1. bappy.ador@yahoo.com : admin :
  2. salehbinmonir@gmail.com : News Editor : News Editor
এনজিওগ্রামে ৩টি ব্লক পাওয়া গেছে বেগম খালেদা জিয়ার - DeshBarta
বৃহস্পতিবার, ০৬ অক্টোবর ২০২২, ০৯:৫৮ পূর্বাহ্ন
শিরোনামঃ
রাঙ্গুনিয়া শান্তিনিকেতনে সরকারী রাস্তায় গৃহ নির্মাণ যাতায়াতে বিঘ্নতা : রাস্তা পুনরুদ্ধার দাবী চকরিয়ার বরইতলীতে শারদীয় দুর্গোৎসব পরিদর্শন করেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক নির্বাচন কমিশনের সাথে ইলেকশন মনিটরিং ফোরাম (ইএমএফ)’র মতবিনিময় জামালপুর শহরে পৌরসভার নামে অটোতে চাদাঁবাজি কালে দুই যুবক আটক জামালপুর জেলায় প্রাথমিক শিক্ষায় বিশেষ অবদানের জন‍্য শ্রেষ্ঠ ইউএনও নির্বাচিত তানভীর হাসান রুমান। পীরগঞ্জে পাওনা টাকা চাইতে যাওয়ায় বৃদ্ধকে প্রহার. লক্ষাধিক টাকা মূল্যের গাছ বিক্রি করে আত্মসাৎ করলেন প্রধান শিক্ষক মোহাম্মদ আলী রাজু মাঠের বাজার আবু বক্কর ফাজিল মাদ্রাসার অধ্যক্ষের নানা দুর্নীতি বিদ্যুৎ বিভ্রাট নিয়ে ফেসবুকে সমালোচনা করায় প্রবাসীর স্ত্রী গ্রেফতার মানুষ বিশ্বাস ঘাতক, পশু পাখিরা কখনো বিশ্বাস ঘাতকতা করবেনাঃ বিশ্ব প্রাণী দিবসের কর্মসূচীতে বক্তারা

এনজিওগ্রামে ৩টি ব্লক পাওয়া গেছে বেগম খালেদা জিয়ার

  • সময় শনিবার, ১১ জুন, ২০২২
  • ৬৮ পঠিত

নিজস্ব প্রতিবেদক

সাবেক প্রধানমন্ত্রী বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়াকে এনজিওগ্রামের ৩টি ব্লক ধরা পড়েছে। লাইভ সেভিংয়ের জন্য জরুরী ভিত্তিতে একটি ব্লকে রিং পরানোর মাধ্যমে রক্ত চলাচল সচল করা হয়েছে। লিভারে জটিলতা ও কিডনির পরিস্থিতি বিবেচনায় অপর দু’টি ব্লকে তাৎক্ষণিক রিং পরানো সম্ভব নয় বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞ ডাক্তাররা।

বেগম খালেদা জিয়ার ব্যক্তিগত চিকিৎসক টিমের অন্যতম সদস্য ডা এ জেড এম জাহিদ এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, গতরাতে (১০ জুন দিবাগত) হঠাৎ করেই বুকে ব্যথা অনুভব করলে সাবেক প্রধানমন্ত্রীকে এভারকেয়ার হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে নেওয়ার শারীরিক বিভিন্ন পরীক্ষা নিরীক্ষা করা হয় তাঁকে। পরীক্ষা নিরীক্ষার পর মেডিকেল টিমের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী এনজিওগ্রাম করা হয়। এতে দেখা যায় সাবেক প্রধানমন্ত্রীর হার্টে ৩টি ব্লক রয়েছে। তাৎক্ষনিক একটি ব্লকে রিং পরানো হলেও বাকী দু’টিতে সম্ভব হয়নি।
ডা.জাহিদ জানান, তাঁর শারীরিক অবস্থা এখনো পুরোপুরি আশঙ্কমুক্ত নয়।

উল্লেখ্য, এর আগে গত বছরের ১৩ নভেম্বর গুলশানের বাসায় হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়লে বেগম খালেদা জিয়াকে এভারকেয়ার হাসপাতালে নেওয়া হয়েছিল। তখন লিভারে জটিলতা ধরে পড়ে। ওই সময় তাঁকে বিদেশে নিয়ে আরো উন্নত চিকিৎসার জন্য সুপারিশ করেছিলেন বিশেষজ্ঞ ডাক্তাররা। কিন্তু সরকার কোন অবস্থাতেই বেগম খালেদা জিয়াকে বিদেশে চিকিৎসার অনুমতি দেয়নি। এতে এভারকেয়ার হাসপাতালে রেখেই তাঁর শারীরিক পরীক্ষা-নিরীক্ষার রিপোর্ট বিদেশে বিশেষজ্ঞ ডাক্তারদের কাছে পাঠিয়ে জরুরী পরামর্শ নেওয়া হয়েছিল। টানা ৮১ দিন এভারকেয়ারে রেখে তাঁকে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছিল তখন। বাসায় ফিরেছিলেন চলতি বছরের ১ ফেব্রুয়ারি।

খবরটি শেয়ার করুন..

এ জাতীয় আরো খবর..
কপিরাইট © ২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | দৈনিক দেশ বার্তা
Theme Customized By TeqmoBD