1. bappy.ador@yahoo.com : admin :
  2. salehbinmonir@gmail.com : News Editor : News Editor
চকরিয়ায় জমে উঠেছে কোরবানি পশুর হাট - DeshBarta
রবিবার, ১৪ অগাস্ট ২০২২, ০৯:২৬ পূর্বাহ্ন
শিরোনামঃ
ঢাকায় বঙ্গবন্ধুর হত্যার প্রথম প্রতিবাদকারী শহীদ মৌলভী সৈয়দ আহমেদ এর মৃত্যু বার্ষিকী পালিত ছাত্র ইউনিয়নের মানববন্ধনে ছাত্রলীগের হামলা আহত ১০ জন ১৫ই আগষ্ট জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে পটিয়া কুসুমপুরা ৩নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের প্রস্তুতি সভা দ্রব্যমূল্যের অসহনীয় ঊর্ধ্বগতিতে সাধারণ মানুষ আজ দিশাহারা-হাজী জসিম উদ্দিন তরুণ সংগঠক ও সমাজকর্মী। যুগপৎভাবে রাজপথ দখলের প্রস্তুতি নিচ্ছে এনডিএমঃ ববি হাজ্জাজ সীতাকুন্ডে ট্রাকের পিছনে ঢুকে গেল কার,চালক নিহত। মাটিরাঙ্গায় টয়লেট থেকে বৃদ্ধের লাশ উদ্ধার সাভারে সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে অপ-প্রচারের প্রতিবাদে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ সোনালী ব্যাংকের টাকা অন্য একাউন্টে..! এ ঘটনার গ্রেফতার ১,উদ্ধার ৪৫ লাখ টাকা বীর মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের উপর হামালার প্রতিবাদে মানববন্ধন

চকরিয়ায় জমে উঠেছে কোরবানি পশুর হাট

  • সময় সোমবার, ৪ জুলাই, ২০২২
  • ২৭ পঠিত

জেপুলিয়ান দত্ত জেপু,চকরিয়াঃ

কক্সবাজার জেলার চকরিয়ায় এবার জমে উঠেছে কোরবানি পশুর হাট। জেলার সব ক’টা উপজেলার সংযোগস্থল হওয়ায় এবার জেলার বিভিন্ন উপজেলার বাসিন্দারা গরু-ছাগল ক্রয়-বিক্রয়ের জন্য চকরিয়ামূখী হয়েছে। এছাড়াও বান্দরবান পার্বত্য জেলার লামা-আলীকদমের অধিকাংশ মুসলিম সম্প্রদায়ও চকরিয়ার পশুর হাটে গরু ক্রয়-বিক্রয়ের জন্য ছুটে আসছে।

চকরিয়া পৌর শহর ছাড়াও উপজেলার বেশ কয়েকটি বাজার এ বছর জমে উঠেছে কোরবানি পশুর হাট। এবার ১৭ টি গরুর হাটে গরু বেচা-বিক্রি হবে। এর মধ্যে বদরখালী, ইলিশিয়া বাজার,চকরিয়া পৌর সভার ঘনশ্যাম বাজার,হারবাং বাজার,বরইতলীর একতা বাজার,ডুলাহাজারা বাজার,খুটাখালী বাজার উল্লেখযোগ্য।

এদিকে, মায়ানমার থেকে চোরাই পথে গরু না আসায় দেশীয় খামারি ও গৃহস্থরা ন্যায্য মূল্য পাওয়ার আশা করছেন এবারের ঈদের বাজারে। তবে চকরিয়ায় বার বার গরুচোর সিন্ডিকেটের কবলে পড়ে অনেক খামারি ও গৃহস্থদের সযত্নে পালিত গরু চুরির শিকার হতে হয়েছে।
গরু চুরির শিকার হওয়া অনেক খামরি ও গৃহস্থরা এ প্রতিনিধিকে জানান, দীর্ঘ কয়েক বছর ধরে চকরিয়ায় বিভিন্ন খামারি ও গহস্থের বাড়ী থেকে গরু চুরি হয়। এর ভয়ে নির্ঘুম রাত কাটানো খামারি ও গৃহস্থদের লালিত-পালিত গরু বিক্রি হওয়ার আগেই অনেক সময় চুরি হয়ে যায়। গরু চুরির শিকার হওয়া অনেক খামারি ও গৃহস্থরা প্রশাসনের দ্বারস্থ হয়েও চুরি হওয়া গরু উদ্ধার করতে পারে নি। ফলে দুঃখ ভারাক্রান্ত মন নিয়ে তাদের ফিরতে হয় বাড়ীতে।

এ ব্যাপারে ভোক্তাভোগী গরু চুরি হওয়া খামারি ও গৃহস্থরা জানান,গরু লালন-পালন ও মোটাতাজাকরনে যে পরিমাণ খরচ ও কষ্ট হয় তা যদি চোরের দল গরু নিয়ে যায় তাহলে আমরা কিভাবে গরুর খামার করব? এদিকে পুলিশ প্রশাসনের সহযোগিতা না পেয়ে গরুর খামারিরা অনেকটা অসহায় হয়ে পড়েছে। এ ক্ষতি পুষিয়ে নিতে না পেরে এ পেশা থেকে অন্য পেশায় যুক্ত হচ্ছে অনেকে। ফলে, চাহিদার তুলনায় বাজারে গরু না থাকায় গরুর মূল্য বেশি গুণতে হচ্ছে কোরবানিদাতাদের। তবে ব্যবসায়ীয়ারা মাঝপথে ভাল লভ্যাংশের মূখ দেখতে পাবে।

বাজার ঘুরে জানা গেছে, বিগত বছর চোরাইপথে আসা ভারতীয় গরু ও মায়ানমারের গরু বাজার সয়লাব ছিল।এবার সিলেটে বন্যা ও বিজিপির কঠোর নজরদারীতে তেমন একটা চোরাই পথে গরু আসার সুযোগ না থাকায় দেশীয় বাজারে ভালমত বেচা-বিক্রি হচ্ছে।

আগামী ঈদুল আযাহাকে সামনে রেখে বাজার কমিটি অনেকটা নিয়মনীতি অনুসরণ করে উপজেলা সদরসহ মফস্বলের বাজার নিয়ন্ত্রণ করতে দেখা গেছে। গ্রামাঞ্চলের অধিকাংশ গরু কোরবানিদাতাদের সাথে কথা বলে জানা গেছে, এবার গরু কোরবানি দেওয়ার জন্য ৭০ হাজার থেকে ১ লক্ষ টাকা মূল্যমান ক্রয়সীমায় রাখছে।

অন্যদিকে বিত্তবানেরা গরু কোরবানি দেওয়ার জন্য লাখ টাকার অধিক বাজেট নিয়ে বাজার ঘুরতে দেখা গেছে।এরা পছন্দমত গরু পেলে মোটা টাকা খরচ করেও গরু ক্রয় করতে পিছপা হবে না বলে জানালেন দীর্ঘদিনের অভিজ্ঞ ব্যবসায়ীরা।

খবরটি শেয়ার করুন..

এ জাতীয় আরো খবর..
কপিরাইট © ২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | দৈনিক দেশ বার্তা
Theme Customized By TeqmoBD