1. bappy.ador@yahoo.com : admin :
  2. salehbinmonir@gmail.com : News Editor : News Editor
কক্সবাজারের ডিসিকে হাইকোর্টে তলব: সাড়ে ৩ কোটি টাকা - DeshBarta
বৃহস্পতিবার, ০৬ অক্টোবর ২০২২, ১১:০২ পূর্বাহ্ন
শিরোনামঃ
রাঙ্গুনিয়া শান্তিনিকেতনে সরকারী রাস্তায় গৃহ নির্মাণ যাতায়াতে বিঘ্নতা : রাস্তা পুনরুদ্ধার দাবী চকরিয়ার বরইতলীতে শারদীয় দুর্গোৎসব পরিদর্শন করেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক নির্বাচন কমিশনের সাথে ইলেকশন মনিটরিং ফোরাম (ইএমএফ)’র মতবিনিময় জামালপুর শহরে পৌরসভার নামে অটোতে চাদাঁবাজি কালে দুই যুবক আটক জামালপুর জেলায় প্রাথমিক শিক্ষায় বিশেষ অবদানের জন‍্য শ্রেষ্ঠ ইউএনও নির্বাচিত তানভীর হাসান রুমান। পীরগঞ্জে পাওনা টাকা চাইতে যাওয়ায় বৃদ্ধকে প্রহার. লক্ষাধিক টাকা মূল্যের গাছ বিক্রি করে আত্মসাৎ করলেন প্রধান শিক্ষক মোহাম্মদ আলী রাজু মাঠের বাজার আবু বক্কর ফাজিল মাদ্রাসার অধ্যক্ষের নানা দুর্নীতি বিদ্যুৎ বিভ্রাট নিয়ে ফেসবুকে সমালোচনা করায় প্রবাসীর স্ত্রী গ্রেফতার মানুষ বিশ্বাস ঘাতক, পশু পাখিরা কখনো বিশ্বাস ঘাতকতা করবেনাঃ বিশ্ব প্রাণী দিবসের কর্মসূচীতে বক্তারা

কক্সবাজারের ডিসিকে হাইকোর্টে তলব: সাড়ে ৩ কোটি টাকা

  • সময় বুধবার, ৮ ডিসেম্বর, ২০২১
  • ৫১ পঠিত

ইঞ্জিনিয়ার হাফিজুর রহমান খান, স্টাফ রিপোর্টারঃ ২০১৯ সালে কক্সবাজারের বিমানবন্দরের জন্য জমি অধিগ্রহণ করা হয়। এর মধ্যে সেখানের বাসিন্দা মুক্তিযোদ্ধা মাহবুবুর রহমানের ১৫ শতক জমিও ছিল, যার দাম ছিল প্রায় সাড়ে ৩ কোটি টাকা। সেই ক্ষতিপূরণের টাকা বুঝে না পাওয়ায় জেলা প্রশাসক বরাবর একটি আবেদন দেন মাহবুবুর। কিন্তু সেই আবেদনের নিষ্পত্তি করেননি তিনি। এই ঘটনায় জেলা প্রশাসককে সশরীরে হাজির হয়ে ব্যাখ্যা দিতে বলা হয়েছে ৷ আদালতের আদেশ উপেক্ষা করায় কক্সবাজারের জেলা প্রশাসক মামুনুর রশীদকে তলব করেছে হাইকোর্ট।

আগামী ১৩ ডিসেম্বর সকাল সাড়ে ১০টায় ডিসিকে মামলার নথি আদালতে সশরীরে উপস্থিত হয়ে ব্যাখ্যা দিতে বলা হয়েছে। এ সংক্রান্ত এক আবেদনের প্রেক্ষিতে বুধবার বিচারপতি মামনুন রহমান ও বিচারপতি খোন্দকার দিলীরুজ্জামানের হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেয়। আদালতে আবেদনের পক্ষে ছিলেন আঞ্জুমান আরা লীমা, রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল অমিত দাশ গুপ্ত।

আইনজীবী লীমা সাংবাদিকদের জানান, ২০১৯ সালে কক্সবাজারের বিমানবন্দরের জন্য জমি অধিগ্রহণ করা হয়। এর মধ্যে সেখানের বাসিন্দা মুক্তিযোদ্ধা মাহবুবুর রহমানের ১৫ শতক জমিও ছিল, যার দাম ছিল প্রায় সাড়ে ৩ কোটি টাকা।

সেই ক্ষতিপূরণের টাকা বুঝে না পাওয়ায় জেলা প্রশাসক বরাবর একটি আবেদন দেন মাহবুবুর। আবেদনটি নিষ্পত্তি না করায় হাইকোর্টে রিট করা হয়। শুনানিকালে কক্সবাজারের জেলা প্রশাসকের লিখিত ব্যাখ্যা চায় আদালত। কিন্তু রাষ্ট্রপক্ষ থেকে কয়েকবার যোগাযোগ করলেও জেলা প্রশাসকের সাড়া মেলেনি। এরপর বিষয়টি আদালতের নজরে আনেন আইনজীবীরা।

আদালত এই আবেদনের শুনানি নিয়ে আদালত জেলা প্রশাসককে হাজির হতে নির্দেশ দেয় বলে জানান আইনজীবী লীমা। জানান, আগামী ১৩ ডিসেম্বর তাকে আদালতে হাজির হয়ে ক্ষতিপূরণের টাকা না দেয়ার বিষয়ে ব্যাখ্যা দিতে হবে ৷

খবরটি শেয়ার করুন..

এ জাতীয় আরো খবর..
কপিরাইট © ২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | দৈনিক দেশ বার্তা
Theme Customized By TeqmoBD