1. bappy.ador@yahoo.com : admin :
  2. salehbinmonir@gmail.com : News Editor : News Editor
চকরিয়ায় জমে উঠেছে ঈদের বাজার;ভোগান্তিতে ক্রেতারা - DeshBarta
শনিবার, ০২ জুলাই ২০২২, ০৮:৫৪ অপরাহ্ন
শিরোনামঃ
আল্লামা মুফতি মুজাহিদ উদ্দিন চৌধুরী দুবাগী(রহঃ) ট্রাস্টের বিশুদ্ধ পানি ও খাদ্য বিতরণ সাতকানিয়ার পুরানগড়ের বাজালিয়া-শীলঘাটা সড়কের শুভলং খালের ব্রিজের সাইড ভেঙ্গে বেহাল দশাঃযেকোন মুহুর্তে ঘটতে পারে মারত্মক দুর্ঘটনা নূরানী পাড়া সমাজ কল্যাণ পরিষদের উদ্যােগে “মাদক, কিশোর গ্যাং ও অসামাজিক কার্যকলাপ ” বিরােধী সমাবেশ অনুষ্ঠিত চকরিয়ায় সাফারীপার্ক সংলগ্ন বালু মহালে বনকর্মকর্তার অভিযান: ৪টি ড্রেজার মেশিন ভাংচুর শিশু কিশোরদের অপরাধ প্রতিরোধে আমাদের করণীয় শীর্ষক সেমিনারে বক্তব্য রাখছেন চট্টগ্রাম মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ডা. মো. ইসমাইল খান। চন্দনাইশে পৌরসভার যুবলীগের উদ্যোগে শেখ পরশের ৫৪ তম জন্মদিন পালন চন্দনাইশে ক্যান্সার আক্রান্তদের মাঝে চেক বিতরণ চন্দনাইশে বঙ্গবন্ধু বঙ্গমাতা ফুটবল গোল্ডকাপ টুর্নামেন্ট ফাইনাল সম্পন্ন জননেতা মরহুম জহুর আহমেদ চৌধুরী ইতিহাসের অংশ – তসলিম উদ্দিন রানা এশিয়ান আবাসিক স্কুল ফুটবল টুর্নামেন্টে কর্ণফুলী দল চ্যাম্পিয়ন

চকরিয়ায় জমে উঠেছে ঈদের বাজার;ভোগান্তিতে ক্রেতারা

  • সময় মঙ্গলবার, ২৬ এপ্রিল, ২০২২
  • ৩১ পঠিত

জেপুলিয়ান দত্ত জেপু,চকরিয়াঃ

কক্সবাজারের চকরিয়ায় মার্কেট গুলোতে জমে উঠেছে ঈদের বাজার। ক্রেতাদের ভিড়ের কারণে সৃষ্টি হচ্ছে যানজট। পবিত্র ঈদুল ফিতরের দিন যতই ঘনিয়ে আসছে চকরিয়া উপজেলা শহরে ক্রেতাদের উপচে পড়া ভিড়ও বৃদ্ধি পাচ্ছে।

কক্সবাজার জেলার অন্যতম চকরিয়া চতুর্মুখী উপজেলা হওয়ায় এ শহরে বিভিন্ন উপজেলা থেকে লোকসমাগমও প্রতিনিয়ত বাড়তে থাকে। চট্রগ্রাম- কক্সবাজার প্রধান সড়ক চট্রগ্রাম জেলা থেকে কক্সবাজারের শুরুতেই চকরিয়া উপজেলার উপর দিয়ে ঈদগাঁহ(ঘোষিত) ও রামু উপজেলা পেরিয়েই হিরাম কক্সের পর্যটন নগরী কক্সবাজারে প্রবেশ করতে হয়।

চকরিয়া উপজেলার পূর্বে পার্বত্য বান্দরবান জেলার লামা ও আলীকদম উপজেলা অবস্থিত। পশ্চিমে মহেশখালী,পেকুয়া ও কুতুবদিয়া উপজেলা অবস্থিত হওয়ায় এ সব উপজেলার সংযোগস্থল চকরিয়া উপজেলা উল্লেখযোগ্য। পার্বাত্য লামা, আলীকদম উপজেলার অধিবাসী ও মহেশখালী,কুতুবদিয়া,পেকুয়ার বিশাল জনগোষ্ঠী নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য সামগ্রী ক্রয়ের জন্য এ চকরিয়ায় আসে। চকরিয়া থানার রাস্তা মাথা থেকে পুরাতন এসআলম কাউন্টার পর্যন্ত রয়েছে ৭/৮ টি বিশাল মার্কেট। এসব মার্কেটে পাইকারি ও খুচরা দোকানসহ পাঁচশতাধিক বিক্রয় প্রতিষ্ঠানে রাতদিন ক্রেতাদের ভিড় জমে থাকে। চকরিয়া উপজেলা শহরের এ মার্কেটগুলোতে বিভিন্ন উপজেলা থেকে সিএনজি চালিত অটো,টমটম,ম্যাজিক গাড়ীর মত ছোট যানে করে ক্রেতারা প্রতিনিয়ত জমায়েত হয়। যার ফলে দীর্ঘ যানজটের সৃষ্টি হয়। এতে দুর্ভোগ পোহাতে হয় ছাত্র-ছাত্রীসহ সাধারণ পথচারীদের । জেলার অন্য উপজেলা প্রধান সড়ক থেকে দূরত্ব থাকায় এসব উপজেলায় সকল প্রকার পণ্য ক্রয় সহজলভ্য নয়। কেননা দেশের বিভিন্ন কোম্পানির উৎপাদিত পণ্য যোগাযোগ সংকট থাকায় পাহড়ী ও সমুদ্র উপকূলীয় দুর্গম এলাকায় পৌঁছাতে পারে না। ফলে চকরিয়া উপজেলায় গড়ে উঠেছে রকমারি পণ্যের দোকান ও অভিজাত শপিং মল। এছাড়াও খাদ্য দ্রব্যের পাইকারি ও খুচরা দোকান রয়েছে ব্যাপক।

বিশেষ করে এ উপজেলায় রয়েছে গার্মেন্টস পণ্যের বিশাল মার্কেট। এ মার্কেটগুলোতে আগামী ঈদকে সামনে রেখে ব্যবসায়ীরা পণ্য বিক্রয়ে ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছে।

এ ব্যাপারে একাত্তর(৭১) পোস্টের এ প্রতিনিধিকে চকরিয়া নিউ মার্কেট ব্যবসায়ীর সভাপতি ও সাংবাদিক আবদুল হামিদ জানান, চকরিয়া উপজেলা জেলার মধ্যে ব্যবসার জন্য অন্যতম আকর্ষণীয় জোন। ঈদ উপলক্ষে কেনাকাটা ছাড়াও বিয়েসহ নানা ধরণের অনুষ্ঠানের জন্য পণ্য ক্রয়ের জন্য এ উপজেলা শহরে প্রতিনিয়ত ক্রেতাদের ভিড় থাকে। তাই ক্রেতা ও বিক্রেতাদের নিরাপত্তার জন্য প্রশাসনের জোর নজরাদারীও বাড়ানো প্রয়োজন মনে করছি।
ঈদ যতই ঘনিয়ে আসছে মার্কেটে কাপড়চোপড়ের দোকান গুলোতে ভিড়ও লক্ষ্য করার মত।

এদিকে,ক্রেতাদের অভিযোগ সুযোগ বুঝে ব্যাবসায়ীরা কম মূল্যের পণ্য বেশি মূল্য নিয়ে নিচ্ছে। গ্রামের সহজ সরল মানুষ পেয়ে অনেক ব্যবসায়ীরা অতিরিক্ত দাম হাকিয়ে হাতিয়ে নিচ্ছে মোটা অংকের টাকা। এতে সরল-সোজা গ্রামের হতদরিদ্রদের পোহাতে হচ্ছে ভোগান্তি।

দেখা গেছে,একই কোম্পানির একই মানের পণ্য বিক্রি হয় ভিন্ন ভিন্ন মূল্যে। আবার নকল পণ্যেও বাজার সয়লাব। পণ্য ক্রয়ে ক্রেতারা ভুল করে নকল পণ্য অধিক মূল্যে কিনে নিচ্ছে। এতে ক্রেতারা ঠকে যাচ্ছে প্রতিনিয়ত।

এ ব্যাপারে বাংলাদেশের ব্যবসায়ী সমিতির শীর্ষ সংগঠন ফেডারেশন অব বাংলাদেশ চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির (এফবিসিসিআই) প্রতি সচেতন মহলের জোর দাবী পণ্য সামগ্রীর মূল্য যেন নির্ধারণ করে দেওয়া হয়। অসাধু কিছু শিল্পোদ্যোক্তারা শিল্পোৎপাদনের মাধ্যমে নকল ও ভেজাল পণ্য বাজার সয়লাব করায় খাঁটি পণ্য নির্বাচন করা সাধারণ ক্রেতাদের মধ্যে দেখা দিয়েছে মারাত্বক সমস্যা। এ ব্যাপারে প্রশাসনের বাজার মনিটরিং অভ্যাহত রাখার জন্যও জোর দাবী জানাচ্ছে ভোক্তাভোগী ক্রেতারা।

খবরটি শেয়ার করুন..

এ জাতীয় আরো খবর..
কপিরাইট © ২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | দৈনিক দেশ বার্তা
Theme Customized By TeqmoBD