1. bappy.ador@yahoo.com : admin :
  2. salehbinmonir@gmail.com : News Editor : News Editor
মাশফি হত্যায় যে তথ্য গুলো বের করা অতীব জরুরী - DeshBarta
মঙ্গলবার, ২৮ জুন ২০২২, ০৮:১১ পূর্বাহ্ন
শিরোনামঃ
রাউজানে কারিগরি ও বৃত্তিমূলক শিক্ষা সপ্তাহ ‘২২ উপলক্ষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত সুনামগঞ্জে বন‍্যাদুর্গতদের মাঝে বঞ্চিত নারী ও শিশু অধিকার ফাউন্ডেশনের ত্রাণ বিতরণ মলম পার্টির খপ্পরে পড়ে সর্বস্বান্ত কাতার প্রবাসী। চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির জরুরী সভায় আবুল হাশেম বক্কর। দুমকিতে আওয়ামীলীগের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী ও আনন্দ মিছিল ২১ খালের ও ১১ প্রকল্প নিয়ে চসিক মেয়রের মন্তব্য। নেত্রকোণা জেলা ছাত্রলীগের পক্ষ থেকে খালিয়াজুরীতে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ চন্দনাইশে ক্ষুদ্র প্রান্তিক কৃষকদের মাঝে বীজ-সার বিতরণ চন্দনাইশে মাদকের অপব্যবহার ও পাচাররোধে র‌্যালী-আলোচনা সভা উগ্রবাদ প্রতিহতে নাগরিকদের সচেতনতা বৃদ্ধিকরণে নাগরিক প্রশিক্ষণ

মাশফি হত্যায় যে তথ্য গুলো বের করা অতীব জরুরী

  • সময় বৃহস্পতিবার, ১০ মার্চ, ২০২২
  • ৬২ পঠিত

এস.এম নাঈম উদ্দীনঃ হাফেজ হয়ে রমজানে তারাবীহ্ পড়ানো হলো না ইফতেখার মালেকুল মাশফির। মাশফি হত্যার পর দেখেছি একজন মায়ের আহাজারী। সেদিন ভারী হয়ে উঠেছিল চারিদিকের পরিবেশ। তরতাজা একটি প্রাণ অকালে ঝরে গেল। সর্বশেষ জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানালো তাঁর ভাইকে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাসছে তাঁর ছবি আর ভিডিও। মাশফি এখন ফেসবুকে সীমাবদ্ধ, ধরা ছোঁয়ার বাইরে। তাঁর হাসি মাখা মুখটি দেখা যায়, অনুভব করা যায় তবে ধরা ছোঁয়া যায় না। যায় না সেই ছোট্ট শিশুটিকে আদর করা। ঘাতকরা নির্মম ভাবে কেঁড়ে নিলো তাঁর প্রাণ। পশুর মত জবাই করা হলো তাঁকে।

মাশফি হত্যার পাঁচ দিন পেরিয়ে গেলেও কিছুই উদঘাটন করা সম্ভব হয় নি এখনো। মাশফি হত্যার যে তথ্য গুলো বের করা জরুরী বলে মনে করি।

১। ময়না তদন্ত রিপোর্ট।
২। আশে পাশের সিসি ফুটেজ নেয়া।
৩। শিক্ষকদের উপস্থিতি নিশ্চিত করা।
৪। পরিচালকদের উপস্থিতি নিশ্চিত করা।
৫। মাশফিকে যেখানে রাখা হয়েছিল সেখানের ডিএনএ রিপোর্ট বের করা।
৬। মাশফির কাপড়ের ডিএনএ ও আঙ্গুলের ছাপ সংগ্রহ করা।
৭। যেটা দিয়ে হত্যা করা হয়েছে সেটা উদ্ধার করা।
৮। হত্যাকৃত জিনিসটির আঙ্গুলের ছাপ নেয়া।
৯। ঠিক কয়টাই মৃত্যু হয়েছে তা নিশ্চিত করা।
১০। কি কারণে হত্যা করা হয়েছে তা নিশ্চিত করা।
১১। মাদ্রাসার অন্যান্য ছেলেদের থেকে তথ্য নেয়া।
১২। হুজুররা কেমন আচরণ করতো তা বের করা।
১৩। মাশফির সাথে কোন খারাপ কিছু হয়েছে কিনা তা বের করা।
১৪। হত্যার সময় হুজুররা কোথায় ছিলো তা নিশ্চিত করা।
১৫। কয়টার সময় হেফজ খানা থেকে সে বের হয়েছে তা উদঘাটন করা।
১৬। সকালে মাশফি মাদ্রাসায় ছবক দিয়েছিল কিনা অন্য ছেলেদের থেকে প্রশ্ন করে তা জেনে নেয়া।
১৭। হত্যা কি আদৌ সকালে হয়েছে নাকি রাতে হয়েছে তা বের করা।
১৮। মাশফি শরীরে অন্যান্য জায়গায় আঘাত হয়েছে কিনা নিশ্চিত করা।
১৯। হুজুরদের আলাদা আলাদা করে এক ঘন্টা পর পর একি প্রশ্ন করা। সত্য হলে ঠিক বলবে। মিথ্যা হলে এক ঘন্টা আগে ঠিক কি উত্তর দিয়েছিল তা ভুলে যাবে। উত্তরে গোলক ধাঁধায় পড়ে যাবে।
২০। এক হুজুর অন্য হুজুরের দোষ দিচ্ছে বলে কথা বের করা। এতে করে যে কেউ সত্যিটা বলে দিবে নিজের অজান্তে।

এ ছাড়াও অরো অনেক অপশন আছে অপরাধীকে চিহ্নিত করার। এখন শুধু সময়ের অপেক্ষা।

খবরটি শেয়ার করুন..

এ জাতীয় আরো খবর..
কপিরাইট © ২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | দৈনিক দেশ বার্তা
Theme Customized By TeqmoBD