1. bappy.ador@yahoo.com : admin :
  2. salehbinmonir@gmail.com : News Editor : News Editor
আচমকা বিসিবি কাছে নতুন ১ দাবি করে বসলেন সাবেক ক্রিকেটার রফিক, - DeshBarta
শনিবার, ০২ জুলাই ২০২২, ০৮:১৬ অপরাহ্ন
শিরোনামঃ
চন্দনাইশে পৌরসভার যুবলীগের উদ্যোগে শেখ পরশের ৫৪ তম জন্মদিন পালন চন্দনাইশে ক্যান্সার আক্রান্তদের মাঝে চেক বিতরণ চন্দনাইশে বঙ্গবন্ধু বঙ্গমাতা ফুটবল গোল্ডকাপ টুর্নামেন্ট ফাইনাল সম্পন্ন জননেতা মরহুম জহুর আহমেদ চৌধুরী ইতিহাসের অংশ – তসলিম উদ্দিন রানা এশিয়ান আবাসিক স্কুল ফুটবল টুর্নামেন্টে কর্ণফুলী দল চ্যাম্পিয়ন পটিয়ায় নবাগত ইউনও’র সাথে খলিলুর রহমান মহিলা ডিগ্রী কলেজ শিক্ষকদের শুভেচ্ছা বিনিময়। চট্টগ্রাম ফয়েসলেকে উদ্বোধন হলো সেলুন পাঠাগার বিশ্বজুড়ে চন্দনাইশে আহমদ ছফার জন্মদিন পালন জোবায়েত হাসান পটিয়া উপজেলা ছাত্রলীগের কমিটিতে যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মনোনীত রাউজানে কারিগরি ও বৃত্তিমূলক শিক্ষা সপ্তাহ ‘২২ উপলক্ষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত

আচমকা বিসিবি কাছে নতুন ১ দাবি করে বসলেন সাবেক ক্রিকেটার রফিক,

  • সময় রবিবার, ৬ ফেব্রুয়ারী, ২০২২
  • ৪৫ পঠিত

মোহাম্মদ আনিছুর রহমান ফরহাদ,ব্যুরো চীফ,

অদ্য ৬ ই ফেব্রুয়ারি ২০২২
বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড বিশ্বের অন্যতম ধনী বোর্ড। বোর্ডের ৯০০ কোটি টাকার এফডিআর করা আছে। তবে সাবেক ক্রিকেটার ও কোচদের খারাপ সময়ে এগিয়ে যাচ্ছে না বোর্ড। তাই বোর্ডকে সাবেকদের খারাপ সময়ে তাদের পাশে থাকার দাবি করেছেন সাবেক ক্রিকেটার ও দেশ স্পিনার মোহাম্মদ রফিক,

বাংলাদেশ ক্রিকেটের সব সময়ের এ অন্যতম সেরা বাঁ-হাতি স্পিনার মনে করেন, ব্যাংকে গচ্ছিত অর্থ ক্রিকেট উন্নয়নের পাশাপাশি সাবেক ক্রিকেটার এবং প্রশিক্ষকদের সাহায্যেও বরাদ্দ করা উচিৎ,

সাংবাদিকদের সাথে মোহাম্মদ রফিক আক্ষেপের সুরে বলেন, ‘আমাদের দেশের ক্রিকেট বোর্ডে এত বিপুল পরিমাণ টাকা। অথচ আমাদের দেশের ক্রিকেট যাদের হাত ধরে উঠে এসেছে, যারা হাতে ধরে প্রজন্মের পর প্রজন্ম তৈরি করেছেন শত শত ক্রিকেটার, যাদের নিবিঢ় পরিচর্যা এবং ছোঁয়ায় বড় হয়েছে। অনেকে জাতীয় তারকার লেভেল গায়ে মেখেছেন, সেই কোচদের দুর্দিন ও দুঃসময়ে বোর্ডের উচিৎ পাশে দাঁড়ানো,

সেটা কিভাবে? এই প্রশ্নের জবাবে রফিকের বলেন, ‘এই যে আমাদের সিনিয়র মোস্ট কোচ আলতাফ ভাই (আলতাফ হোসেন) মারা গেলেন। তাকে ক্রিকেট বোর্ড সাহায্য করেছে শেষ সময়ে,

তবে তিনি যখন কোচিং করাতে পারতেন না, বয়সের কারণে বার্ধক্য যখন এসে গ্রাস করেছিল, তখন যদি তাকে নিয়মিত মাসিক ভাতা দেয়া হতো, তাহলে শেষ সময়ে তার এত অর্থ কষ্ট হতো না। চিকিৎসাসহ অন্য খাতে খরচ করতে সমস্যায় পড়তে হতো না,
আর এখন আছেন ওসমান ভাই (সাবেক জাতীয় কোচ ওসমান খান)। যিনি আমাদের প্রজন্ম তৈরিতে রেখেছেন বিরাট ভূমিকা। আমাদের সমসাময়িক ক্রিকেটারদের প্রায় সবাই কোনো না কোনোভাবে ওসমান ভাইয়ের সান্নিধ্য পেয়েছে। সবাইকেই তিনি কম-বেশি শিখিয়েছেন। কোচিং তার কাছে শুধু ধ্যান-জ্ঞানই ছিল না, সেটা ছিল তার পেশা,

এখন ওসমান ভাইয়েরও বয়স হয়েছে। তার পক্ষে আর কোচিং করানো সম্ভব হয় না। তিনি যদি একটা পর্যায় থেকে মাসিক ভাতা পেতেন, তাহলে কোনই সমস্যা হতো না তার। মোটামুটি স্বাচ্ছন্দেই বাকি জীবন পার করে দিতে পারতেন; কিন্তু আমাদের তেমন কোনো লক্ষ্য ও পরিকল্পনা নেই,

ওসমান ভাইয়ের মত আরও যেসব কোচ এখন আর কোচিং করাতে পারেন না, তাদের যদি বোর্ড ভাতা দেয়, তাহলে তাদের চিকিৎসা খরচ মেটানো সহজ হয়। বাড়তি চাপ পড়ে না। এভাবেই সাবেক কোচ এবং ক্রিকেটারদের পাশে দাঁড়াতে পারে বোর্ড।

খবরটি শেয়ার করুন..

এ জাতীয় আরো খবর..
কপিরাইট © ২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | দৈনিক দেশ বার্তা
Theme Customized By TeqmoBD