1. bappy.ador@yahoo.com : admin :
  2. salehbinmonir@gmail.com : News Editor : News Editor
তাজমহলের আদলে নির্মিত দৃষ্টিনন্দন মসজিদ মাদারীপুরের শিবচরে, - DeshBarta
শনিবার, ২৫ জুন ২০২২, ০৮:২২ অপরাহ্ন
শিরোনামঃ
মাইজভান্ডারী গাউসিয়া হক কমিটি সূর্যগিরি আশ্রম শাখার উদ্যোগে বৃক্ষরোপণ ও বস্ত্র বিতরণ শুভ জন্মদিন ফুটবলের জীবন্ত কিংবদন্তি জিদান জীবনানন্দ দাশকে নিয়ে চলচ্চিত্র ‘ঝরা পালক’ মুক্তি পেল পদ্মা সেতু উদ্বোধন উপলক্ষে চন্দনাইশ থানা পুলিশের র‍্যালি পদ্মা সেতু ও জাতীয় অর্থনীতিতে প্রবাসীদের অবদান” শীর্ষক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত। করোনা বৃদ্ধি পাওয়ায় শিক্ষার্থীদের মাঝে পটিয়া শ্রমিকলীগ সভাপতি সামশুল ইসলাম’র মাক্স বিতরন চকরিয়ায় উত্তর পশ্চিম বরইতলী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে পরিচালনা কমিটি গঠিত ফটিকছড়িতে দারুল ইরফান রিসার্চ ইনস্টিটিউটের উদ্যোগে প্রশিক্ষণ কর্মশালা অনুষ্ঠিত আনোয়ারা যুবদলের উদ্যোগে বেগম জিয়ার সুস্থতা কামনায় দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত বস্তুনিষ্ঠ সাংবাদিকতায় মাদার তেরাসা পদক পেলেন এস এম পিন্টু

তাজমহলের আদলে নির্মিত দৃষ্টিনন্দন মসজিদ মাদারীপুরের শিবচরে,

  • সময় শনিবার, ৪ জুন, ২০২২
  • ১৬ পঠিত

মোহাম্মদ আনিছুর রহমান ফরহাদ, ব্যুরো চীফ।

মাদারীপুরের শিবচরে পদ্মা সেতু হাইওয়ে এক্সপ্রেসের পাশেই তাজমহলের আদলে নির্মাণ করা হয়েছে দৃষ্টিনন্দন মসজিদ। মাদারীপুর-১ আসনের সংসদ সদস্য ও জাতীয় সংসদের চিফ হুইপ নূর-ই-আলম চৌধুরীর উদ্যোগ ও অর্থায়নে শিবচরের সূর্যনগরে নির্মাণ করা হয়েছে মসজিদটি। দৃষ্টিনন্দন মসজিদটি দেখতে প্রতিদিনই লেগে থাকে দর্শনার্থীদের ভিড়।

মসজিদটির নাম ইলিয়াছ আহম্মেদ চৌধুরী কলেজ মসজিদ। এতে রয়েছে ৫০ ফুট উচ্চতার ৪টি গম্বুজ ও ৯৬ ফুট উচ্চতার ২টি মিনার। মসজিদের ভেতরে ৮০০ ও বাইরে আড়াই হাজার মুসল্লি একত্রে নামাজ আদায় করতে পারেন। ৭৫ ফুট উচ্চতার মসজিদটির ভেতরে ব্যবহার করা হয়েছে ৮টি পাখাযুক্ত মাত্র ৪টি বৈদ্যুতিক পাখা। চীন থেকে আনা ফ্যানগুলো দেখতে হুবহু বিমানের প্রপেলারের মতো।

নামাজ পড়ার পাশাপাশি তাজমহলের আদলে নির্মিত মসজিদটির সৌন্দর্য উপভোগে প্রতিদিনই আসেন শত শত দর্শনার্থী। রাজধানীতে যাতায়াতকারীরাও গাড়ি থামিয়ে আদায় করেন নামাজ। দাবি করা হয়, এটি দক্ষিণাঞ্চলের সবচেয়ে ব্যয়বহুল, আকর্ষণীয় ও সর্বাধুনিক মসজিদ।

মসজিদের রাতের দৃশ্য আরও মনোরম। ঝলমলে আলো নজর কাড়ে সবার। আমেরিকার লিগম্যান কোম্পানি থেকে আনা বিভিন্ন আকৃতির ৯৪টি লাইট রয়েছে এখানে। আর তুরস্ক থেকে আনা হয়েছে ঝাড়বাতি।

মসজিদটির নকশা করেছেন স্থপতি কাজী মোহাম্মদ হানিফ। ৪ বিঘা জমির ওপর ২০১৭ সালের ফেব্রুয়ারিতে নির্মাণকাজ শুরু হয়। নির্মাণ করতে প্রতিদিন ৪০ জন শ্রমিকের সময় লেগেছে একটানা তিন বছর। ২০২১ সালের ফেব্রুয়ারিতে মুসল্লিদের জন্য খুলে দেয়া হয় মসজিদটি।

খবরটি শেয়ার করুন..

এ জাতীয় আরো খবর..
কপিরাইট © ২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | দৈনিক দেশ বার্তা
Theme Customized By TeqmoBD