রতিপক্ষ সকলে মিলে তার ছোট ছেলে মাদ্রাসার ছাত্র সজিবকে একা পেয়ে ঘর থেকে টেনে হিঁচড়ে নিয়ে গিয়ে তাদের ঘরের মধ্যে দড়ি দিয়ে হাত পা বেঁধে রেখে শারিরীক নির্যাতন চালায় এবং গলায় বটি ধরে মেরে ফেলার ভয়ভীতি দেখায়।তার ডাকচিৎকারে আশে পাশের লোকজন ছুটে এসে গ্রাম পুলিশকে খবর জানালে গ্রাম পুলিশ আব্দুল জব্বার এসে সজিব কে হাত পা বাঁধা আহত অবস্থায় উদ্ধার করে এবং বেঁধে রাখার দড়ি জব্দ করেন।এছাড়াও রাসেল হাওলাদার এর বিরুদ্ধে মাদক ও বিভিন্ন অপকর্মের সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগ করা হয়েছে তার পিতা মাদক সেবন করে বলে স্থানীয় সুত্রে জানাগেছে।এঘটনায় সজিবের মা ফিরোজা বেগম থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন।

এবিষয়ে গ্রাম পুলিশ আব্দুল জব্বার ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন।এসময় উপস্থিত সুলতান চৌকিদার, পুতুল বেগম সহ আরও অনেকে এই নির্যাতনের চিত্র নিজ চোখে দেখতে পেয়েছেন বলে মিডিয়াকে বলেন।

এনিয়ে অভিযুক্ত ব্যাক্তিদের বক্তব্য জানতে চাইলে অভিযোগ অস্বীকার করে রাসেল ও জাকির হাওলাদার বলেন, সজিব বটি নিয়ে আমাদের ঘরে আসলে আমরা তাকে বেঁধে রেখেছি তবে মারধর করিনি।এছাড়াও রোজিনা বেগম ভাংচুর ও বেঁধে রাখার ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেন।

এব্যাপারে লাউকাঠী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শহিদুল ইসলাম (খোকন) বলেন, এই দুই পরিবারের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে ঝামেলা চলছে।গত কালের ঘটনা ও আমি শুনেছি উভয় পক্ষকে ডেকে মিমাংসা করার চেষ্টা করা হবে বলে জানান।

খবরটি শেয়ার করুন..

এ জাতীয় আরো খবর..
কপিরাইট © ২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | দৈনিক দেশ বার্তা
Theme Customized By TeqmoBD