1. bappy.ador@yahoo.com : admin :
  2. salehbinmonir@gmail.com : News Editor : News Editor
দুমকিতে মাঠ জুড়ে সবুজের সমারোহ - আগাম জাতের ধান কাঁটা শুরু। - DeshBarta
শনিবার, ২৫ জুন ২০২২, ০৫:৫৪ অপরাহ্ন
শিরোনামঃ
বঞ্চিত নারী ও শিশু অধিকার ফাউন্ডেশনের পক্ষ থেকে হতদরিদ্র মেয়ের বিবাহের জন্য আর্থিক সহায়তা প্রদান। চট্টগ্রাম নগরীতে ভেজাল সয়াবিন তৈল বোতলজাত করন। ১ ব্যবসায়ী গ্রেফতার। কক্সবাজারে চলন্ত বাসে রোহিঙ্গা তরুণী ধর্ষণ চেষ্টা মামলার ২ আসামী গ্রেফতার। চরখিজিরপুর ইউনিয়ন আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের কমিটি অনুমোদন হবিগঞ্জের বানিয়াচং থানা পুলিশের অভিযানে ৮কেজি গাঁজাসহ মহিলা ব্যাবসায়ী গ্রেফতার। নেত্রকোণা ৪ বন্যার্তদের পাশে আওয়ামীলীগ নেতা জনাব শফি আহম্মদ কাতারে সড়ক দুর্ঘটনায় দুই বাংলাদেশির মৃত্যু উগ্রবাদ প্রতিহতে নাগরিকদের সচেতনতা বৃদ্ধিকরণে নাগরিক প্রশিক্ষণ বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ৭৩তম প্রতিষ্টা বার্ষিকী উপলক্ষে পটিয়া উপজেলা আ,লীগের সভা আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে বঙ্গবন্ধুর প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন প্রধানমন্ত্রীর

দুমকিতে মাঠ জুড়ে সবুজের সমারোহ – আগাম জাতের ধান কাঁটা শুরু।

  • সময় মঙ্গলবার, ২৩ নভেম্বর, ২০২১
  • ৪৯ পঠিত

মোঃ জাহিদুল ইসলাম, দুমকি পটুয়াখালী প্রতিনিধি : সারা মাঠ জুড়ে সবুজের সমারোহ। কৃষকের দু’ চোখ ভরা সবুজ স্বপ্ন। যতদুর দৃষ্টি যায় শুধু সবুজ আমনের ক্ষেতে বাতাসে দোল খাচ্ছে।প্রতিটি ক্ষেত এখন পরিপূর্ন নব যৌবনে হাতছানি দিয়ে ডাকছে কৃষকদের। ভালো ফলনের আশায় কৃষকের মুখে হাসি ফুটেছে। দক্ষিনাঞ্চলের অন্যতম নদী বিধৌত এবং কৃষি সমৃদ্ধ পটুয়াখালীর দুমকি উপজেলার বিস্তীর্ণ এলাকার মাঠে মাঠে সবুজ আমনের ক্ষেতে দোল খেয়ে যায় হেমন্তের শীতল বাতাস। আবার কোথাও কোথাও উচ্চ ফলনশীল ও স্হানীয় জাতের ধান পেঁকে সোনালী আকার ধারন করেছে। কৃষকরা মহা আনন্দে ধান কাটায় ব্যস্ত হয়ে পড়েছে। চলতি আমন মৌসুমে বাম্পার ফলনের আশা করছেন এ উপজেলার কৃষকরা। উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মেহের মালিকা জানান, চলতি আমন মৌসুমে ৬৬৩০ হেক্টর জমিতে আমন আবাদের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছিল। আবাদ হয়েছে ৬৬৪০ হেক্টর জমিতে। এর মধ্যে উচ্চ ফলনশীল জাতের ধান চাষ হয়েছে ২৪৯৫ হেক্টর জমিতে এবং স্হানীয় জাতের ধান চাষ হয়েছে ৪১৪৫ হেক্টর জমিতে। উচ্চ ফলনশীল জাতের মধ্যে ব্রিধান-৫২, ব্রিধান-৭৩, ব্রিধান-৭৬, ব্রিধান-৮৭ উল্লেখযোগ্য। তিনি আরো বলেন, ইউনিয়ন পরিষদের মাধ্যমে পোকা নিধনের নির্দেশনা সংবলিত লিপলেট বিতরণসহ কৃষকদের নিয়মিত পরামর্শ ও তদারকি করা হয়েছে। উপজেলার শ্রীরামপুর ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ডের কোহার জোড়ের কৃষক আবু হানিফ জানান, তিনি ৪৪ শতাংশ জমিতে উচ্চ ফলনশীল জাতের ব্রিধান- ৫২, স্হানীয় জাতের স্বর্ন-গোডা- ৫০ শতাংশ ও ৮০ শতাংশ দেশী মোটা ধানের চাষ করেছেন। এর মধ্যে ব্রিধান-৫২ আজ কাটা শুরু করেছেন, ফলন খুব ভাল হয়েছে। তবে ইঁদুরে কিছুটা বিনষ্ট করেছে। প্রতি শতাংশে ২৫-৩০ কেজি ফলন পাবে বলে আশা প্রকাশ করেছেন। মুরাদিয়া ইউনিয়নের ৬নং ওয়ার্ডের কৃষক কালাম চৌকিদার জানান, এ বছর আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় আমনের ফলন খুব ভালো, তারা খুবই খুশি। সরেজমিনে ঘুরে দেখা গেছে, উপজেলার পাঙ্গাশিয়া, লেবুখালী, আঙ্গারিয়া, মুরাদিয়া ও শ্রীরামপুর ইউনিয়নসহ উপজেলার সকল মাঠের ফলন ভালো হয়েছে এবং কৃষকরা খুশি।

খবরটি শেয়ার করুন..

এ জাতীয় আরো খবর..
কপিরাইট © ২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | দৈনিক দেশ বার্তা
Theme Customized By TeqmoBD