1. bappy.ador@yahoo.com : admin :
  2. salehbinmonir@gmail.com : News Editor : News Editor
সাংবাদিক সন্মেলনে ভুক্তভোগী পটিয়ায় জাল দলিল সৃজন করে ফসল নষ্ট করার অভিযোগ - DeshBarta
বৃহস্পতিবার, ৩০ জুন ২০২২, ০৫:০৪ অপরাহ্ন
শিরোনামঃ
জোবায়েত হাসান পটিয়া উপজেলা ছাত্রলীগের কমিটিতে যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মনোনীত রাউজানে কারিগরি ও বৃত্তিমূলক শিক্ষা সপ্তাহ ‘২২ উপলক্ষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত সুনামগঞ্জে বন‍্যাদুর্গতদের মাঝে বঞ্চিত নারী ও শিশু অধিকার ফাউন্ডেশনের ত্রাণ বিতরণ মলম পার্টির খপ্পরে পড়ে সর্বস্বান্ত কাতার প্রবাসী। চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির জরুরী সভায় আবুল হাশেম বক্কর। দুমকিতে আওয়ামীলীগের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী ও আনন্দ মিছিল ২১ খালের ও ১১ প্রকল্প নিয়ে চসিক মেয়রের মন্তব্য। নেত্রকোণা জেলা ছাত্রলীগের পক্ষ থেকে খালিয়াজুরীতে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ চন্দনাইশে ক্ষুদ্র প্রান্তিক কৃষকদের মাঝে বীজ-সার বিতরণ চন্দনাইশে মাদকের অপব্যবহার ও পাচাররোধে র‌্যালী-আলোচনা সভা

সাংবাদিক সন্মেলনে ভুক্তভোগী পটিয়ায় জাল দলিল সৃজন করে ফসল নষ্ট করার অভিযোগ

  • সময় বুধবার, ২৬ জানুয়ারী, ২০২২
  • ৫৫ পঠিত

পটিয়া (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি:-চট্টগ্রামের পটিয়ায় জাল দলিল সৃজন করে নিরীহ একব্যক্তির ফসল নষ্ট করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। উপজেলার শোভনদন্ডী ইউনিয়নের রশিদাবাদ গ্রামের নিরীহ মোহাম্মদ আশেকের ফসলি জমি একটি প্রভাবশালী মহল জোরপূর্বক দখল করে নিয়েছে। এ ঘটনায় তিনি অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে ও পটিয়া যুগ্ম জেলা জজ আদালতে ২টি মামলা দায়ে করেছেন। মামলা চলমান থাকা অবস্থায় একই এলাকার প্রতিবেশী সাইফুল করিম চৌধুরীর পুত্র রেজাউল করিম চৌধুরী প্রকাশ বাবুল ভুয়া খতিয়ান সৃজন করে ১৪ শতক জায়গার কচু ক্ষেত ট্রাক্টর দিয়ে নষ্ট করে দিয়েছেন। এতে কৃষকের প্রায় ২ লাখ টাকার ক্ষতি হয়েছে। এ ব্যাপারে ভুক্তভোগী ২৬ জানুয়ারি বুধবার দুপুরে পটিয়ায় একটি রেস্টুরেন্টেে সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে কৃষকের পরিবার এ অভিযোগ করেন।
জানা গেছে, কৃষক পরিবারের পৈত্রিক সম্পত্তি উপজেলার রশিদাবাদ গ্রামের বাবুল নামের একব্যক্তি ভুয়া খতিয়ান সৃজন করে। বিএস নামজারী খতিয়ান নং ১১৮৯। ১৯৮৮ সালের ২৪ জানুয়ারি জাল দলিল (নং-৯১৮৮) সৃজন করে। ওই দলিলে গ্রহীতা দেখানো হয়েছে উপজেলার কুসুমপুরা ইউনিয়নের হরিণখাইন গ্রামের আবু তালেকসহ দুইজন। এর মধ্যে হাছি মিয়া নামক ব্যক্তির জায়গা ক্রয় করে ১৮৮ নং দলিল সম্পাদন করা হয়। জাল দলিল সৃজনের বিষয়ে কৃষক পরিবারের পক্ষ থেকে পটিয়া সহকারী কমিশনার (ভুমি) বরাবরে একটি আপত্তি জানানো হয়। যা বর্তমানে চলমান রয়েছে।
কৃষক মোহাম্মদ আশেক জানিয়েছেন, তার দাদা মাওলানা খলিলুর রহমান ১৯৭৫ সালে ১০৫ বছর বয়সে মারা যান। অথচ জাল দলিল সৃজন করা হয়েছে ১৯৮৮ সনে। এরপর তাদের দখলীয় জায়গা জোরপূর্বক দখল করতে একটি প্রভাবশালী মহল তৎপরতা চালায়। বিষয়টি স্থানীয় সংসদ সংসদ সামশুল হক চৌধুরীকে জানিয়েছেন। তবে এ বিষয়ে রেজাউল করিম চৌধুরী প্রকাশ বাবুল জানিয়েছেন, একটি দলিলে নুরুল করিম ও সাইফুল করিম নামের দুইজনের নামে খতিয়ান সৃজন হয়েছে। তবে কিভাবে নুরুল করিমের নাম খতিয়ানে এসেছে তা আমি জানি না। তবে আমাদের কাগজপত্র ঠিক রয়েছে। দীর্ঘ ৫৫ বছর ধরে আমি ভোগ দখলে আছি।

খবরটি শেয়ার করুন..

এ জাতীয় আরো খবর..
কপিরাইট © ২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | দৈনিক দেশ বার্তা
Theme Customized By TeqmoBD